বাংলাদেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
আঙুল কাটলেন যুবলীগ নেতা : চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন এসপি

সুনামগঞ্জ  প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের প্রকল্প কমিটির সভাপতি (পিআইসি) ও যুবলীগ নেতা অদুদের বর্বরতার শিকার শিশু ইয়াহিনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খাঁন।

রোববার রাত ৮টার দিকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই শিশুর চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিতে ও তাকে দেখতে হাসপাতালে যান পুলিশ সুপার। পরে বেডে শয্যাশায়ী শিশু ইয়াহিনের মুখে শনিবার তার উপর চালানো নির্যাতনের ঘটনা শোনেন তিনি।

এ সময় পুলিশ সুপার শিশু ইয়াহিন সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যায়ভার বহন ও আইনি সহায়তার ঘোষণা দিয়ে তার মা দিলরাজ বেগমের হাতে প্রাথমিক অনুদান হিসেবে নগদ ২০ হাজার টাকা, নতুন জামা কাপড় ও ফলের ব্যাগ তুলে দেন।

পুলিশ সুপার বলেন, এ ঘটনায় অন্য সবার মতো পুলিশ প্রশাসনের লোকজনও মর্মাহত। অদুদ যে লীগই করুক আর যতবড় প্রভাবশালীই হোক না কেন তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেলে ইয়াহিন গরুর ঘাস কাটার জন্য মহালিয়া হাওর পাড়ে ময়নাখালি বাঁধের উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় পা পিছলে বাঁধের নিচে পড়ে যায়। এ সময় নির্মাণাধীন বাঁধের ড্রেসিং করা কাজে ব্যাঘাত ঘটে। কাজে ব্যাঘাত ঘটায় অদুদ মিয়া ইয়াহিনের হাতে থাকা কাঁচি কেড়ে নিয়ে হাতের ৪টি আঙুল কেটে দেয়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে লোকজন। আঘাত গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

 

আঙুল কাটলেন যুবলীগ নেতা : চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন এসপি
                                  

সুনামগঞ্জ  প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের প্রকল্প কমিটির সভাপতি (পিআইসি) ও যুবলীগ নেতা অদুদের বর্বরতার শিকার শিশু ইয়াহিনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খাঁন।

রোববার রাত ৮টার দিকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই শিশুর চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিতে ও তাকে দেখতে হাসপাতালে যান পুলিশ সুপার। পরে বেডে শয্যাশায়ী শিশু ইয়াহিনের মুখে শনিবার তার উপর চালানো নির্যাতনের ঘটনা শোনেন তিনি।

এ সময় পুলিশ সুপার শিশু ইয়াহিন সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যায়ভার বহন ও আইনি সহায়তার ঘোষণা দিয়ে তার মা দিলরাজ বেগমের হাতে প্রাথমিক অনুদান হিসেবে নগদ ২০ হাজার টাকা, নতুন জামা কাপড় ও ফলের ব্যাগ তুলে দেন।

পুলিশ সুপার বলেন, এ ঘটনায় অন্য সবার মতো পুলিশ প্রশাসনের লোকজনও মর্মাহত। অদুদ যে লীগই করুক আর যতবড় প্রভাবশালীই হোক না কেন তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেলে ইয়াহিন গরুর ঘাস কাটার জন্য মহালিয়া হাওর পাড়ে ময়নাখালি বাঁধের উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় পা পিছলে বাঁধের নিচে পড়ে যায়। এ সময় নির্মাণাধীন বাঁধের ড্রেসিং করা কাজে ব্যাঘাত ঘটে। কাজে ব্যাঘাত ঘটায় অদুদ মিয়া ইয়াহিনের হাতে থাকা কাঁচি কেড়ে নিয়ে হাতের ৪টি আঙুল কেটে দেয়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে লোকজন। আঘাত গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

 

এসব ডাক্তার থেকে সতর্ক থাকুন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক খুললেই চোখে পড়ে নামে-বেনামে বিভিন্ন ‘ফেসবুক পেজ’। এসব পেজে বিভিন্ন নারীর নামের আগে ডাক্তার যুক্ত করে চালানো হচ্ছে সেবামূলক প্রচারণা, সঙ্গে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন পরামর্শও।

ফেসবুকের এসব পেজের বিরুদ্ধে সম্প্রতি বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে, আসলেই কি এরা ডাক্তার, নাকি সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্তি করতেই এসব করা হচ্ছে?

বাংলাদেশ হেলথ সার্ভিস নামক একটি পেজ থেকে সম্প্রতি জনসচেতনতায় এসব পেজের ছবি সম্বলিত একটি পোস্ট দেয়া হয়েছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘এসব ভুয়া চিকিৎসকের পেজ থেকে ভুল তথ্য নিয়ে শারীরিক ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। যেকোনো অসুস্থতার জন্য এমবিবিএস চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।’

বাংলাদেশ হেলথ সার্ভিসের পোস্টে ‘ডাক্তার মেহজাবিন সিদ্দিকী’, ‘ডাক্তার তানিয়া আক্তার’, ‘ডাক্তার সারমিন সুলতানা’, ‘ডাক্তার ফারহানা চৌধুরী’, ‘ডাক্তার সাথী আক্তার’, ‘ডাক্তার সুমাইয়া পাখি’সহ বিভিন্ন নামের ফেসবুক পেজের স্ক্রিনশট দেয়া হয়েছে। এসব ফেসবুক পেজের লাইকের সংখ্যাও অনেক। এসব পেজে এক লাখ থেকে তিন লাখ পর্যন্ত লাইকের সংখ্যা রয়েছে।

পেজগুলোতে দেখা যায়, এর বেশিরভাগ পোস্টই আপত্তিকর যৌন উত্তেজক বিষয়ে। এছাড়া মেয়েদের মিলনে আগ্রহ করে তোলার পরামর্শ, রসুন বীর্য ও যৌনশক্তি বৃদ্ধিকারক পদ্ধতি বা ওষুধের বিভিন্ন আপত্তিকর পোস্টে ভরপুর। পাশাপাশি বেশ কয়েকেটি ওয়েবসাইটের আপত্তিকর লিংকও শেয়ার করা হয়েছে।

পেজগুলোতে ডাক্তার পরামর্শ দিচ্ছেন- এমন ধারণা থেকে সাধারণ মানুষ সরল বিশ্বাসে লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকছেন। সাধারণ মানুষের সরলতাকে পুঁজি করে পেজমালিকরা আবার বিভিন্ন অনলাইন সাইটের লিংক শেয়ার করে নিজেদের হিট বাড়িয়ে নিচ্ছেন। বাংলাদেশ হেলথ সার্ভিস বলছে, এসবের মধ্যে দু-একটি ফেসবুক পেজ আসল ডাক্তার দ্বারা পরিচালিত হলেও বেশিরভাগই ভুয়া।

সম্প্রতি সাভারের আশুলিয়ায় যৌন উত্তেজক হালুয়া খেয়ে দুই যুবকের মৃত্যু হয়। একই ঘটনায় সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভর্তি রয়েছেন আরও দুজন।

জানা গেছে, নিজেদের তৈরি হালুয়া খেয়ে তারা অসুস্থ হন। হতাহতরা সবাই ঢাকা রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকার (ডিইপিজেড) বিভিন্ন কারখানার শ্রমিক। ধারণা করা হচ্ছে, তারা বাজারে বিভিন্ন ক্যানভাসারের বক্তব্য শুনে অথবা ফেসবুকের এসব পেজের পরামর্শ অনুযায়ী নিজেরা ওই হালুয়া বানিয়েছিলেন। যা খাওয়ার পর বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হন।

চিকিৎসকরা বলছেন, ডাক্তার নামে ফেসবুক পেজ খুলে এমন আপত্তিকর যৌন সমস্যা বা অন্য কোনো শারীরিক সমস্য কেন্দ্রিক পোস্ট দিয়ে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্তি করা অনুচিত। একই সঙ্গে শারীরিক বা যৌন সমস্যা; যেকোনো পরামর্শ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছ থেকে নেয়া উচিত। ফেসবুকে পাওয়া পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ ব্যবহার করা ঠিক নয়। এতে বড় ধরনের সমস্যা হতে পারে।

রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. সাদিয়া আরেফিন এ বিষয়ে বলেন, বিভিন্ন চটকদার কথা উল্লেখের পাশাপাশি এসব ফেসবুক পেজে দেয়া হেলথ টিপস অনুসরণ করা উচিত নয়। অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত। অন্যথায় পোস্ট কেন্দ্রিক বিভিন্ন পন্থা বা চিকিৎসা পদ্ধতি অবলম্বনে যে কেউ মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে পারেন। সেই সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের উচিত ভুয়া এসব ফেসবুক পেজ বন্ধ করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া।

 

বজ্রপাতে গ্যাস লাইনের আগুনই কাড়ল ৫ প্রাণ
                                  

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটের গোলাপগঞ্জের ক্লাববাজার এলাকায় একটি বস্তিতে (কলোনী) ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মা-ছেলেসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় লয়লু মিয়ার বস্তিঘরে বজ্রপাতের কারণে গ্যাস লাইনে আগুন ধরে গেলে ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয় বলে জানিয়েছেন সিলেট ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক তনয় বিশ্বাস।

সিলেট ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার আনিস চৌধুরী জানান, ভোর পৌনে ৩টার দিকে বৃষ্টিপাতের সময় বজ্রপাতে বস্তির গ্যাস রাইজারে আগুন ধরে যায়। এতে মুহূর্তের মধ্যেই কলোনিতে আগুন ছড়িয়ে পড়লে ঘুমন্ত অবস্থায় মা-ছেলেসহ পাঁচজন মারা যান। এ ঘটনায় আহত হন আরো একজন। নিহতদের মধ্যে একজন নারী অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

অগ্নিকাণ্ডে নিহতরা হলেন, সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার পনাইরচক গ্রামের মছকন্দর আলীর স্ত্রী সেবু বেগম (৪০), দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার খালেরমুখ গ্রামের ফজলু মিয়ার স্ত্রী তাসলিমা বেগম (২৫), তার শিশু সন্তান তাহসিন (২), গোলাপগঞ্জের দক্ষিণ নোয়াই গ্রামের সেবুল মিয়া (১৬) ও অজ্ঞাত এক কিশোর (১৫)।

এ ঘটনায় নিহত সেবু বেগমের স্বামী গোলাপগঞ্জ উপজেলার পনাইরচক গ্রামের মছকন্দর আলী গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

আনিস চৌধুরী আরও জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সিলেট দক্ষিণ ও সিলেট সদরের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে ১ ঘণ্টা পাঁচ মিনিট চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে। এতে আগুনে পুড়ে ২ লাখ টাকার ক্ষতি ও অর্ধকোটি টাকার সম্পত্তি রক্ষা করা সম্ভব হয় বলে জানান তিনি।

 

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছাত্রকে এসিড নিক্ষেপ
                                  

জামালপুর  প্রতিনিধি : জামালপুর পৌরসভার রশিদপুর গ্রামে প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক কলেজছাত্রকে এসিড মেরেছে এক ছাত্রী। আহত ওই ছাত্রের নাম মাহমুদুল হাসান মারুফ (১৭)। এসিডে তার মুখমণ্ডল ও কাঁধ ঝলসে গেছে।

শুক্রবার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ওই ছাত্রী ভাবনা আক্তার রিয়া ও তার মা হাসি বেগম সুজেদাকে আটক করেছে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, রশিদপুর গ্রামের আহত মাহমুদুল হাসান মারুফ জামালপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ইলেকট্রনিকস টেকনোলজির প্রথম বর্ষের ছাত্র। একই গ্রামের বাসিন্দা ও ঝাউগড়া বঙ্গবন্ধু কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী ভাবনা আক্তার রিয়া মাহমুদুল হাসান মারুফকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু মারুফ সেটাতে সাড়া দেয়নি।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মারুফ তার বন্ধু সাইফুলকে নিয়ে রিয়ার বাড়ির সামনে দিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় রিয়া মারুফকে বাড়ির ভেতরে বৈদ্যুতিক লাইনের ত্রুটি ঠিক করে দিতে বলে। মারুফ দিনের বেলা এসে ঠিক করে দেবে বলে চলে যাচ্ছিল। এ সময় আকস্মিক মারুফের মুখে এসিড ছুড়ে মারে রিয়া। এরপর মারুফ চিত্কার দিয়ে দৌড়ে রশিদপুর বাজারে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় জামালপুর সদর থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে রিয়া ও তার মা হাসি বেগম সুজেদাকে রশিদপুরের বাড়ি থেকে আটক করেছে। এ ঘটনায় মারুফের বাবা দুদু মিয়া বাদী হয়ে জামালপুর সদর থানায় মামলা করেছেন।

এসিডদগ্ধ মারুফ বলে, ‘রিয়া আমাকে ঘরে যেতে বললে আমি যাইনি। এ সময় রিয়া দরজা থেকে আমার মুখের দিকে কী যেন ছুড়ে মাড়ে। আমি সাথে সাথে চিত্কার দিয়ে দৌড় দিই। রিয়ার সাথে আমার কোনো প্রেমের সম্পর্ক নেই। রিয়াই আমাকে মাঝেমধ্যে ফোন করে প্রেমের প্রস্তাব দিত। আমি রাজি হয়নি। ঘটনার সময় ওই বাড়ির একটি কক্ষে কিছু লোকজনের কথা শুনেছি।’

তবে কলেজছাত্রী রিয়া বলে, ‘আমি মারুফকে চিনি না। ওর সাথে আমার কোনো সম্পর্কও নেই। যে সময়ের কথা বলছে আমি আর আমার মা তখন বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলাম। আমি তাকে এসিড মারিনি। তারা মিথ্যা অভিযোগ করে আমাদের ফাঁসাচ্ছে।’

জামালপুর সদর থানার ওসি মো. নাছিমুল ইসলাম বলেন, আটক রিয়া ও তার মাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে সোপর্দ করা হবে। ঘটনাটি তদন্ত করে জড়িতদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

 

কাভার্ড ভ্যানের পেছনে বাসের ধাক্কা, নিহত ২
                                  

চট্টগ্রাম  প্রতিনিধি : ঢাকা-চট্টগ্রাম মহসড়কের সীতাকুন্ডে যাত্রীবাহী একটি বাস ও কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে অজ্ঞাত দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত আরও ১৬ জন।

শুক্রবার ভোর ৪টার দিকে মহসড়কের সুনতানা মন্দির এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

কুমিরা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. মাসুদ আলম বলেন, ‘ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ইয়ার-৭১ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস চট্টগ্রামগামী একটি কাভার্ডভ্যানকে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘঁটনাস্থলেই দুই অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হন। আহত ১৫ জনকে সীতাকুন্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। গুরুতর আহত একজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নিহত দুইজনের পরিচয় জানা যায়নি। ঘটনার পরপরই নিহতদের ছবি একাত্তর মিডিয়া অফিসে পাঠানো হলে তারা জানিয়েছে এদের মধ্যে গাড়ির ড্রাইভার বা হেলপার নেই। সঙ্গত কারনেই প্রশ্ন থাকে, তাহলে কী গাড়িটির বনেটে যাত্রী নেয়া হয়েছিল?। কেননা ওই দুইজন বাসের সামনের দিকে পিষ্ট হন।’

 

৩৯ তম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলায় সেরা প্রোজেক্ট ‘টিম রোবোসিক্স’-এর
                                  

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের উত্তরা ভবন প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ৩ দিনব্যাপী ৩৯তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ। উক্ত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহে অংশ নিয়েছিল শহরের ডজনখানেক স্কুল-কলেজ মিলিয়ে তিন ডজন স্টল।

আজ ছিল উক্ত আয়োজনের সমাপনী দিন। শেষ দিনে তাই মেলায় ছিলো উপচে পড়া ভিড়। সকল বয়সী মানুষের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছিল মেলা প্রাঙ্গণ।

আজকের সমাপণী ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঠাকুরগাঁওয়ের নবাগত জেলা প্রশাসক মো. আক্তারুজ্জামান, ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শ্রীমন্ত কুমার সেন প্রমুখ।

উক্ত বিজ্ঞান মেলায় প্রোজেক্টভিত্তিক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান আইটি ও গণিত ক্লাবের ‘টিম রোবোসিক্স’। সেরা নির্বাচিত হওয়া প্রোজেক্টটির নাম “E-Assistant For Dumb and Deaf People.” প্রোজেক্টটির উদ্ভাবক: এইচ. এম. ইবতিহাল উৎস (দলনেতা), শামসুল আলম আকাশ, মাহাদি জুবায়ের এবং নাহিয়ান আব্দুল্লাহ।

প্রোজেক্টটি কিসের উপর ভিত্তি করে তৈরি: প্রোজেক্টটি যেসকল মানুষ বাক-প্রতিবন্ধী,মূলত তাদের উদ্দেশ্যে উদ্ধাবন করা হয়েছে। আমরা জানি যে, বাক-প্রতিবন্ধীরা কথা বলতে না পারায়, ‘সাইন ল্যাংগুয়েজ’ ব্যাবহার করে, মনের ভাব প্রকাশ করে। কিন্তু, এই ‘সাইন ল্যাংগুয়েজ’ টি জনসাধারণ বুঝতে পারে না। এজন্য বাক-প্রতিবন্ধীরা অপর এক সাধারণ মানুষের সাথে কথোপকথন করতে পারে না, মনেরভাব প্রকাশ করতে পারে না। এই প্রোজেক্টটি বাক-প্রতিবন্ধীদের এই সাইন ল্যাংগুয়েজ যেন জন-সাধারণ বুঝতে পারে, এজন্য বানানো হয়েছে।

প্রোজেক্টটির সংক্ষিপ্ত বর্ণনা: কোনো বাক-প্রতিবন্ধী যখন তার মনের ভাব প্রকাশের জন্য তার হাত ব্যবহার করে বিভিন্ন সাইন দেখাবে, তখন সেই সাইনটি প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে কনভার্ট হয়ে “Voice and Text” এ রূপান্তর হবে এবং সেই সাইন এর ভিত্তিতে তার বলতে চাওয়া কথাটি আউটপুট হবে, সাউন্ড এর মাধ্যমে এবং সাউন্ড আউটপুট এর পাশাপাশি একটি টেক্সট ও আউটপুট হবে।

উপকারিতা: এই প্রোজেক্টটির মাধ্যমে ,বাক-প্রতিবন্ধীরা খুব সহজেই তার মনের ভাব প্রকাশ করতে পারবে এবং জনসাধারণ খুব সহজেই বাক-প্রতিবন্ধীর সেই মনের ভাবটা বুঝতে পারবে।

সাংবাদিক নির্যাতনের প্রমাণ মিলেছে, ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ
                                  

বরিশাল  প্রতিনিধি  : বরিশালে ডিবিসি টেলিভিশনের ক্যামেরা পারসন সুমন হাসানকে নির্যাতনের ঘটনায় মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের আট সদস্যের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি।

সাংবাদিক সুমন হাসানকে নির্যাতনের ঘটনার প্রমাণ পাওয়ায় বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ে জমা দেয়া তদন্ত প্রতিবেদনে এ সুপারিশ করা হয়।

অভিযুক্তরা হলেন- মহানগর (ডিবি) পুলিশের এসআই আবুল বাশার, এএসআই স্বপন ও আক্তার এবং কনস্টেবল মাসুদুল হক, রাসেল, হাসান, রহিম ও সাইফুল।

তদন্ত কমিটির এক সদস্য জানান, ডিবিসি টেলিভিশনের ক্যামেরা পারসন সুমন হাসান, অভিযুক্ত ৮ পুুলিশ সদস্য, প্রতক্ষদর্শীসহ ২০ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়। তদন্তে ৮ পুুলিশ সদস্যের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। প্রতিবেদনে ৮ পুুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার পাশাপাশি ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ডিবিসির নির্যাতিত ক্যামেরাপারসন সুমন হাসান জানান, মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে অফিস থেকে বাসায় যাওয়ার পথে এক নিকটাত্মীয়কে গোয়েন্দা পুলিশে আটকের খবর পেয়ে তিনি নগরীর বিউটি রোডের ঘটনাস্থলে যান এবং পুলিশের কাছে পুরো বিষয়টি জানতে চান।

এ সময় যাদের আটক করা হয়েছে তাদের সঙ্গে তার বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে গোয়েন্দা পুলিশ তার পরিচয় জানতে চায়। সাংবাদিক পরিচয় পেয়েই তার ওপর চড়াও হয় গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা।

এ সময় প্রকাশ্যে তার পরনে থাকা টি-শার্ট টেনেহিঁচড়ে এবং পেটাতে পেটাতে তাকে গোয়েন্দা পুলিশের গাড়িতে তোলা হয়। পথিমধ্যে তার অন্ডকোষ চেপে ধরাসহ অমানুষিক নির্যাতন করা হয়। এছাড়া সাংবাদিক ও তাদের পরিবার নিয়েও নানা অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল করা হয়।

 

খবর পেয়ে তার সহকর্মীরা নগরীর পলিটেকনিক রোডে নগর গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে যায়। সেখানে নির্যাতিত সাংবাদিক সুমনকে হাতকড়া পরিহিত অবস্থায় কাঁদতে দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন অন্যান্য সাংবাদিকরা।

এ সময় সাংবাদিক সুমনকে নির্যাতনকারী প্রধান অভিযুক্ত কনস্টেবল মাসুদুল হক একজন সাংবাদিককে লাথি দেয়। এতে সাংবাদিকরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। সাংবাদিকরা প্রতিবাদ মুখর হলে মহানগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ওই দলে থাকা গোয়েন্দা পুলিশের ৮ সদস্যকে তাৎক্ষণিক পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়। ঘটনা তদন্তে গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রুনা লায়লার নেতৃত্বে ৩ সদস্যের একটি কমিটি করা হয়।

 

নেত্রকোনায় ইউপি সচিবসহ ৪ জন কারাগারে
                                  

নেত্রকোনা  প্রতিনিধি : নেত্রকোনা সদর উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এক পরিবারের ওপর হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় ইউপি সচিবসহ চারজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

কারাগারে পাঠানো ব্যক্তিরা হলেন, কারলী গ্রামের খলিলুর রহমান, হাবিবুর রহমান, রতিনুর রহমান ও নেত্রকোনা সদরের কালিয়ারা-গাবরাগাতী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব জলিলুর রহমান।

উপজেলার চল্লিশা বাজারে মঙ্গলবার মধ্যরাতের এ ঘটনায় তিনজন আহত হন। আহতরা হলেন, শ্যামলাল রবি দাস (৬০), মালতি রবি দাস (৫০) ও কমলি রবি দাস (৫৫)।

পুলিশ সূত্র জানায়, সদর উপজেলার চল্লিশা বাজারের শ্যামলাল রবি দাসের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবেশী কারলী গ্রামের প্রভাবশালী খলিলুর রহমানের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে ১৫-২০ জন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শ্যামলালে বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ সময় বাধা দিতে গেলে শ্যামলালসহ তিনজন গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরে স্থানীয় চল্লিশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার ফকির বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশকে খবর দেন। ওই রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে চারজনকে গ্রেফাতার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় শ্যামলালের ছেলে শিপন রবি দাস বাদী হয়ে বুধবার চারজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত সংখ্যক আসামি করে নেত্রকোনা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

নেত্রকোনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বোরহান উদ্দিন জানান, আটক হওয়া চারজনকে গ্রেফতার দেখিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় আদালতে পাঠানো হলে আদালত তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

 

পুলিশী বাধা উপেক্ষা করে রাজশাহী জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ
                                  

রাজশাহী  প্রতিনিধি : ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সহ সভাপতি ও তেজগাঁও থানা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন মিলনকে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হত্যা করায় এবং চট্টগ্রাম উত্তর জেলাধীন হাটহাজারী পৌর ছাত্রদল নেতা সোহেল রানা ও বরগুনার পাথরঘাটা পৌর ছাত্রদলের ৫নং ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামানকে সরকারের পৃষ্টপোষকতায় ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা নির্মম ভাবে হত্যা করায় এবং হত্যাকান্ডে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আজ পুলিশী বাধা সত্বেও রাজশাহী জেলা ও মহানগর ছাত্রদল আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে আমরা রাজশাহী জেলা ও মহানগর ছাত্রদল। উক্ত প্রোগ্রামে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সংগ্রামী সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি, পরিচালনা করেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আকবর আলী জ্যাকি এবং উক্ত প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা ছাত্রদলের সংগ্রামী ও সম্মানীত সভাপতি ও জেলা বিএনপি সহ- ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম টুটুল, সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম জনি ও মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি শাহরিয়ার আমিন বিপুল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফায়সাল সরকার ডিকো, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরেফিন কনক ও মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাহিন আহম্মেদ, রাজশাহী জেলা ছাত্রদলের অন্যতম ছাত্রনেতা শামীম সরকার,কুসুম, জাকিরুল ইসলাম, হিমু আহমেদ সহ জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের ছাত্রদলের নেতাকর্মীবৃন্দ

মাদরাসা শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে
                                  

মাগুরা প্রতিনিধি : প্রধানমন্ত্রী মাদরাসা শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে এর মান উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। মাদরাসা শিক্ষাকে একটি যুগোপযোগী শিক্ষা হিসেবে গড়ে তুলতে বাংলা-ইংরেজির পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষার প্রতিও জোর দিয়েছে সরকার। তাই মাদরাসার শিক্ষার্থীদের আধুনিক ও বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে।

মাগুরা সদর উপজেলার বানিয়াবহ মাদরাসার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বৃহস্পতিবার যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার একথা বলেন।

মাদরাসার প্রধান শিক্ষকের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, সমাজ সেবা কর্মকর্তা, জেলা ক্রীড়া অফিসার, অভিভাবকসহ বিপুল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

মিয়ানমারে ঢোকার পথে মাইন বিস্ফোরণে নিহত ১
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : বান্দরবানের আলীকদমের মিয়ানমার সীমান্তে স্থলমাইন বিস্ফোরণে পাওয়াই ম্রো (৪৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন নিহতের স্ত্রী ও ৪ ছেলে-মেয়ে।

বুধবার উপজেলার কুরুকপাতা ইউনিয়নের দুর্গম রালাই পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে তাদের উদ্ধার করে আজ বৃহস্পতিবার সকালে কুরুক পাতা সেনাবাহিনী ক্যাম্পে চিকিৎসা দেয়া হয়।

আহতরা হলেন, পাওয়াই ম্রোর স্ত্রী চংরে ম্রো (৩৫) ও তাদের শিশু সন্তান সিতু ম্রো (৯), ইয়া ইয়ং ম্রো (৫), তনকো ম্রো (৩) ও তংরুং ম্রো (২)।

বান্দরবান বিজিবির সেক্টর কমান্ডার কর্নেল ইকবাল হোসেন জানান, বাংলাদেশের সীমান্ত পেরিয়ে তারা মিয়ানমার চলে যাচ্ছিল। এই সময় সীমান্তে পুঁতে রাখা স্থলমাইন বিস্ফোরণে একজন নিহত হন এবং আহত হন চারজন। নিহত ও আহতরা একই পরিবারের সদস্য। আহতদের উদ্ধার করে কুরুকপাতা সেনাবাহিনী ক্যাম্পে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সেক্টর কমান্ডার আরো জানান, একটি দালাল চক্রের প্রলোভনে গোপনে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে মিয়ানমারে চলে যাওয়ার চেষ্টা করছে বেশ কিছু পরিবার।

 

ফরিদপুরে ইউএনও হলেন রংপুরের মোস্তফা মনোয়ার
                                  

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের মধুখালীতে  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেছেন রংপুর জেলার ব্যক্তিত্ব মো. মোস্তফা মনোয়ার । সোমবার (১২ মার্চ) যোগদান করেন তিনি ।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নব-নিযুক্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোস্তফা মনোয়ারকে নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. মনজুর হোসেনসহ উপজেলার সকল কর্মকর্তারা তাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান।

মো. মোস্তফা মনোয়ার নরসিংদীতে সহকারি কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে তিনি মধুখালীতে প্রথম যোগদান করলেন।

তিনি ৩০তম বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তা হিসেবে চাকুরীতে যোগদান করেছিলেন। তাঁর গ্রামের বাড়ি রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলায়। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে ইতিহাস বিভাগে অনার্স এবং মাস্টার্স শেষ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মধুখালী পৌরপিতা খন্দকার মোরশেদ রহমান লিমন, উপজেলা প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহম্মদ ইকবাল হাসান, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ইসমাইল হোসেন, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা কল্লোল সাহা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. সোহরাব হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

 

 
প্রতিবন্ধী শিশুকে স্কুল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক প্রতিবন্ধী শিশুকে বিদ্যালয় থেকে প্রধান শিক্ষক জোরপূর্বক বের করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সদর উপজেলার গোপিনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রের মা এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন। গত সোমবার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার করা ওই লিখিত অভিযোগে ছাত্রটিকে নৌকা থেকে ফেলি দিয়ে প্রণনাশের হুমকির কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার সাতবাড়িয়া এলাকার বোরহান উদ্দিনের ছেলে আবদুল্লাহ আল সিফাত গোপিনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র।

প্রতিবন্ধী এই শিশুটির মা বিলকিছ জাহান রিমি ওই বিদ্যালয়েরই সহকারী শিক্ষক। এ বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক্ষক আশীষ চন্দ্র দেব গত ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি যোগদানের পর থেকেই সিফাতের ওপর মানসিক নির্যাতন ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে। সিফাতকে তিনি ‘আবুইল্লা’ বলে ব্যঙ্গ করেন বলে অভিযোগে বলা হয়েছে।

অভিযোগে আরও বলা হয়, চলতি বছরের শুরুতে সিফাতের ওপর প্রধান শিক্ষক আশীষের নির্যাতনের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। গত ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি সহকারী শিক্ষিকা শিরিন আক্তারের ক্লাস চলাকালে শ্রেণিকক্ষে ঢুকে হাতে লেখার জন্য সিফাতকে কটাক্ষ করেন।

এরপর সিফাতকে ১৫ দিনের মধ্যে হাতে লেখা সুন্দর করার জন্য আল্টিমেটাম দিয়ে তাকে চতুর্থ শ্রেণিতে নামিয়ে দিতে বলেন। এ ঘটনার মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে সে। সিফাতের মা প্রধান শিক্ষক আশীষকে তার মানসিক ও শারীরিক অসুস্থতার কথা একাধিকবার জানিয়েছেন।

সর্বশেষ গত ৬ মার্চ প্রধান শিক্ষক আশীষ সহাকারী শিক্ষক শিরিন আক্তারের মাধ্যমে সিফাতের মাকে জানিয়ে দেন সে আর এই বিদ্যালয়ের পড়ালেখা করতে পারবে না। পরদিন সিফাতকে জোরপূর্বক বিদ্যালয় থেকে ছাড়পত্র দেন ওই প্রধান শিক্ষক।

তবে গোপিনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশীষ চন্দ্র দেব অভিযোগটি উদ্দেশ্যমূলক দাবি করে জাগো নিউজকে বলেন, আমি যদি ছয় বছর ধরে সিফাতকে নির্যাতন করে থাকি তাহলে এতদিন কেনো আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হলো না? হুট করে আমার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উদ্দেশ্যমূলক এবং ভিত্তিহীন। সিফাতের মা আমাদের বিদ্যালয় থেকে শহরে বদলি হয়ে যাবেন বলে আমাকে নিজেই বলেছেন সিফাতকে ছাড়পত্র দিতে।

তিনি আরও বলেন, সিফাতারে মা এখন লোকজন পাঠিয়ে আমাকে হাত-পায়ের রগ কেটে ফেলবেন বলে ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জান্নাতুল ফেরদৌস জাগো নিউজকে বলেন, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করার জন্য প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

বিমান বিধ্বস্ত : বেঁচে আছেন মুন্সীগঞ্জের ইয়াকুব
                                  

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি : নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হওয়া ইউএস-বাংলা বিমানের যাত্রী ছিলেন মুন্সীগঞ্জের ইয়াকুব আলী। বিমান দুর্ঘটনায় আহত হয়ে নেপালের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে বিমান দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পর থেকে ইয়াকুব আলীর পরিবার উৎকণ্ঠায় ছিলেন। এরই মধ্যে মঙ্গলবার তার পরিবার জানতে পারেন নেপালের একটি হাসপাতালের আইসিইউতে আছেন ইয়াকুব আলী।

ইয়াকুব আলী মুন্সীগঞ্জ টঙ্গীবাড়ি উপজেলার কামারখাড়া ইউনিয়নের বেশনাল গ্রামের ইউনুছ বেপারীর ছেলে। তিনি ৫ ভাই-বোনের মধ্যে বড়। প্রায় ৮ বছর আগে আঁখি আক্তারের সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

দাম্পত্য জীবনে তাদের ইয়ানুফ নামের সাত বছরের একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। স্ত্রী সন্তান নিয়ে ইয়াকুব ঢাকার মোহাম্মদপুরের আদাবর এলাকার প্রপাল হাউজিংয়ের ২ নম্বর রোড়ের ৪২/সি নম্বর বাসায় বসবাস করতেন।

ইয়াকুব আলী ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় কসমেটিকস’র ব্যবসা করতেন। ব্যবসার কাজে বিভিন্ন সময় মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশে যাতায়াত ছিল তার। সোমবার ব্যবসার কাজে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নেপালের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন তিনি।

আহত রিপনের বন্ধু মো. আক্তার জানান, নেপালে ইউএস-বাংলা বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামালের নেতৃত্বে মঙ্গলবার বেলা ১১টা ২১ মিনিটে বিমান বাংলাদেশের একটি ফ্লাইট স্বজনদের নিয়ে নেপালের কাঠমান্ডুতে যান। তাদের সেই দলটির সঙ্গে ইয়াকুব আলী রিপনের ছোট ভাই দীপু বেপারী ছিলেন।

ইয়াকুব আলী রিপনের ছোট ভাই শিপু বেপারী জানান, মঙ্গলবার আমার ভাই দীপু বেপারী সরকারি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে নেপাল যান। সেখান গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, আমাদের বড় ভাই ইয়াকুব আলী রিপন নেপালের কাঠমান্ডু এলাকার নরবিট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বর্তমানে ইয়াকুব আইসিইউতে আছেন। গতকাল থেকে আজ তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। তিনি শঙ্কামুক্ত।

উল্লেখ্য, ইউএস-বাংলা বিমানটি সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ছেড়ে যায়।

সোমবার (১২ মার্চ) বেলা ২টা ২০ মিনিটে পার্বত্য শহর কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিএস-২১১ ফ্লাইটটি বিধ্বস্ত হয়। বিমানটিতে চার ক্রুসহ মোট ৭১ জন আরোহী ছিলেন। এর মধ্যে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন।

 

 
বেঁচে আছেন রাগীব মেডিকেলের দুই শিক্ষার্থী
                                  

সিলেট প্রতিনিধি :  নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হওয়া ইউএস-বাংলা বিমানের যাত্রী ছিলেন সিলেটের জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজের ১৩ নেপালি শিক্ষার্থী। রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ থেকে প্রাপ্ত তালিকা ও ইউএস-বাংলার প্রকাশিত জীবিত যাত্রীদের তালিকা থেকে দুইজন শিক্ষার্থী জীবিত থাকার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল বিমান বিধ্বস্তে ১৩ নেপালি শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন।

সোমবার রাতে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফের দেয়া তথ্যে জীবিত ১৯ জন যাত্রীর মধ্যে প্রিন্সি ধামী ও সামিনা বেনজারখার নামে দুইজন শিক্ষার্থী নাম দেখা যায়।

 

জালালাবাদ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আবেদ হোসাইন বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত শিক্ষার্থীদের সহপাঠী ও নেপালে থাকা তাদের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে আমরা জানতে পেরেছি ১৩ জনের মধ্যে দু’জন শিক্ষার্থী বেঁচে আছেন। তবে তারা গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদেরকে নেপালের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কলেজের ছুটিতে নিজ দেশে বেড়াতে যাচ্ছিলেন ওই ১৩ শিক্ষার্থী। এরা হলেন- রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী সঞ্জয় পৌডেল, সঞ্জয়া মহারজন, নেগা মহারজন, অঞ্জলি শ্রেষ্ঠ, পূর্ণিমা লোহানি, শ্রেতা থাপা, মিলি মহারজন, শর্মা শ্রেষ্ঠ, আলজিরা বারাল, চুরু বারাল, শামিরা বেনজারখার, আশ্রা শখিয়া ও প্রিন্সি ধামী।

উল্লেখ্য, সোমবার ইউএস-বাংলার বিমানটি ঢাকা থেকে ৭১ জন আরোহী নিয়ে নেপালের উদ্দেশে যাত্রা করে। ওইদিন নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে ৪ ক্রু ও ৬৭ আরোহী নিয়ে বিমানটি কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়। এতে অন্তত ৫০ জনের প্রাণহানির তথ্য পাওয়া গেছে।

 

সাবেক সৈনিকলীগ নেতার বাড়িতে প্রেমিকার অনশন
                                  

সুনামগঞ্জ  প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সাবেক সভাপতির বাড়িতে স্ত্রীর স্বীকৃতি দাবিতে রোববার বিকেল থেকে অনশনে বসেছেন ওই এলাকার এক কলেজ ছাত্রী। এ ঘটনায় সৈনিক লীগের সাবেক সভাপতি ও নাট্যকর্মী নোমান হাসান খাঁনকে মধ্যরাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতার নোমান পৌর শহরের ওয়েজখালীর আলহাজ্ব মজিবুর রহমান খাঁনের ছেলে। কলেজ ছাত্রীর অনশনের খবর পেয়ে সন্ধ্যায় সদর মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলেও কোনো সুরাহা না হওয়ায় ওই কলেজ ছাত্রী নোমানের বিরুদ্ধে রাতেই থানায় মামলা করেন।

জানা গেছে, ইসলামগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খালেদা বেগমের সঙ্গে গত দু’বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন নোমান। এদিকে নোমান অন্যত্র বিয়ে করতে যাচ্ছেন শুনে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে খালেদা রোববার বিকেল থেকে নোমানের বাড়িতে গিয়ে অনশনে বসেন।

এ খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতাও ওই বাড়িতে ভিড় করেন। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পাড়ার মুরুব্বীদের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করে। কিন্তু নোমান ও তার পরিবারের লোকজন খালেদাকে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানালে খালেদা নোমানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেন।

কলেজ ছাত্রী খালেদা বেগম, নোমান বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আমাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। আমার জীবন নষ্ট করে এখন সে অন্যত্র বিয়ে করতে যাচ্ছে।

সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হাবীবুল্লাহ জুয়েল বলেন, ভিকটিম মামলা করায় নোমানকে রাতেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 


   Page 1 of 9
     বাংলাদেশ
আঙুল কাটলেন যুবলীগ নেতা : চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন এসপি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
এসব ডাক্তার থেকে সতর্ক থাকুন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বজ্রপাতে গ্যাস লাইনের আগুনই কাড়ল ৫ প্রাণ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছাত্রকে এসিড নিক্ষেপ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
কাভার্ড ভ্যানের পেছনে বাসের ধাক্কা, নিহত ২
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
৩৯ তম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলায় সেরা প্রোজেক্ট ‘টিম রোবোসিক্স’-এর
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সাংবাদিক নির্যাতনের প্রমাণ মিলেছে, ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নেত্রকোনায় ইউপি সচিবসহ ৪ জন কারাগারে
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পুলিশী বাধা উপেক্ষা করে রাজশাহী জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মাদরাসা শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মিয়ানমারে ঢোকার পথে মাইন বিস্ফোরণে নিহত ১
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ফরিদপুরে ইউএনও হলেন রংপুরের মোস্তফা মনোয়ার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রতিবন্ধী শিশুকে স্কুল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বিমান বিধ্বস্ত : বেঁচে আছেন মুন্সীগঞ্জের ইয়াকুব
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বেঁচে আছেন রাগীব মেডিকেলের দুই শিক্ষার্থী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সাবেক সৈনিকলীগ নেতার বাড়িতে প্রেমিকার অনশন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রাজশাহীতে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির আটক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বেড়েছে বখাটেদের উৎপাত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
কুড়িগ্রামে শিক্ষা মেলা উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জাতিসংঘে বাংলার দাবিতে ফেনীতে চলছে ভোট
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পলাশবাড়ীর সড়কে ফের ঝরল ৫ প্রাণ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দায়িত্ব গ্রহণ করলেন ঠাকুরগাঁওয়ের ২৮তম ডিসি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ৮ কিলোমিটার ‘ক্রাইম ফ্রি জোন’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সীমান্তে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ডিসির বিদায় বেলায় কান্নার রোল
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
চিফ হুইপকে হত্যাচেষ্টার সময় অস্ত্রসহ যুবক আটক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ’র সঙ্গে সংঘর্ষে ৩ পুলিশ আহত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বালিয়াডাঙ্গীতে পুকুরে ডুবে যাওয়া সেই ছাত্রীর মৃত্যু
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পঞ্চগড়ে নির্মাণাধীন পেট্রল পাম্পের ছাদ ধসে দুই শ্রমিক নিহত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
তিন জেলার সড়কে ঝরেছে ৪ প্রাণ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মাদক উদ্ধারের তথ্য গোপন, ৬ পুলিশ বরখাস্ত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে অগ্নিকাণ্ডে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
হাটহাজারীতে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাত্রদল নেতা নিহত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে শিশুদের মানববন্ধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে শিশুদের পার্কটি সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য মানববন্ধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
উড়োজাহাজে বাংলাদেশি তরুণের কাণ্ড নিয়ে হৈ চৈ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
৬ দফা দাবীতে ফুলবাড়ীতে মানব বন্ধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
চট্টগ্রামে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা বাবরের বাড়িতে গুলি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রংপুরে চোর সন্দেহে দুইজনকে পিটিয়ে হত্যা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে বিআইএস’র বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে গরু নিয়ে ঝগড়া করে গৃহবধূর আত্মহত্যা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে বিআইএস’র বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁও মাদক নিয়ন্ত্রণে সাংবাদিকদের সথে মত বিনিময়
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে মৌখিক ক্যান্সার ও ট্রমা রোগীদের চিকিৎসা সংক্রান্ত সার্জনদের সেমিনার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বালিয়াডাঙ্গীতে কৃষি বাতায়ন ও কৃষক বন্ধু ফোনের উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আধুনিক যন্ত্রপাতির মাধ্যমে সীমান্ত নিরাপত্তা শক্তিশালীকরণ শীর্ষক সেমিনার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
২০১৯ এর মার্চে ডাকসু নির্বাচন, প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাবি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে জেলা প্রশাসকের বদলি প্রত্যাহারের দাবিতে সড়ক অবরোধ, গাড়ি ভাংচুর
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......