বাংলাদেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ঠাকুরগাঁওয়ে তরুণদের উদ্দীপ্ত করতেই আলপনা

তানভীর হাসান তানু, ঠাকুরগাঁও: একুশের প্রভাতফেরিতে ভাষার গানটির সঙ্গে সঙ্গে আরো একটি বিষয় বর্তমানে অপরিহার্য হয়ে উঠেছে। সেটি হলো প্রভাতফেরির রাস্তায়, শহীদ মিনার চত্বরে, ‘আলপনা’ আঁকা থাকতেই হবে। আজ যত সহজ ও স্বাভাবিকভাবে শহীদ মিনার চত্বরে এবং সমাজ জীবনের যে কোন শুভ কাজে অনুষ্ঠান স্থলে ‘আলপনা’ আঁকা হয়। এর প্রতিষ্ঠায়ও রয়েছে সংগ্রামী ইতিহাস।

আর একুশের চেতনাকে ঠাকুরগাঁওয়ের মানুষের কাছে তুলে ধরতে দ্বিতীয়  বারের মত রাস্তায় রংয়ের তুলিতে আকাঁ আলপনা তুলে ধরেছে জেলা প্রশাসন। 

মঙ্গলবার সকালে ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ সংলগ্ন রাস্তায় আলপনা আকাঁ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল।

এ সময় তার সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত  জেলা প্রশাসক জহিরুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসলাম মোল্লা, প্রবীণ শিক্ষাবিদ মনতোষ ককুমার দে,জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক মাসুদুর রহমান বাবু, উদিচীর সভাপতি সেতারা বেগম,জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুরচিতা দেব, চিত্রশিল্পী ঠাকুরগাঁও বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কাদেমুল ইসলাম জাদু প্রমূখ।

প্রবীন শিক্ষাবিদ মনতোষ কুমার দে বলেন, ‘যাদের বিনিময়ে আমরা আজ বাংলা ভাষা এবং লাল সূর্য পেয়েছি। পরবর্তী প্রজন্মের কাছে আমরা একুশের চেতনাকে নিয়ে যেতে চাই। যেন তারা এটাকে হৃদয়ে ধারণ করতে পারে।’

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, মনের মাধুরি মিশিয়ে কল্পনার জগৎকে ফুটিয়ে তোলার আরেক নাম আলপনা। বাঙালির সকল প্রাণের উৎসবে মিশে আছে আলপনার রং। আর ২১ শে ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে আঁকা আলপনা আমাদের আরও বেশি করে ভাষার প্রতি, ভাষার জন্য আত্মত্যাগ কারীদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ব্যক্ত করে। শহীদ মিনারের বেদিতে লাল নীল সাদা, হলুদ নানা রঙের বর্ণীল আলপনা আমাদের সব বয়সের মানুষকে একুশের চেতনায় উদ্বিপ্ত করে। চারুশিল্পীরা কেউ দেখেনি গৌরবের সেই ভাষা আন্দোলন, তারপরও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে একুশের আয়োজনের অংশ হতে পেরে গর্বিত নতুন প্রজন্মেরা। একুশ মানে ভাষা শহীদদের হারানোর শোক, একই সাথে একুশ মানে মাতৃভাষাকে অর্জনের গৌরব। এই শোক আর প্রাপ্তির গৌরবকে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করে নিতে প্রস্তুত হচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ চত্বর ও আশপাশ।

উল্লেখ্য, একুশের প্রভাতফেরি খালি পায়ে-হেঁটে শহীদ মিনারে এবং ভাষা শহীদদের কবর-আজিমপুর কবরস্থানে ফুলের অর্ঘ্য নিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর সংস্কৃতি শুরু হয়েছিল ভাষা আন্দোলন ১৯৫২ সালের পর থেকেই। ১৯৫৩ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি ঢাকায় ছাত্র-জনতা রাজনীতিবিদরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে দলে দলে শহীদ মিনারে ও কবরস্থানে শ্রদ্ধা জানাতে সমবেত হতে শুরু করল। সেই যে শুরুÑতার ধারাবাহিকতা আজো চলছেÑ যতদিন বাংলাদেশ থাকবে এই প্রভাতফেরির সংস্কৃতি আবহমানকাল ধরে চলতে থাকবে। ১৯৫৩ সালে শহীদ মিনার ছিল ছাত্র জনতার হাতে তৈরি। সেই সময়ের মুসলিম লীগ সরকার বার বার এই শহীদ মিনার ভেঙ্গে দিয়েছে। ছাত্ররা সঙ্গে সঙ্গেই শত বাধার মুখেই আবার গড়ে তুলেছে শহীদ মিনার। প্রভাতফেরি প্রথমে মৌন মিছিল রূপে থাকলেও পরে আর মৌন মিছিল থাকেনি। স্বতঃস্ফূর্তভাবেই খালি পায়ে হাঁটতে হাঁটতে কণ্ঠে চলে আসত জাগরণের গান, ভাষার গান, বিদ্রোহের গান। যেমনÑওরা আমার মুখের কথা কাইড়া নিতে চায়। ওরে ও বাঙালী, ঢাকার শহর রক্তে ভাসাইলি, আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি, মোদের গরব মোদের আশা, আ মরি বাংলা ভাষা, চল্ চল চল উর্ধ্ব গগনে বাজে মাদল এবং আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কী ভুলিতে পারি এমনি অনেক গান।

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানটি প্রথমে গাওয়া হতো শিল্পী আবদুল লতিফের সুরে। বেশ কয়েক বছর পর এই গানে নতুন করে সুর দেন শিল্পী আলতাফ মাহমুদ। নতুন সুর মানুষের ভাল লেগে যায়। বর্তমানে প্রতিষ্ঠিত সুরটিই আলতাফ মাহমুদের অসাধারণ সৃষ্টি। তারুণ্যের আবেগ ও বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা দেয়ার সংগ্রামী দ্রোহ নিয়ে আবদুল গাফফার চৌধুরী রচনা করেছিলেন এই গানের চরনগুলো। প্রতিটি চরণেই আছে মানুষকে জাগিয়ে তোলার প্রেরণা। মাতৃভাষার প্রতি ভালবাসার আবেগ ও ভাষা শহীদদের অবদানের প্রতি শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা।

 

 
ঠাকুরগাঁওয়ে তরুণদের উদ্দীপ্ত করতেই আলপনা
                                  

তানভীর হাসান তানু, ঠাকুরগাঁও: একুশের প্রভাতফেরিতে ভাষার গানটির সঙ্গে সঙ্গে আরো একটি বিষয় বর্তমানে অপরিহার্য হয়ে উঠেছে। সেটি হলো প্রভাতফেরির রাস্তায়, শহীদ মিনার চত্বরে, ‘আলপনা’ আঁকা থাকতেই হবে। আজ যত সহজ ও স্বাভাবিকভাবে শহীদ মিনার চত্বরে এবং সমাজ জীবনের যে কোন শুভ কাজে অনুষ্ঠান স্থলে ‘আলপনা’ আঁকা হয়। এর প্রতিষ্ঠায়ও রয়েছে সংগ্রামী ইতিহাস।

আর একুশের চেতনাকে ঠাকুরগাঁওয়ের মানুষের কাছে তুলে ধরতে দ্বিতীয়  বারের মত রাস্তায় রংয়ের তুলিতে আকাঁ আলপনা তুলে ধরেছে জেলা প্রশাসন। 

মঙ্গলবার সকালে ঠাকুরগাঁও সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ সংলগ্ন রাস্তায় আলপনা আকাঁ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল।

এ সময় তার সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত  জেলা প্রশাসক জহিরুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসলাম মোল্লা, প্রবীণ শিক্ষাবিদ মনতোষ ককুমার দে,জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক মাসুদুর রহমান বাবু, উদিচীর সভাপতি সেতারা বেগম,জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুরচিতা দেব, চিত্রশিল্পী ঠাকুরগাঁও বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কাদেমুল ইসলাম জাদু প্রমূখ।

প্রবীন শিক্ষাবিদ মনতোষ কুমার দে বলেন, ‘যাদের বিনিময়ে আমরা আজ বাংলা ভাষা এবং লাল সূর্য পেয়েছি। পরবর্তী প্রজন্মের কাছে আমরা একুশের চেতনাকে নিয়ে যেতে চাই। যেন তারা এটাকে হৃদয়ে ধারণ করতে পারে।’

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, মনের মাধুরি মিশিয়ে কল্পনার জগৎকে ফুটিয়ে তোলার আরেক নাম আলপনা। বাঙালির সকল প্রাণের উৎসবে মিশে আছে আলপনার রং। আর ২১ শে ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে আঁকা আলপনা আমাদের আরও বেশি করে ভাষার প্রতি, ভাষার জন্য আত্মত্যাগ কারীদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ব্যক্ত করে। শহীদ মিনারের বেদিতে লাল নীল সাদা, হলুদ নানা রঙের বর্ণীল আলপনা আমাদের সব বয়সের মানুষকে একুশের চেতনায় উদ্বিপ্ত করে। চারুশিল্পীরা কেউ দেখেনি গৌরবের সেই ভাষা আন্দোলন, তারপরও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে একুশের আয়োজনের অংশ হতে পেরে গর্বিত নতুন প্রজন্মেরা। একুশ মানে ভাষা শহীদদের হারানোর শোক, একই সাথে একুশ মানে মাতৃভাষাকে অর্জনের গৌরব। এই শোক আর প্রাপ্তির গৌরবকে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করে নিতে প্রস্তুত হচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ চত্বর ও আশপাশ।

উল্লেখ্য, একুশের প্রভাতফেরি খালি পায়ে-হেঁটে শহীদ মিনারে এবং ভাষা শহীদদের কবর-আজিমপুর কবরস্থানে ফুলের অর্ঘ্য নিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর সংস্কৃতি শুরু হয়েছিল ভাষা আন্দোলন ১৯৫২ সালের পর থেকেই। ১৯৫৩ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি ঢাকায় ছাত্র-জনতা রাজনীতিবিদরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে দলে দলে শহীদ মিনারে ও কবরস্থানে শ্রদ্ধা জানাতে সমবেত হতে শুরু করল। সেই যে শুরুÑতার ধারাবাহিকতা আজো চলছেÑ যতদিন বাংলাদেশ থাকবে এই প্রভাতফেরির সংস্কৃতি আবহমানকাল ধরে চলতে থাকবে। ১৯৫৩ সালে শহীদ মিনার ছিল ছাত্র জনতার হাতে তৈরি। সেই সময়ের মুসলিম লীগ সরকার বার বার এই শহীদ মিনার ভেঙ্গে দিয়েছে। ছাত্ররা সঙ্গে সঙ্গেই শত বাধার মুখেই আবার গড়ে তুলেছে শহীদ মিনার। প্রভাতফেরি প্রথমে মৌন মিছিল রূপে থাকলেও পরে আর মৌন মিছিল থাকেনি। স্বতঃস্ফূর্তভাবেই খালি পায়ে হাঁটতে হাঁটতে কণ্ঠে চলে আসত জাগরণের গান, ভাষার গান, বিদ্রোহের গান। যেমনÑওরা আমার মুখের কথা কাইড়া নিতে চায়। ওরে ও বাঙালী, ঢাকার শহর রক্তে ভাসাইলি, আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি, মোদের গরব মোদের আশা, আ মরি বাংলা ভাষা, চল্ চল চল উর্ধ্ব গগনে বাজে মাদল এবং আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কী ভুলিতে পারি এমনি অনেক গান।

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানটি প্রথমে গাওয়া হতো শিল্পী আবদুল লতিফের সুরে। বেশ কয়েক বছর পর এই গানে নতুন করে সুর দেন শিল্পী আলতাফ মাহমুদ। নতুন সুর মানুষের ভাল লেগে যায়। বর্তমানে প্রতিষ্ঠিত সুরটিই আলতাফ মাহমুদের অসাধারণ সৃষ্টি। তারুণ্যের আবেগ ও বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা দেয়ার সংগ্রামী দ্রোহ নিয়ে আবদুল গাফফার চৌধুরী রচনা করেছিলেন এই গানের চরনগুলো। প্রতিটি চরণেই আছে মানুষকে জাগিয়ে তোলার প্রেরণা। মাতৃভাষার প্রতি ভালবাসার আবেগ ও ভাষা শহীদদের অবদানের প্রতি শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা।

 

 
হবিগঞ্জে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৩০
                                  

হবিগঞ্জ  জেলা প্রতিনিধি : হবিগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় পুলিশের ছোড়া গুলিতে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন।

সংঘর্ষের সময় পুলিশের লাঠিচার্জে আহত হয়েছেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জি কে গউছ। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় শহরের শায়েস্তানগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে, পুলিশি নির্যাতন ও গ্রেফতার আতঙ্কে গুলিবিদ্ধ বিএনপি নেতাকর্মীরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যেতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতারা।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জি কে গউছ জানান, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সকালে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করতে নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে জড়ো হয়।

শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা কার্যালয়ে আসেন। কোনো উত্তেজনা বা উসকানি ছিল না। মঙ্গলবার নেতাকর্মীরা যখন দলীয় কার্যালয়ে জড়ো হচ্ছিলেন তখনই হঠাৎ পুলিশ আক্রমণ চালায়। সেই সঙ্গে নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত গুলি ছোড়ে।

এতে অন্তত ২০০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তাদের বেশিরভাগই গুলিবিদ্ধ। এখন চিকিৎসা নেয়ারও সুযোগ দিচ্ছে না পুলিশ। নেতাকর্মীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে। হামলার সময় এক পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে ক্রসফায়ারের হুমকি দিয়েছেন, আমার গায়ে হাত তুলেছেন বলে জানান পৌর মেয়র জি কে গউছ।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়াছিনুল হক জানান, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জি কে গউছের নেতৃত্বে একটি মিছিল আসে। তারা এসেই পুলিশকে ধাক্কা দেয় এবং উদ্ধত আচরণ করে।

তখন পুলিশের পক্ষ থেকে বার বার রাস্তায় না আসতে বলা হয়। কিন্তু তারা শুনেনি। দলবল নিয়ে রাস্তা এসে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে ৫৪ রাউন্ড ফাঁকা রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের হামলায় এসআই মুসলেহ উদ্দিনসহ ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ করার জন্য সকালে শহরের শায়েস্তানগর এলাকায় বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে নেতাকর্মীরা জড়ো হয়।

সকাল ১১টায় নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয় থেকে বের হতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের বাক-বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ। এ সময় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জি কে গউছকে লাঞ্ছিত করা হয়। পরে তাকে আটক করে টেনেহেঁচড়ে নিয়ে গেলেও পরে ছেড়ে দেয়।

আহতদের মধ্যে জেলা যুবদল সাধারণ সম্পাদক মিয়া মো. ইলিয়াছ, ছাত্রদল সভাপতি এমদাদু হক ইমরান, সহ-সভাপতি জিল্লুর রহমান, নুরুল হক, ইছা মিয়া, বাদশা মিয়া, আলী, আল আমিন, রাসেল, শাওন, সৈয়দ আশরাফ, মাহবুব, মুর্শেদ আলম সাজন, মোশাহিদ, খালেদ, হান্নান, জিবলু, জুয়েল ও এমরানের পরিচয় পাওয়া গেছে।

 

 

ফরিদপুরে বিএনপির মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ
                                  

ফরিদপুর প্রতিনিধি :  ফরিদপুরে বিএনপির মিছিলে বাধা দিয়ে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এতে সাংবাদিকসহ অর্ধশত নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে শহরের সুপার মার্কেটের সামনে মুজিব সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জেলা বিএনপির উদ্যোগে এ বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করা হয়।

আহত সাংবাদিকরা হলেন- কালেরকণ্ঠের ফরিদপুর প্রতিনিধি নির্মলেন্দু চক্রবর্তী শংকর ও নয়াদিগন্তের হারুন আনসারী রুদ্র। সমাবেশ স্থল থেকে জেলা স্বেচ্ছসেবক দলের আহ্বায়ক জুলফিকার হোসেন জুয়েলসহ বেশকয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।

 

মিছিলে বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ উপস্থিত ছিলেন। পুলিশের লাঠিপেটায় সমাবেশটি ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে তিনি একটি দোকানে অবস্থান নেন।

পরে শ্যামা ওবায়েদ সাংবাদিকদের বলেন, আমরা ফরিদপুরে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালনকালে পুলিশ হঠাৎ করে আমাদের ওপর লাঠিচার্জ করে ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এতে আমাদের অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। অনেক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। আমি এর নিন্দা জানাই।

কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিম উদ্দিন জানান, বিএনপির মিছিল থেকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠিচার্জ করে। এ সময় কয়েকজনকে আটক করা হয়।

 

ঠাকুরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যু
                                  

ঠাকুরগাঁওয় প্রতিনিধি :  ঠাকুরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় তহুরা বেগম (৫০) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। সোমবার সকাল ৮টার দিকে সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত তহুরা বেগম বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার রুপগঞ্জ গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা থেকে ছেড়ে আসা একটি থ্রি হুইলার সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে পৌঁছালে এক বাই সাইকেলের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এ সময় থ্রি হুলাইলারটি উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই থ্রি হুইলারের এক যাত্রী নিহত হন। সাইকেল আরোহীসহ আহত হন আরও তিনজন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার এসআই খায়রুল কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

 

খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজশাহী জেলা ও মহানগর বিএনপির জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান..
                                  

রাজশাহী  প্রতিনিধি : বেগম খালেদা জিয়া`র বিরুদ্ধে রায় বাতিল ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে রাজশাহী বিএনপি। রোববার দুপুরে জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দ পৃথক স্মারকলিপি দেয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে প্রথমে জেলা বিএনপি/যুবদল/ছাত্রদল ও মহানগর বিএনপি/যুবদল/ছাত্রদল নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে কোর্ট শহীদ মিনার চত্বরে জড়ো হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক এমপি মিজানুর রহমান মিনু, নগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন এবং জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন জাতীয় নির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য , বার বার জনপ্রতিনিধি উত্তরবঙ্গের জনপ্রিয় জননেতা আবু সাইদ চাঁদ,জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল গফুর ও জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুহাম্মদ মহসিন। এ সময় জেলা ও নগর বিএনপির নেতৃবৃন্দ ছাড়াও জেলা যুবদলের সভাপতি সুমন জামানী ,সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সমাপ্ত,সিনিয়র সহ সভাপতি নাসিরুদ্দিন বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার রহমান ভুট্টো এবং মহানগর যুবদলের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইট, সাধারণ সম্পাদক মাহ্ফুজুর রহমান রিটন ও কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়ালিউজ্জামান পরাগ , রাজশাহী জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রেজাউল করিম টুটুল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফায়সাল সরকার ডিকো,সহ সভাপতি নেফাউর রহমান সুমন,সজীব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরেফিন কনক জেলা ছাত্রদল নেতা শামীম সরকার সহ জেলা ছাত্রদলের আরো অনেকেই এবং সেই সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি এবং রফিকুল ইসলাম রবি সহ অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপি দেয়ার পূর্ব মুহূর্তে পুলিশী বাধার কারনে পরবর্তীতে কয়েকজন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে স্মারকলিপি দেন। স্মারকলিপি গ্রহন করেন জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ। জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে স্মারকলিপি দেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুল গফুর ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুহাম্মদ মহসিন এবং মহানগর বিএনপির পক্ষ স্মারকলিপি দেন মহানগর বিএনপির সভাপতি ও মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এবং সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন ।

 

 

লক্ষ্মীপুরে বিএনপির গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালিত
                                  

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :  খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে লক্ষ্মীপুরে পৃথকভাবে বিএনপির গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালিত হয়েছে। শনিবার সকালে শহরের উত্তর তেমুহনীর এলাকায় কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সমাজকল্যাণ সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাহাবুদ্দিন সাবুর নেতৃত্বে বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদলসহ অঙ্গসংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা গণস্বাক্ষরে অংশ নেন। 

এসময় বক্তব্য রাখেন, বিএনপি নেতা ছায়েদুর রহমান ছুট্টু, হারুনুর রশিদ ব্যাপারী, হাসিবুর রহমান, যুবদল  নেতা রেজাউল করিম লিটন, খালেদ মোহাম্মদ আলী কিরন, সৌরভ হোসেন ভূলু, শামছুল আহসান মামুন প্রমুখ।

এদিকে জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে বিএনপি`র অপর একটি অংশ একই কর্মসূচি পালন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা সদস্য অ্যাডভোকেট সৈয়দ শাসছুল ইসলাম, বিএনপি নেতা সিরাজুল ইসলাম, নিজাম উদ্দিন ভূইঁয়া, যুবদল নেতা সৈয়দ রশিদুল হাসান লিংকন, ছাত্রদল নেতা হারুনুর রশিদ, মাহবুবুর রহমান মামুন প্রমুখ।

 

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিলেটে বিএনপির গণস্বাক্ষর
                                  

সিলেট প্রতিনিধি : বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিলেটে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালিত হয়েছে। শনিবার সকাল ১১টায় সিলেট নগরীর বন্দরবাজারস্থ মধুবন মার্কেটের সামনে জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে এ কর্মসূচি শুরু হয়। 

গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্ঠা এম এ হক, সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক দিলদার হোসেন সেলিম, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত সাদেক প্রমুখ। 

এদিকে, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে `অহিংস পদযাত্রা` কর্মসূচি পালন করেছে স্বেচ্ছাসেবক ও ছাত্রদল। 

শনিবার দুপুর ২টার দিকে হযরত শাহজালাল (রহ.) এর দরগাহ এলাকা থেকে পদযাত্রাটি শুরু হয়ে কোর্ট পয়েন্টে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান জামান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক আজমল হোসেন রায়হান, মওদুদুল হক মওদুদ, বিএনপি নেতা সুদীপ রঞ্জন সেন বাপ্পু, মতিউল বারী খুর্শেদ প্রমুখ। 

 

ঠাকুরগাঁওয়ে শ্যালিকাকে ফুসলিয়ে নিয়ে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩
                                  

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :  ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে দুলাভাই ফুসলিয়ে নিয়ে গণধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই ধর্ষকের বাবাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠনো হয়েছে।
 
ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আবদুল লতিফ মিয়া জানান, মূল আসামি আনছারুল ঘটনার পর থেকে আত্মগোপনে রয়েছে। তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, আনছারুলের বাবাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়েছে। আশা করছি, খুব শিগগিরই মূল আসামিদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার এক দিনমজুরের কন্যা ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। বৃহস্পতিবার সে স্থানীয় বাজারে গেলে তারই ফুফাত বোনের স্বামী দুলাভাই আনছারুল হক (২৮) তাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়।

রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে দুলাভাই আনছারুল তার শ্যালিকাকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে রওনা হয়। ইতোমধ্যে আনছারুল মোবাইলে আবদুল লতিফ ও রমজান আলী নামে তার দুই বন্ধুকে ডেকে নিয়ে শ্যালিকাকে বাড়ি পৌঁছে দিতে রওনা হয়।

পথিমধ্যে একটি পুকুরের পাশে পৌঁছালে দুলাভাই আনছারুল ও তার সহযোগীরা ওই স্কুলছাত্রীকে পাশের বাঁশঝাড়ে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এদিকে বাড়ি না ফেরায় তার বাবা-মা মেয়েকে খুঁজতে বের হয়। ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তারা চিৎকার শুনে কাছে যেতেই ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় পরদিন মেয়ের বাবা বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ মূল অভিযুক্ত আনছারুল হকের বাবা আবদুল আজিজ, আবদুল লতিফের বাবা বাবলু হক এবং গ্রাম্য দেওনিয়া কুদ্দুসকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

 

 
সিরাজগঞ্জে বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
                                  

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :  সিরাজগঞ্জে বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে।  শুক্রবার বিকেলে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার চর মালশাপাড়া (ক্রসবাঁধ-৩) মহল­ায় বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিাত্তপ্রস্তর স্থাপন করেন, সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের এমপি ও সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার হাবিবে মিল­াত মুন্না। বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে এ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র নির্মাণে কাজ করবে প্যান এশিয়া পাওয়ার সার্ভিস লিমিটেড। ৪২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮টি টাওয়ারের মাধ্যমে এ বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে ২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে। যা জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ করা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। 

বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইফতিজা আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নবায়নযোগ্য জ্বালানি এবং গবেষণা ও উন্নয়ন পরিদপ্তরের পরিচালক তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী নাজমুল হক, সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী ফজলুর রহমান, সদর উপজেলার চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দীন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল খান।

বীরগঞ্জে বাড়ী ভেঙ্গে ৪ পরিবারের মালামাল লুট
                                  

বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি :  বীরগঞ্জে সন্ত্রাসীরা বিধবা সহ ৪টি পরিবারের বাড়ী-ঘর ভোঙ্গে গুড়িয়ে দিয়ে স্বর্ণলংকার ও মালামাল লুট করার ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার সদর থেকে ৩০ কিলোমিটার উত্তর পশ্চিমে মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের শিবপুর বাবু পাড়ার অবিনাশ রায়, ক্ষিতিশ রায়, সুজন রায়, পরেশ রায় ও হরি রায়ের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী লাঠি-সোটা ধারালো ছোরা, বল্লম, রাম দা, সাবোল ও ঘর ভাঙ্গার সরঞ্জামাদি নিয়ে গত ১৫ ফেব্রæয়ারী দুপুরে একই পাড়ায় মৃত চৈতু রাম রায়ের স্ত্রী অজো বালা রায়, ভোলা নাথ রায়, ধলা রায়, জয়মনি রায় ও শান্ত রায়ের বাড়ীতে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা ফিল্মি ষ্ট্যাইলে বাড়ীর লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি ও হত্যার হুমকি দিয়ে ৪টি পরিবারের ১০টি ঘর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়ে ৪ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে।

সন্ত্রাসীরা ৪টি পরিবারের বাড়ী-ঘরে রক্ষিত কাপর-চোপর, চাল-ডাল, স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা সহ সর্বমোট ৫ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহরার ভয়ে ভীত-সন্ত্রস্থ গ্রামবাসী প্রতিবাদ করার সাহস দেখাতে পারেনি। উল্লেখিত ঘটনায় অজো বালা রায় বাদী হয়ে অবিনাশ রায়, ক্ষিতিশ রায়, সুজন রায়, পরেশ রায় ও হরি রায়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছে। পুলিশ অভিযোগ পেয়ে ১৬ ফেব্রæয়ারী বিকেলে থানার এসআই ফিরোজ হাসান ঘটনাস্থল তদন্ত করে সত্যতা পেয়েছে।
 
অভিযুক্তদের বাড়ীতে গিয়ে তাদেরকে বাড়ীতে বা মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি। ক্ষিতিশ চন্দ্র রায়ের কলেজ পরুয়া মেয়ে মামনি রানী রায় জানান, ঘটনা বিয়য়ে তার কিছুই জানে না,  পূর্ব সত্রæতার কারনে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। স্থানীয় মহিলা ওয়ার্ড সদস্য আজেদা বেগম ও বিনয় চন্দ্র রায় প্রতক্ষদর্শি আতাউর রহমান, ভোলা নাথ রায়, শান্ত রায় ও সাধনা রানী রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঘটনার বিচার এবং জরিতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি জোর দাবী জানান।

ওসি মোঃ মছলেউল গনি সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার তদন্ত অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জোর তৎপরতা চলছে।

রাণীশংকৈলে গোরক্ষনাথ বারুনী মেলার উদ্বোধন
                                  

রাণীশংকৈল প্রতিনিধি :  ঠাকুরগাওয়ের রাণীশংকৈলে ৫ দিন ব্যাপী  গোরক্ষনাথ (শিব চতুর্দশী) মেলার শুভ উদ্বোধন হয়েছে। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় গোরক্ষনাথ মন্দির প্রাঙ্গণে মেলার শুভ উদ্বোধন হয়। মেলা পরিচালনা কমিটির সভাপতি অনিল চন্দ্র বর্ম্মনের সভাপতিত্বে উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যাপক মো. সইদুল হক প্রধান অতিথি ছিলেন। আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহফুজা বেগম পুতুল, নেকমরদ ইউপি চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক, পৌর আ’লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সরকার, উপজেলা যুবলীগ সম্পাদক রমজান আলী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান অমল চন্দ্র রায়, প্রাণ গোবিন্দ সাহা, মানিক গোস্বামী, শিক্ষক গোপেন চন্দ্র রায়,  দিগেন্দ্র নাথ রায়, মেলা পরিচালনা কমিটির সম্পাদক পুশিন চন্দ্র প্রমুখ।

দিনে বেচেন ফুচকা, রাতে চিত্র শিল্পী
                                  
তানভীর হাসান তানু, ঠাকুরগাঁও :  পেশায় ফুচকা বিক্রেতা। দেশ স্বাধীনের পর থেকে ঠাকুরগাঁওয়ে সবার কাছে তিনি আজিজ ভাই নামেই পরিচিত। শহরের সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের পাশের একটি ছোট ফুচকার দোকান করে জীবিকা নির্বাহ করেন তিনি। সারাদিন অনেক কিছু খাওয়া হলেও তার হাতের ফুচকা না খেলে মনের তৃপ্তি মেটে না এমনটাই মনে করেন ফুচকা প্রেমিরা। 
 
এই ফুচকা বিক্রেতার এই পেশার বাইরে আরও একটি পরিচয় রয়েছে। আর সেটি হচ্ছে তিনি একজন চিত্র শিল্পী। দিন শেষে রাতে অবসর সময় পার করেন কাঠ পেন্সিল দিয়ে বিভিন্ন ছবি আকেঁন। যেমন নিপুণ হাতে সুস্বাদু ফুচকা বানান তিনি। ঠিক তেমনি তিনি ইতিপূর্বে কাঠ পেন্সিলের মাধ্যমে প্রায় অর্ধশতাধিক বিভিন্ন ছবি এঁকেছেন মনের মাধুরী মিশিয়ে। 
 
কিন্তু ছবিগুলো প্রদর্শনী করার ইচ্ছে থাকলেও অর্থের অভাবে করতে পারেননি আজিজ। অবশেষে ঠাকুরগাঁওয়ের মানবিক জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের সার্বিক সহযোগিতায় ভাষা আন্দোলনের মাসে বই মেলায় তার চিত্র প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করে দিয়ে স্বপ্ন পূরণ করেছেন বলে আজিজ জানিয়েছেন।
 
বই মেলায় তার আঁকা চিত্র প্রদর্শনী দেখতে প্রতিদিন ভিড় করছে সকল বয়সের মানুষ। আজিজের অসাধারণ প্রতিভা দেখে মুগ্ধ সাধারণ মানুষ। প্রাতিষ্ঠানিক কোন শিক্ষা নেই কিন্তু একজন সাধারণ মানুষের মাঝে এমন প্রতিভা লুকিয়ে আছে এটা দেখে সবাই অবাক।
 
আমরা জানি প্রতিটি মানুষের মাঝে সুপ্ত প্রতিভা থাকে। শুধু সেই প্রতিভা বিকশিত করার সুযোগ প্রয়োজন। কেউ হয়ত পারে আবার কেউ হয়ত ব্যর্থ হয়। আর যারা পারে তাদের জীবনের গল্পগুলোই হয় অন্যরকম। 
 
আর সেটিই প্রমাণ করলেন প্রতিভাবান চিত্রশিল্পী ঠাকুরগাঁওয়ের ফুচকা বিক্রেতা আব্দুল আজিজ। যিনি শুধুমাত্র কাঠ পেন্সিলের মাধ্যমে তৈরি করেন তার চিত্রকর্ম। এখন সকলের কাছে তিনি শুধু ফুচকা বিক্রেতা নন, একজন চিত্র শিল্পীও। 

 

ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড়মাঠে তার অস্থায়ী ফুচকার দোকান। তিনি এই ব্যবসার সাথে জড়িত আছেন ১৯৭৯ সাল থেকে। কাজের অবসরে বসে বসে আঁকতেন মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন বিভিন্ন ছবি। তিনি এখন পর্যন্ত অর্ধ-শতাধিক ছবি এঁকেছেন শুধুমাত্র পেন্সিলের মাধ্যমে। এর আগে ছোট পরিসরে তার ছবি নিয়ে হয়েছে একক চিত্র প্রদর্শনী। এবারই প্রথম এত বড় পরিসরে তার ছবির প্রদর্শনী হচ্ছে।
 
চিত্র শিল্পী আজিজের সাথে কথা বললে তিনি জানান, ‘আমি নাইট স্কুলে পড়ালেখা করেছি। দিনের বেলা হোটেলে কাজ করে রাতে পড়তে যেতাম। বাবা যুদ্ধে মারা যান। মা অন্যের বাড়িতে কাজ করতেন। সংসার মূলত বড় ভাই চালাতেন।’
 
পরবর্তীতে ভর্তি হন ঠাকুরগাঁও রিভারভিউ উচ্চ বিদ্যালয়ে, যেখানে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা করেন। মেট্রিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে অকৃতকার্য হন। এরপর তিনি ঢাকায় চলে যান। পরবর্তীতে তিনি ঢাকাতে একটি ফাস্টফুডের দোকানে কাজ করতেন ও রাতে পেন্সিল আর কাগজ দিয়ে তিনি ছবি আঁকতেন। 
 
ফুচকা বিক্রেতা ছবি আঁকাকে নেশা হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন, যার দরুন নানা প্রতিকূলতা তাকে দমাতে পারেনি। দীর্ঘ ১৫ বছর ঢাকায় থাকার পর তিনি ঠাকুরগাঁওয়ে ফিরে ফুচকা চটপটির দোকান দেন এবং ক্ষণিক অবসরে ছবি আঁকতেন দোকানে বসেই। এরপর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। 
 
ছবি আঁকার অনুপ্রেরণার কোথায় পেলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন- ‘ছবি আঁকার আগ্রহ ছিল ছোট থেকেই। আমার বন্ধুরা ছবি আঁকা শিখত ওদের বলেছিলাম আমাকে শেখাতে। কিন্তুু ওরা আমাকে বলেছিল তুই তো পড়ালেখা জানিস না তুই আর কি আঁকবি। এই কথাটা শোনার পর আমার মধ্যে একটা জেদ সৃষ্টি হয় যে, আমি দেখিয়ে দিব সেই জেদ থেকেই আমার আঁকা শুরু। দেখি আমি ছবি আঁকতে পারি কিনা, মানুষ আমাকে শিল্পী বলে ডাকে কিনা, কাগজ পত্রিকায় শিল্পী নামটা উঠে কিনা দেখি চেষ্টা করে।
 
তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসলে শিল্পকর্মটা আমার খুব ভাল লাগে। কে দেখল, কে কে দেখল না, এটা খেয়াল করি না। আমার স্বপ্ন এটা। আমি ঢাকায় এতদিন থাকলে হয়ত ভালো জায়গায় যেতে পারতাম কিন্তুু আমি পারি নি সংসারের কারণে, পরিবারের কারণে। এখন ঢাকায় একটি প্রদর্শনী করতে পারলে আমার সব ইচ্ছে ও স্বপ্ন পূরণ হবে।

 

 
বই মেলায় দেখতে আসা দর্শনার্থীরা একবার হলেও আজিজ এর চিত্র প্রদর্শনী ঘুরে যাচ্ছে। চিত্র প্রদর্শনী দেখার পরে কথা হয় শাকিল চৌধুরীর সাথে। তার কাছে চিত্র প্রদর্শনী কেমন লাগলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ছোট থেকে আজিজ ভাই এর দোকানে চটপটি ফুচকা খাই। অনেক মজাদার ও সুস্বাদু তার হাতের ফুচকা কিন্তু আজকে আমি অবাক। কারণ তার চিত্রগুলো দেখার পরে মনে হয়েছে এজন্যই এত সুন্দর ফুচকা বানান তিনি। কারণ তার হাত দুটো দিয়ে আঁকা ছবিগুলো অসম্ভব সুন্দর। একজন সাধারণ মানুষের মাঝে এমন প্রতিভা লুকিয়ে আছে তাকে দেখে বোঝাই যায় না। 
 
ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, আজিজ ভাই এর প্রতিভা হচ্ছে একটি ছাই চাপা আগুন। এটা যে কোন সময় বের হয়ে আসত। আজিজ ভাই এর মত এমন অনেক শিল্পী ঠাকুরগাঁওয়ে আছে যাদের একাডেমিক শিক্ষা নেই কিন্তু সুন্দর আর্ট করেন। আমরা চেষ্টা করবো এর পরে সকলের চিত্রগুলো তুলে ধরতে দেশের মানুষের কাছে। আজিজ ভাইকে দেখে আমরা শিক্ষা নেব যে চেষ্টা থাকলে প্রতিভা বিকশিত হবেই।
 
ঠাকুরগাঁওয়ের মানুষের কাছে ফুচকা-চটপটি বিক্রি করে তিনি যেমন বিখ্যাত হয়েছেন। ঠিক তেমনি ছবি আঁকার মাধ্যমে দেশের মানুষের কাছে প্রশংসা অর্জন তার ইচ্ছা। আর তার এই ইচ্ছা একদিন পূরণ হবে এমনটাই মনে করেন ঠাকুরগাঁওবাসী।

 

ঠাকুরগাঁওয়ে ওরাঁও ছাত্র সংগঠনের শিক্ষা সম্মেলন
                                  

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :  বাংলাদেশ ওরাঁও ছাত্র সংগঠন ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার আয়োজনে জেলা শিক্ষা সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও সদর জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চন্ডীপুর গ্রামে শিক্ষা সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।

পরে জেলা শিক্ষা সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসলাম মোল্লা, জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুচরিতা দেব, ওরাঁও ছাত্র সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মেরিন এক্কা, বিশিষ্ট ওরাঁও সমাজবিদ বাবুলাল তিগ্যা, বীর মুক্তিযোদ্ধা চায়না রাম ওরাঁও প্রমুখ।

সম্মেলন শুরুর পূর্বে আদিবাসি ওরাঁও সম্প্রদায়ের নিয়মে জেলা প্রশাসককে বরণ করা হয়। সম্মেলনে ওরাঁও সম্প্রদায়ের মানুষের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরা হয় ও জেলা প্রশাসক সেই সমস্যাগুলো সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন।   

বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় দিনাজপুরে মহিলা পরিষদের সম্মেলন
                                  

দিনাজপুর প্রতিনিধি : বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার একাদশ জেলা সম্মেলন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় দিনাজপুর শিল্পকলা একাডেমী চত্বরে আয়োজিত জেলা সম্মেলনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত দিনাজপুরের নাট্য ব্যক্তিত্ব কাজী বোরহান এবং সাংগঠনিক পতাকা উত্তোলন করেন মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান। শোভাযাত্রার নেতৃত্ব দেন মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম। 

সম্মেলন উদ্বোধন করেন দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. কান্তা রায় রিমি। পরে একটি শোভাযাত্রা শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিল্পকলা একাডেমী চত্বরে এসে শেষ হয়। 

শোভাযাত্রা শেষে অনুষ্ঠিত হয় উদীচীর পরিচালনায় নৃত্যানুষ্ঠান। পরে বিকালে কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।  সম্মেলনে মহিলা পরিষদের বিভিন্ন উপজেলার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

পঞ্চগড়ে শিক্ষককে থাপ্পড় মারল এসএসসি পরীক্ষার্থী
                                  

পঞ্চগড়ে প্রতিনিধি :  পঞ্চগড়ে চলমান এসএসসি পরীক্ষায় একটি কক্ষে একে-অন্যের দেখাদেখি করতে না দেয়ায় ওই কক্ষে দায়িত্বরত এক শিক্ষককে পরীক্ষা শেষে থাপ্পর দিয়েছে এক এসএসসি পরীক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এসএসসি পরীক্ষা  কেন্দ্রের মূল ফটকের সামনে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় সকল শিক্ষক ও পরীক্ষায় দায়িত্বপালনকারী শিক্ষকদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে অবহিত করে পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছে ওই পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব।
  
শিক্ষককে লাঞ্চনাকারী ওই পরীক্ষার্থীর নাম শামিমুর রহমান সাগর। সে পঞ্চগড় বিপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। তার রোল ২৬৬৭৩০ ও রেজিষ্ট্রেশন নম্বর ১৫১৭৮০২৮১২। ওই শিক্ষার্থী পঞ্চগড় জেলা শহরের জালাসী এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। 

পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে চলতি এসএসসি পরীক্ষার রসায়ন বিষয়ে পরীক্ষা চলছিল। পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০৩ নম্বর কক্ষে বিজ্ঞান বিভাগের এসএসসি পরীক্ষার্থী শামিমুর হাসান সাগর পাশে আরেক পরীক্ষার্থীর খাতা দেখে লেখছিল। এ সময় দায়িত্বরত কক্ষ পরিদর্শক ও পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক হকিকুল তাকে অন্যের খাতা দেখে লেখতে নিষেধ করে এবং পাশের শিক্ষার্থীকে কিছুটা দুরে সরিয়ে দেন। পরে পরীক্ষা শেষ হওয়ার নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই খাতা জমা দিয়ে বের হয়ে যায় সাগর। পরে পরীক্ষা শেষ হওয়ায় পূর্বেই পরীক্ষার্থী সাগর কেন্দ্রের বাইরে তার সহপাঠি ও বন্ধুদের একত্র করে রাখে। পরীক্ষা শেষে কেন্দ্রে থেকে বের হওয়ার সময় কেন্দ্রের মুল ফটকের কাছে শিক্ষক হকিকুল ইসলামকে আটক করে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই সিনিয়র শিক্ষক হকিকুল ইসলামের গালে থাপ্পর দিয়ে পালিয়ে যায় পরীক্ষার্থী শামিমুর হাসান সাগর ও তার বন্ধুরা। 
এ ঘটনার পরপরই বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবহিত করা হয়েছে। এমনকি কেন্দ্র সচিব পঞ্চগড় সরকারি বাুিলকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পধান শিক্ষক রেখা রাণী দেবী জেলা পুলিশ সুপার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সিনিয়র শিক্ষক ও কক্ষ পরিদর্শক (ভিকটিম) হকিকুল ইসলাম জানান, ‘আমি দায়িত্বপালন করায় সময় বিপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীসহ সকল পরীক্ষার্থীদের দেখাদেখি করে লিখতে বাঁধা দেই। এ সময় বিপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আমাদের বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার সময় বিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনে ওই শিক্ষার্থী আমাকে আটক করে থাপ্পর দেয়।’  

পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব রেখা রাণী দেবী জানান, ‘আমরা ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করেছি। সেই সাথে ঘটনার দৃশ্যটি সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। আমরা চাই ওই শিক্ষার্থীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক।’ 

পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম জানান, ‘এটি অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। এ বিষয়ে আমরা অভিযোগ পেয়েছি। আমরা বিষয়টি কঠোরভাবে নিয়েছি। শিক্ষককে লাঞ্চিতকারী ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।’  

 

 
আমি আত্মহত্যা করিনি, আমায় হত্যা করা হয়েছে
                                  

বগুড়া  প্রতিনিধি  : বগুড়ায় নবম শ্রেণির ছাত্র রায়হান রাব্বী তাসিনের (১৫) লাশ শুক্রবার তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ। তবে পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়নি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বেলা ২টা ২০ মিনিটে শহরের নিশিন্দারা আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন স্কুল ও কলেজের ৫ম তলার ছাদ থেকে লাফ দিয়ে তাসিন আত্মহত্যার চেষ্টা করে। ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ার ৪ ঘণ্টা পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা সোয়া ৬টা ২২ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।

তাসিন একই স্কুলের নবম শ্রেণির বাণিজ্য বিভাগের ছাত্র ছিল। সে শহরের নিউমার্কেটের প্রসাধনী ব্যবসায়ী এবং শিববাটি এলাকার বাসিন্দা সোহাগ হোসেন প্রামাণিক জুয়েলের ছেলে।

পুলিশ ও শিক্ষকরা মেধাবী এই শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে কিছুই বলতে পারেননি। তবে স্বজনরা বলছেন, প্রেমঘটিত কারণে সে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে পারে।

এদিকে তাসিন স্কুলে যাওয়ার আগে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের আইডিতে ইংরেজিতে লিখেছে, `থ্যাংকস টু আল্লাহ, ফর গিভিং মি অ্যা লাইফ অব ফুল পেইন... বাই, এভরিওয়ান।` আর প্রোফাইল পিকচারের স্থানে লেখা, `আমি আত্মহত্যা করিনি, আমায় হত্যা করা হয়েছে।`

তাসিনের স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক ফজলুল হক জানান, তাসিন প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবারও স্কুলে এসেছিল। বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি চলার কারণে দুপুর ২টার দিকে স্কুল ছুটি হয়ে যায়। এরপর সবার অগোচরে কোনো এক সময় তাসিন স্কুলের পশ্চিম পাশের নতুন পাঁচতলা ভবনের ছাদে ওঠে। বেলা আড়াইটার দিকে সে পাঁচতলা ভবন থেকে লাফ দেয়। শব্দ শুনে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে।

তিনি আরও বলেন, তাসিন ভালো ছাত্র ছিল। অষ্টম শ্রেণিতে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিল।` নবম শ্রেণিতে বাণিজ্য বিভাগের ছাত্র ছিল।

শজিমেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. নির্মলেন্দু গুণ জানান, তাসিনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) নেয়া হয়। প্রায় ৪ ঘণ্টা পর সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।

আইসিইউ-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক ডা. নাঈম আহম্মেদ দিপু জানান, তাসিনের কোমর ভেঙে গিয়েছিল। এছাড়াও তার মাথাসহ শরীরের একাধিক স্থানে গুরুতর জখম হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে শিববাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনে তাসিনদের বাড়িতে গিয়ে তালা ঝুলতে দেখা গেছে। বারিক খান নামে এলাকাবাসীদের একজন জানান, স্কুলভবন থেকে তাসিনের লাফিয়ে পড়ার খবরে তার স্বজনরা সবাই হাসপাতালে ছুটে গেছেন।

এলাকাবাসী জানান, তাসিন সব সময় একা একা থাকতো। কারও সঙ্গে তেমন কথা বলতো না। তাসিনের বাবা সোহাগ প্রামাণিক জুয়েলের চাচাত ভাই হেলাল প্রামাণিক জানান, তার ভাই সোহাগের নিউ মার্কেটে কসমেটিকের দোকান রয়েছে। সোহাগের সঙ্গে প্রায় ১৭ বছর আগে একই এলাকার বজলার রহমানের মেয়ে নিপা বেগমের বিয়ে হয়। তাসিন তাদেরই সন্তান। কিন্তু তাসিনের জন্মের দুই বছরের মাথায় তার মা-বাবার বিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে তাসিন তার দাদা জয়নাল প্রামাণিকের কাছে বড় হতে থাকে। পরে সোহাগ আরেক নারীকে বিয়ে করেন। দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রীর সঙ্গে তাদের পাঁচ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

তাসিনের চাচা হেলাল প্রামাণিক আরও জানান, তাসিনের সঙ্গে তার সৎ মায়ের কোনো ঝামেলা ছিল না। তবে তার সঙ্গে দশম শ্রেণির এক মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। শুনেছি ১৪ ফেব্রুয়ারি ভ্যালেন্টাইন`স ডে`তে সেই মেয়ে তাসিনকে প্রত্যাখান করে। এরপর সে মানসিক ভাবে ভেঙে পড়ে।

বগুড়া সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদ হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি পারিবারিক অশান্তির কারণে ছেলেটি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। অন্য কারণও থাকতে পারে। বিষযটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 


   Page 1 of 6
     বাংলাদেশ
ঠাকুরগাঁওয়ে তরুণদের উদ্দীপ্ত করতেই আলপনা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
হবিগঞ্জে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৩০
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ফরিদপুরে বিএনপির মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যু
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজশাহী জেলা ও মহানগর বিএনপির জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান..
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
লক্ষ্মীপুরে বিএনপির গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালিত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিলেটে বিএনপির গণস্বাক্ষর
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে শ্যালিকাকে ফুসলিয়ে নিয়ে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সিরাজগঞ্জে বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বীরগঞ্জে বাড়ী ভেঙ্গে ৪ পরিবারের মালামাল লুট
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রাণীশংকৈলে গোরক্ষনাথ বারুনী মেলার উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দিনে বেচেন ফুচকা, রাতে চিত্র শিল্পী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে ওরাঁও ছাত্র সংগঠনের শিক্ষা সম্মেলন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় দিনাজপুরে মহিলা পরিষদের সম্মেলন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পঞ্চগড়ে শিক্ষককে থাপ্পড় মারল এসএসসি পরীক্ষার্থী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আমি আত্মহত্যা করিনি, আমায় হত্যা করা হয়েছে
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জেলা পরিষদের নির্মাণাধীন মিলনায়তন ধসে শ্রমিকের মৃত্যু
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পরকীয়া দেখা ফেলায় শাশুড়িকে গলা কেটে হত্যা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে আলোকিত সীমান্ত গড়তে আমরা বদ্ধপরিকর
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ভালবাসা দিবসে দৃষ্টান্ত স্থাপন করল ঠাকুরগাঁওয়ের কিছু শিক্ষার্থী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নাশকতার দুটি মামলায় আগাম জামিন পেলেন উত্তরবঙ্গের জননেতা আবু সাঈদ চাঁদ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রংপুরে একই ছেলেকে ভালোবেসে দুই বোনের আত্মহত্যা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
এসপি লালনের লেখা গানে ঠাকুরগাঁওয়ের বীরঙ্গনা টেপরী রাণী পেলেন নতুন বাড়ি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
এসপি লালনের লেখা গানে টেপরী রাণী পেলেন নতুন বাড়ি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বহিষ্কার করায় দোতলা থেকে লাফ দিল ছাত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে চলতি দায়িত্ব পেয়ে প্রধান শিক্ষক হলেন যারা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বালিয়াডাঙ্গীতে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা গওহর রিজভী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শিক্ষকের নির্দেশে কিশোরকে মেরে ফেলল শিক্ষার্থীরা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
খালেদা জিয়ার প্রতিহিংসামূলক রায়ের প্রতিবাদে রাজশাহী জেলা ও মহানগর বিএনপি/যুবদল/ছাত্রদলের মানববন্ধনে মানুষের ঢল
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাওয়ে মানববন্ধনের ব্যানার নিয়ে গেল ওসি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্রলীগ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁও ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার শুভ উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পঞ্চগড় প্রেসক্লাবে সফিকুল সভাপতি, সাইফুল সম্পাদক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নরসিংদীতে প্রশ্নপ্রত্র ফাঁস, শিক্ষকসহ ৪ জন জেলে
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সোহাগ-জাকিরের সামনেই সংঘর্ষে ছাত্রলীগ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁওয়ে ট্রাক ট্যাংকলরি ও কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সভা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ছেলের অপরাধে মাকে গণধর্ষণ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রাজশাহীতে প্রশ্নফাঁসকারী সন্দেহে নারী আটক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
কিশোরগঞ্জে বিএনপির ১৮ আটক নেতাকর্মীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া কোন বিকল্প নেই
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সিলেটে সংঘর্ষ : ২০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ছাত্রদল সভাপতি রাজিবকে গ্রেফতারে,জাগপা ছাত্রলীগ’এর তীব্র নিন্দা-
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
একদলীয় দু:শাসনকে প্রলম্বিত করার উদ্দেশ্যে খালেদা জিয়াকে কারারুদ্ধ করা হয়েছে -রাজিব ঘোষ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
লক্ষ্মীপুরে আওয়ামীলীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত ১৫
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
এবার বাবার লাশ রেখে পরীক্ষা দিল ঠাকুরগাঁওয়ের সুমি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
হতাশায় ভুগছেন ঠাকুরগাঁওয়ের ১১০ জন শিক্ষক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ঠাকুরগাঁও হাসপাতালের স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নে গণশুনানী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
এবার বাবার মরদেহ রেখে পরীক্ষা দিলেন ঠাকুরগাঁওয়ের সুমি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: চারদিনেও গ্রেপ্তার হয়নি যুবক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আজও নেতাশূন্য গাইবান্ধা বিএনপি অফিস
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......