আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
সিরীয় বাহিনীর বিমান হামলায় ২০ শিশুসহ নিহত ৭৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ার দামেস্কের কাছে বিদ্রোহী অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌটা শহরে সিরীয় বাহিনীর বিমান হামলায় কমপক্ষে ৭৭ জন বেসামরিক নিহত হয়েছে। দেশটিতে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউমেন রাইটস জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে ২০ জনই শিশু। সোমবার কয়েক দফা বিমান ও রকেট হামলা চালানো হয়। খবর বিবিসি।

সেনাবাহিনী স্থলপথেও অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় বোমা হামলা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌটা শহরে প্রায় ৪ লাখ মানুষ বাস করে। ২০১৩ সালে ওই অঞ্চল দখল করে নেয় বিদ্রোহীরা। রাজধানী দামেস্কের কাছে এটাই বিদ্রোহীদের শেষ ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত।

 

ওই এলাকার দখল নিতে চলতি মাসের শুরু থেকেই সেখানে অভিযান শুরু করেছে সিরীয় বাহিনী। সরকারি বাহিনীর এসব হামলায় কয়েকশ মানুষ নিহত এবং আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

 

এদিকে, উত্তরাঞ্চলীয় সিরিয়ায় কুর্দি যোদ্ধাদের সহায়তা না দেয়ার জন্য সরকারি বাহিনীকে সতর্ক করেছে তুরস্ক। রোববার থেকে শুরু করে ঘৌটা শহরে কয়েক দফা বিমান হামলায় শুধুমাত্র বেসামরিক হতাহতের ঘটনাই ঘটেনি বরং বেসামরিকদের বেঁচে থাকার বিভিন্ন অবলম্বনও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেখানকার বেশ কিছু বেকারি, গুমাদঘর হামলার শিকার হয়েছে। ফলে খাদ্য সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বেশ কিছু চিকিৎসা সেবা কেন্দ্রও হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সোমবার চারটি অস্থায়ী হাসপাতাল বন্ধ ছিল। এর মধ্যে একটি প্রসূতি মায়েদের চিকিৎসা প্রদানে কাজ করছিল।

হামৌরিয়া শহরে সোমবার কয়েক দফা বিমান হামলায় কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছে। ওই এলাকার একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, বোমা হামলায় ভেঙে পড়া ও ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি-ঘর থেকে লোকজন পালিয়ে যাচ্ছে।

সামনের মাসেই সিরীয় সংঘাতের সাত বছর পূর্ণ হবে। এই কয়েক বছরে সিরিয়ায় বিমান হামলায় হাজার হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। সংঘাতের কারণে দেশটি থেকে পালিয়েছে প্রায় ৫০ লাখ মানুষ। সেখানে কয়েক লাখ মানুষ মানবিক সঙ্কটে দিন কাটাচ্ছে।

 

সিরীয় বাহিনীর বিমান হামলায় ২০ শিশুসহ নিহত ৭৭
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ার দামেস্কের কাছে বিদ্রোহী অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌটা শহরে সিরীয় বাহিনীর বিমান হামলায় কমপক্ষে ৭৭ জন বেসামরিক নিহত হয়েছে। দেশটিতে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউমেন রাইটস জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে ২০ জনই শিশু। সোমবার কয়েক দফা বিমান ও রকেট হামলা চালানো হয়। খবর বিবিসি।

সেনাবাহিনী স্থলপথেও অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় বোমা হামলা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌটা শহরে প্রায় ৪ লাখ মানুষ বাস করে। ২০১৩ সালে ওই অঞ্চল দখল করে নেয় বিদ্রোহীরা। রাজধানী দামেস্কের কাছে এটাই বিদ্রোহীদের শেষ ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত।

 

ওই এলাকার দখল নিতে চলতি মাসের শুরু থেকেই সেখানে অভিযান শুরু করেছে সিরীয় বাহিনী। সরকারি বাহিনীর এসব হামলায় কয়েকশ মানুষ নিহত এবং আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

 

এদিকে, উত্তরাঞ্চলীয় সিরিয়ায় কুর্দি যোদ্ধাদের সহায়তা না দেয়ার জন্য সরকারি বাহিনীকে সতর্ক করেছে তুরস্ক। রোববার থেকে শুরু করে ঘৌটা শহরে কয়েক দফা বিমান হামলায় শুধুমাত্র বেসামরিক হতাহতের ঘটনাই ঘটেনি বরং বেসামরিকদের বেঁচে থাকার বিভিন্ন অবলম্বনও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেখানকার বেশ কিছু বেকারি, গুমাদঘর হামলার শিকার হয়েছে। ফলে খাদ্য সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বেশ কিছু চিকিৎসা সেবা কেন্দ্রও হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সোমবার চারটি অস্থায়ী হাসপাতাল বন্ধ ছিল। এর মধ্যে একটি প্রসূতি মায়েদের চিকিৎসা প্রদানে কাজ করছিল।

হামৌরিয়া শহরে সোমবার কয়েক দফা বিমান হামলায় কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছে। ওই এলাকার একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, বোমা হামলায় ভেঙে পড়া ও ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি-ঘর থেকে লোকজন পালিয়ে যাচ্ছে।

সামনের মাসেই সিরীয় সংঘাতের সাত বছর পূর্ণ হবে। এই কয়েক বছরে সিরিয়ায় বিমান হামলায় হাজার হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। সংঘাতের কারণে দেশটি থেকে পালিয়েছে প্রায় ৫০ লাখ মানুষ। সেখানে কয়েক লাখ মানুষ মানবিক সঙ্কটে দিন কাটাচ্ছে।

 

শিশু জয়নবের ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ড
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের ৬ বছর বয়সী শিশু জয়নবকে অপহরণ, ধর্ষণসহ খুনের দায়ে অভিযুক্ত ধর্ষক ইমরান আলীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দেশটির সন্ত্রাসবিরোধী আদালত (এটিসি)। শনিবার পাকিস্তানের বিশেষ এ আদালত ধর্ষক ইমরানের মৃত্যুদণ্ডের রায়ের পাশাপাশি অর্থদণ্ডও দিয়েছেন।

পাকিস্তানি দৈনিক দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন বলছে, একটি শিশুকে অপহরণ, ধর্ষণ, খুন ও ক্ষুদে শিশুর সঙ্গে অস্বাভাবিক চারটি অপরাধ সংঘটনের প্রমাণ পাওয়া যাওয়ায় ধর্ষক ইমরানের ওই সাজা দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে আলীকে আরো ৭ বছরের কারাদণ্ড ও জয়নবের দেহ অপবিত্র করার দায়ে দশ লাখ পাকিস্তানি রুপি জরিমানা করা হয়েছে।

দেশটির সন্ত্রাসবিরোধী আদালতের পরামর্শক বলেছেন, তার দল অপরাধীকে বিচারের আওতায় এনেছে। তিনি আরো বলেন, অপরাধীকে কারাগারে বন্দি রাখতে অসংখ্য প্রচেষ্টা চালিয়েছে পাঞ্জাবের সরকার।

পাঞ্জাব প্রদেশের বহুল আলোচিত ধর্ষণের এ মামলার রায় ঘোষণার পর তিনি বলেন, আমাদের বিচারবিভাগ বর্তমানে অন্যান্য দেশের ন্যায় মামলায় ডিএনএ নমুনা সাক্ষ্য হিসেবে ব্যবহার করে।

তিনি আরো বলেন, ধর্ষকের স্বীকারোক্তি সত্ত্বেও তারা অপরাধীকে ন্যায় বিচারের সুযোগ দিয়েছেন। মামলার সব কার্যক্রম বৈজ্ঞানিক উপায়ে প্রমাণিত হয়েছে। সাজার বিরুদ্ধে আপিলের জন্য ১৫ দিনের সময় পাবেন ধর্ষক ইমরান আলী।

কট লাখপাত কারাগারে ব্যাপাক নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে জয়নব ধর্ষণ ও হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। জয়নবের বাবা রায় ঘোষণা সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ৫৬ প্রত্যক্ষদর্শীর জবানবন্দি নেয়ার পর আদালতের বিচারকরা ধর্ষক ইমরানের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতের কাছে শিশু জয়নব ছাড়াও কাসুরের আরো ছয় শিশুকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন ইমরান।

পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুর এলাকার ছয় বছর বয়সী শিশু জয়নবকে ৪ জানুয়ারি অপহরণ করে ইমরান। ৯ জানুয়ারি শিশু জয়নবের মরদেহ কাসুরের একটি ময়লার ভাগাড় থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

জয়নব অপহরণের সময় তার বাবা-মা সৌদি আরবে ওমরাহ পালন করতে গিয়েছিলেন। পরে মেয়ের মৃত্যুর খবরে তারা দেশে ফিরে আসেন। ধর্ষক গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের দাফন সম্পন্ন করবেন না বলে পুলিশকে আল্টিমেটাম বেধে দিলেও দুই সপ্তাহ পর সন্দেহভাজন ইমরানের ডিএনএর সঙ্গে ধর্ষণের আলামতের মিল পাওয়া যায়।

গ্রেফতারের খবর ছড়িয়ে পড়ার পর স্থানীয়রা ওই ধর্ষকের বাড়ি ঘেরাও করে। পরে রাতে পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ এক সম্মেলনে ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান। একই সঙ্গে আদালতে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর ওই ধর্ষককে প্রকাশ্যে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দাবি জানান তিনি।

এসময় শাহবাজ শরীফ বলেন, জয়নবের পরিবার, পুরো দেশ ও তিনি নিজেও ধর্ষকের জনসম্মুখে ফাঁসি চান। এটাই সবার চাওয়া।

 

সুইফটের নেটওয়ার্কে হ্যাকারদের হানা, রাশিয়ার ৬০ লাখ ডলার লুট
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আর্থিক লেনদেনের বার্তা আদান-প্রদানকারী আন্তর্জাতিক মাধ্যম সুইফটের পেমেন্ট নেটওয়ার্ক হ্যাক করে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে প্রায় ৬০ লাখ মার্কিন ডলার হাতিয়ে নিয়েছে অজ্ঞাত হ্যাকাররা। শুক্রবার রুশ এই ব্যাংক বলছে, হ্যাকাররা গত বছর সুইফটের নেটওয়ার্ক ভেঙে ওই অর্থ চুরি করেছে।

রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, সুইফটের নেটওয়ার্কে হ্যাকারদের একটি সফল হামলার ব্যাপারে সুইফট সিস্টেমের অপারেটরের কাছে তথ্য পাঠানো হয়েছে। অবৈধ এই কাজের মাধ্যমে ৩৩৯.৫ মিলিয়ন রুবল চুরি গেছে।

তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য সরবরাহ করতে রাজি হয়নি কেন্দ্রীয় এই ব্যাংকটি।

বিশ্বজুড়ে ১১ হাজার ব্যাংককে যুক্ত করা সংস্থা সোসাইটি ফর ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইন্টারব্যাংক ফিন্যান্সিয়াল টেলিকমিউনিকেশনের (সুইফট) এক মুখপাত্র বলেছেন, নির্দিষ্ট কোনো ঘটনায় মন্তব্য করে না তাদের এই কোম্পানি। বিশ্বজুড়ে প্রতিদিন হাজার হাজার কোটি ডলার লেনদেন হয় এই সুইফট নেটওয়ার্কের মাধ্যমে।

সুইফটের মুখপাত্র নাতাশা দে তেরান বলেছেন, ‘আমাদের কাছে যখন সম্ভাব্য জালিয়াতির কোনো তথ্য আসে; তখন আমরা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবহারকারীকে তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সহায়তা দিয়ে থাকি।’

দেশটির নিয়ন্ত্রক নিরাপত্তা বিভাগের উপ-প্রধানের বরাত দিয়ে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র আর্টেম মিচেভ বলেন, ‘হ্যাকাররা অর্থ তুলে নিয়েছে। হ্যাকাররা যখন কম্পিউটারের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়; তখন এটি তাদের জন্য সহজ কাজ হয়ে যায়।’

ব্রাসেলসভিত্তিক সংস্থা সুইফট বলছে, গত বছর বিশ্বজুড়ে ডিজিটাল জালিয়াতির ঘটনা বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। নতুন নতুন হামলা চালানোর জন্য হ্যাকাররা আরো অত্যাধুনিক সরঞ্জাম ও কৌশল ব্যবহার করছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে সুইফট নেটওয়ার্কের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার রাশিয়ার সরকারি ব্যাংক গ্লোবেক্স থেকে প্রায় ৫৫ মিলিয়ন রুবল চুরির চেষ্টা করে হ্যাকাররা। এর আগে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে সুইফটের নেটওয়ার্ক ভেঙে প্রায় ৮ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার হাতিয়ে নেয় হ্যাকাররা।

তবে হ্যাকারদের হামলার সংখ্যা ও ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা প্রকাশ করে না সুইফট। তবে বেশ কিছু ঘটনায় সুইফটের নেটওয়ার্কে হ্যাকারদের হানার তথ্য জনসম্মুখে প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে তাইওয়ানের ফার ইস্টার্ন ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংক ও নেপালের এআইসি এশিয়া ব্যাংক থেকে অর্থ চুরি যাওয়ার ঘটনাও রয়েছে।

 

৭ মিনিটে ১৭ জনকে গুলি করে হত্যা!
                                  

১৪ ফেব্রুয়ারি বুধবার ছিল বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসার এমন দিনে ঘটে গেলো যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের এক ভয়াবহ হত্যাকাণ্ড। মাত্র সাত মিনিটে  মার্জরি স্টোনম্যান ডগলাস হাইস্কুলে নিকোলাস ক্রুজ নামের এক বন্দুকধারী ১৭ জনকে গুলি করে হত্যা করেছে। ওই হত্যাকারী নিকোলাস ক্রুজকে আটক করেছে পুলিশ । খবর স্কাই নিউজ।

 

১৯ বছরের নিকোলাস ক্রুজকে স্কুলে নিয়ম-শৃঙ্খলা না মানায় বহিষ্কার করা হয়েছিল। প্রতিশোধ নিতেই মনে হয় বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে ভয়ংকর রূপে ফিরে এলেন পুরোনো স্কুলে।

 

ক্রুজ বন্দুকের পাগল ছিলো। সে ছিল অস্থির চিত্তের। স্কুলে থাকতে সে নিয়মিত ফায়ার অ্যালার্ম বাজিয়ে সবাইকে বিরক্ত করত।

স্কুলের অংকের শিক্ষক জিম গার্ড বলেন, স্কুল কর্তৃপক্ষ ক্রুজের আচরণ নিয়ে শিক্ষকদেরকে ইমেইল পাঠিয়ে সতর্ক করেছিল।

স্কুলের কর্মকর্তরা ক্রুজকে স্কুল থেকে বহিষ্কারের কারণ না জানালেও ভিক্টোরিয়া ওলভেরা নামের এক শিক্ষার্থী বলেছেন, ক্রুজের সঙ্গে তার সাবেক প্রেমিকার নতুন প্রেমিকের লড়াই হওয়ার কারণে তাকে স্কুল থেকে বের করে দেয়া হয়।

এ নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, এ হামলার ঘটনাই বলে দিচ্ছে যে, কারও অস্বাভাবিক আচরণ নিয়ে মানুষজন উদ্বিগ্ন থাকলে, সে ব্যাপারে অবশ্যই কর্তৃপক্ষকে আগে থেকে বার বার জানাতে হবে।

উল্লেখ্য, এফবিআই এই ঘটনার তদন্ত কাজে সহায়তায় করছে।

দূতাবাসে হামলা : ব্রিটিশ সরকারের দিকে তাকিয়ে আওয়ামী লীগ
                                  

যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশনে হামলার ঘটনায় ব্রিটিশ সরকারের দিকে তাকিয়ে রয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দলটির একাধিক নীতি নির্ধারণী নেতা মনে করছেন দূতাবাসে হামলার ঘটনা খতিয়ে দেখা সে দেশের সরকারের বিষয়। ঘটনাটি নিন্দনীয়। জড়িতদের বিচারে ব্রিটিশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হবে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি লন্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসে এ হামলার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতাকর্মীরা জড়িত ও তাদের বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জানানো হয়। তবে হামলার ঘটনাকে ‘বিচ্ছিন্ন’, ‘অনাকাঙ্ক্ষিত’ ও ‘অনভিপ্রেত’ উল্লেখ করে বিবৃতি দিয়েছে যুক্তরাজ্য বিএনপি।

এদিকে যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ওই হামলার ‘নির্দেশদাতা’ বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

হামলার পর গত ১২ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজারে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘একটি মামলার রায়কে (খালেদা জিয়ার রায়) কেন্দ্র করে দূতাবাসে যে হামলা হয়েছে, সেটি পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন। আমরা যতটুকু খবর পেয়েছি, ওই হামলার নির্দেশদাতা লন্ডনে অবস্থানরত দীর্ঘদিন ধরে পলাতক বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তার পরিকল্পনাতেই এ হামলা হয়েছে। তদন্ত চলছে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে ইতোমধ্যে ইন্টারপোলকে জানানো হয়েছে।’

এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবির অবমাননা এবং হাইকমিশনে আক্রমণের ঘটনার নির্দেশদাতা ও দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য যুক্তরাজ্যের সরকারের নিকট জোর দাবি জানিয়েছে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশন। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে হাইকমিশন বলে, ‘প্রকৃতপক্ষে এটি ছিল স্মারকলিপি প্রদানের অজুহাতে কারো নির্দেশে পূর্ব-পরিকল্পিত একটি হামলা।’

বিষয়টির নিয়ে আওয়ামী লীগের একাধিক নীতি নির্ধারণী নেতা বলছেন, দূতাবাসে হামলার ঘটনাটি খতিয়ে দেখা সে দেশের সরকারের বিষয়। লন্ডনে অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশনে যে হামলার ঘটনা ঘটেছে এটি নিন্দনীয়। আমরা মনে করি, এটি বাংলাদেশের উপর হামলা। বাংলাদেশ হাইকমিশনে হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচারে আমরা সে দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানাবো।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর একাধিক সদস্য বলেন, হাইকমিশনে হামলার ঘটনা শুধু আমাদের (আওয়ামী লীগ) নেতাদের কাছে কেন সবার কাছেই রাজনৈতিক হিসেবে মনে হবে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার ও ব্রিটিশ সরকার কী পদক্ষেপ নেয় সেটিই এখন দেখার বিষয়।

তারা আরও বলেন, আওয়ামী লীগ মনে করে যে, কোনো দেশে স্থাপিত দূতাবাসের নিরাপত্তার দায়িত্ব সে দেশের সরকারের। আর এ নিরাপত্তা ভেঙে লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে যে হামলা হয়েছে, বিষয়ে সে দেশের সরকারেরই ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ বলেন, আমাদের যদি কোনো জায়গায় দূতাবাসে আক্রমণ হয় সেখানে তো দেশের উপর আক্রমণের মতো। এখানে ব্রিটিশ সরকারের কাছে অভিযোগ গেছে। কারা করেছে? এটা তদন্ত করে দেখবে ব্রিটিশ সরকার। আমরা এটার বিচার দাবি করছি। কারা এটাতে জড়িত ছিল তাদের সবার শাস্তি হবে, এটা আমরা প্রত্যাশা করি।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ভাঙা স্যুটকেস আর ছেড়া গেঞ্জি থেকে তারেক রহমান গত ৯ বছর ধরে লন্ডনে বসে শত কোটি টাকা ব্যয় করে পরিবার নিয়ে জীবনযাপন করছে। বিদেশের আদালতে মানি লন্ডারিং মামলায় তার ৭ বছর সাজা হয়েছিল। সেই তারেক রহমান লন্ডনে বাংলাদেশের দূতাবাসের উপর তার দস্যুবাহিনী দিয়ে হামলা করেছে।

যুক্তরাজ্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এই প্রমাণিত দুর্নীতিবাজ যার দ্বারা লন্ডনের দূতাবাসে হামলা হয়েছে। যার নেতৃত্বে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা হয়েছিল। সেই তারেক রহমানকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে দিন। এটা আজ বাংলাদেশের জনগণের দাবি।

 

ফসল রক্ষায় জমিতে সানি লিওনের পোস্টার
                                  

মানুষের কুনজর ও পাখি তাড়িয়ে ফসল নিরাপদ রাখতে সাধারণত কাকতাড়ুয়ার ব্যবহার দেখা যায়। খড় ও পাতিল দিয়ে মানুষের মাথার মতো কিছু একটা তৈরি করে কাকতাড়ুয়া বানানো হয়। কিন্তু মানুষের কুনজর থেকে ফসল রক্ষা করতে এবার অভিনব এক পন্থা অবলম্বন করেছেন ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের কৃষক চেঞ্চু রেড্ডি। তার জমির বাম্পার ফলন থেকে গ্রামবাসীর কুনজর সরাতে খেতের পাশে সানি লিওনের বিকিনি পরা পোস্টার টানিয়েছেন তিনি। খবর হিন্দুস্থান টাইমস।

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের নেল্লোর জেলার কৃষক চেঞ্চু রেড্ডির ১০ একর জামিতে এবার বাধাকপি ও ফুলকপির বাম্পার ফলন হয়েছে। তার এমন সাফল্যে গ্রামের অন্যান্য কৃষকরা তার প্রতি ক্ষুদ্ধ এবং তার ফসলের ক্ষতি করার চেষ্টা করেন। তাই তার ফসল রক্ষা করতে তিনি এ পদ্ধতির আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানান।

চেঞ্চু রেড্ডি হিন্দুস্থান টাইমসকে বলেন, ফসলে যাতে কুনজর না পড়ে সেজন্যই সানি লিওনের একটা বড়সড় পোস্টার দেওয়ার ভাবনাটা কয়েকদিন আগে মাথায় আসে। এই কৌশল কাজে দিয়েছে। লোকে এখন জমির ফসলের দিকে তাকাচ্ছে না।

ফসলের পাশে টানানো পোস্টারে রয়েছে লাল বিকিনি পরা সানি লিওনের ছবি। ছবির ওপর তেলগু ভাষায় লেখা- ‘ওরে, নান্নু চুসি এডাভাকুরা’। এর বাংলা অর্থ, ‘আমার জন্য কান্নাকাটি বা হিংসা করো না’।

এভাবে সানি লিওনের ছবি টানানোর ব্যাপারে কোনো আইনগত সমস্যা আছে কিনা এ ব্যাপারে কিছু জানেন না চেঞ্চু রেড্ডি।

উল্লেখ্য, ভারতের অন্যান্য প্রদেশের মতো অন্ধ্র প্রদেশের কৃষকদেরও নানা ধরনের কুসংস্কার রয়েছে। এজন্য বিভিন্ন ধরনের কৌশলও ব্যবহার করেন তারা। এবার সেই তালিকায় রেড্ডি যা যোগ করলেন তা হয়তো কেউ কোনোদিন ভাবেননি।

 

মালদ্বীপে ভারত হস্তক্ষেপ করলে বসে থাকবে না চীন : গ্লোবাল টাইমস
                                  

মালদ্বীপ সঙ্কটে সামরিক হস্তক্ষেপের দিকে অগ্রসর হলে ভারতকে থামানোর জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন।

মঙ্গলবার চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির মুখপত্র গ্লোবাল টাইমস এক প্রতিবেদনে বলছে, মালদ্বীপ পরিস্থিতিতে কিছু ভারতীয় নাগরিক সেনাবাহিনীর হস্তক্ষেপের কথা চিন্তা করছে।

গ্লোবাল টাইমস বলছে, এটি আন্তর্জাতিক সম্পর্কের নিয়মনীতির মৌলিক বিষয়সমূহের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়; যা স্বাধীনতা, আঞ্চলিক অখণ্ডতা এবং অন্যান্য রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্বসহ অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার নীতির প্রতিও শ্রদ্ধাশীল নয়।

‘মালদ্বীপ পরিস্থিতির অবনতি হলে তার সমাধান আন্তর্জাতিক প্রক্রিয়ায় করা উচিত। একতরফা সামরিক হস্তক্ষেপ ইতোমধ্যে বিদ্যমান বৈশ্বিক ব্যবস্থাকে বিপন্ন করে তুলেছে।’

চীনের রাষ্ট্রীয় এই দৈনিক বলছে, ‘১৯৮৮ সালে শ্রীলঙ্কার সশস্ত্র বাহিনী মালদ্বীপের সরকারবিরোধী একটি গোষ্ঠীকে সহায়তা করেছিল। ওই সময় সামরিক দাঙ্গায় হস্তক্ষেপ করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে ব্যর্থ হয় ভারত। তখন থেকেই মালদ্বীপে প্রভাব বিস্তার করছে নয়াদিল্লি।’

‘কিন্তু ২০১৩ সালে প্রেসিডেন্ট আবদুল্লা ইয়ামিন দায়িত্ব নেয়ার পর দেশটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, সৌদি আরব এবং পাকিস্তানের সঙ্গে ইতিবাচকভাবে সম্পর্ক এগিয়ে নিয়েছে; ধীরে ধীরে আরো স্বাধীন ও সুষম কূটনীতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশটি। এ বিষয়টি নিয়ে ভারত খুশি নয়।’

‘জাতিসংঘের অনুমতি ছাড়া মালদ্বীপে কোনো দেশের সামরিক বাহিনীর হস্তক্ষেপের উপযুক্ত কারণ নেই। মালদ্বীপের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে চীন হস্তক্ষেপ করবে না। কিন্তু তার অর্থ এই নয় যে, নয়াদিল্লি নীতি-নৈতিকতার লঙ্ঘন করলে বেইজিং অলসভাবে বসে থাকবে।’

গ্লোবাল টাইমস বলছে, ‘যদি ভারত একতরফা-ভাবে মালদ্বীপে সেনা পাঠায়, তাহলে নয়াদিল্লিকে থামানোর জন্য ব্যবস্থা নেবে চীন। একপাক্ষিক সেনা হস্তক্ষেপে চীন যে বিরোধীতা করে তা উপেক্ষা করা ঠিক হবে না ভারতের।’

ভারত মহাসাগরে অবস্থিত নৈসর্গিক দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপে সঙ্কটের শুরু হয় জানুয়ারির শেষের দিকে। দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদ-সহ ৯ রাজবন্দিকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার নির্দেশ দেয় মালদ্বীপের সুপ্রিম কোর্ট।

একই সঙ্গে ইয়ামিনের দলত্যাগী ১২ সাংসদকে স্বপদে পুনর্বহালের নির্দেশ দেয় শীর্ষ এই আদালত। আদালতের ওই রায়ের ফলে, ৮৫ আসন-বিশিষ্ট মালদ্বীপের সংসদে বিরোধীরা সংখ্যাগরিষ্ঠ হওয়ায় অভিশংসনের শঙ্কায় পড়েন প্রেসিডেন্ট আবদুল্লা ইয়ামিন।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মানা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন তিনি। সুপ্রিম কোর্ট-প্রেসিডেন্টের মুখোমুখি অবস্থানের কারণে ব্যাপক রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। সুপ্রিম কোর্টের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন। তিনিবলেন, সুপ্রিম কোর্ট এখতিয়ার-বহির্ভূত কাজ করছে।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে ১৫ দিনের জরুরি অবস্থা জারি করেন প্রেসিডেন্ট আবদুল্লা ইয়ামিন। একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি আবদুল্লা সাইদ, সাবেক প্রেসিডেন্ট মামুন আব্দুল গাইয়ুম ও অন্য এক বিচারককে গ্রেফতার করা হয়। পরে চাপের মুখে আগের নির্দেশ প্রত্যাহার করে নেন সুপ্রিম কোর্টের বাকি তিন বিচাররক।

 

সু চি-বরিস জনসনের সাক্ষাৎ, রোহিঙ্গা ফেরানোর আহ্বান
                                  

মিয়ানমারের ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রী বরিস জনসন। রোববার দেশটির রাজধানী নেইপিদোতে সু চির সঙ্গে সাক্ষাত করেন তিনি। এসময় রোহিঙ্গাদের নিরাপদে মিয়ানমারের ফেরার ব্যবস্থা করতে সু চির প্রতি আহ্বান জানান ব্রিটিশ এ মন্ত্রী।

এর আগে শনিবার রাজধানী ঢাকায় বাংলাদেশের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন বরিস জনসন। একই সঙ্গে সীমান্তের কক্সবাজার জেলায় আশ্রয় নেয়া মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করেন তিনি।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সামরিক অভিযানের মুখে গত আগস্টের শেষের দিকে বাংলাদেশে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে আসে।

বিবিসির রিতা চক্রবর্তী বলেছেন, মিয়ানমারে সু চির সঙ্গে সাক্ষাতের সময় দু`জনকেই হাস্যোজ্জ্বল দেখা গেছে। এসময় তারা দুজনই হ্যান্ডশেক করেন। তবে রোহিঙ্গাদের দুর্দশার বিষয়টি কঠিন হবে।

রোববার আরো পরের দিকে ব্রিটিশ এই পররাষ্ট্র মন্ত্রীকে রাখাইনে নেয়া হবে; যেখান থেকে রোহিঙ্গারা পালিয়েছে। এছাড়া রাখাইন অ্যাডভাইজরি কমিশনের চেয়ারম্যান সুরাকিয়ার্ট সাথিরাথির সঙ্গে সাক্ষাত করবেন তিনি।

কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনের পর বরিস জনসন বলেছেন, রোহিঙ্গাদের ভয়াবহ জীবন-যাপন পরিস্থিতি সঙ্কটের শক্তিশালী সমাধান খুঁজে বের করতে তাকে সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, এটা গুরুত্বপূর্ণ যে, পরিস্থিতি ঠিক হওয়া সাপেক্ষে আন্তর্জাতিক তত্ত্বাবধানে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন অবশ্যই স্বেচ্ছায়, নিরাপদ ও মর্যাদার সঙ্গে হতে হবে।

শনিবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর বরিস জনসন বলেন, রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে বাংলাদেশ এবং ব্রিটেন সরকারের অবস্থান একই রকম। মিয়ানমারের সরকারের কাছে সমস্যা সমাধানের উপায়গুলো তুলে ধরতে হবে।

গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে শুরু হওয়া দেশটির সেনাবাহিনীর রক্তাক্ত অভিযান, জ্বালাও-পোড়াওয়ে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়েছে। জাতিসংঘ মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এ অভিযানকে জাতিগত নিধনে পাঠ্যপুস্তকীয় উদাহরণের শামিল বলে চিহ্নিত করেছে। একই সঙ্গে গণহত্যার অভিযোগ আনা হলেও তা বরাবরই অস্বীকার করে দেশটি।

তবে গত ডিসেম্বরে সংখ্যালঘু ১০ রোহিঙ্গা মুসলিম হত্যায় দেশটির নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা জড়িত বলে প্রথমবারের মতো স্বীকার করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে গত বছরের নভেম্বরে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। সহিংসতায় বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফেরানোর লক্ষ্যে ডিসেম্বরে দুই দেশের কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হয়।

আগামী দুই বছরের মধ্যে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরাতে দুই দেশ ঐক্যমতে পৌঁছেছে। প্রতি সপ্তাহে মাত্র দেড় হাজার রোহিঙ্গাকে ফেরত নেয়ার কথা জানিয়েছে মিয়ানমার। আন্তর্জাতিক দাতাসংস্থাগুলো রোহিঙ্গা ফেরত নেয়ার এ সংখ্যাকে নগন্য উল্লেখ্য করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তবে বাংলাদেশ বলছে, দুই বছরের মধ্যে সব রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানোর লক্ষ্যে তারা চুক্তি করেছে।

এদিকে, রাখাইনে ফেরার পর সেখানে নিজেদের অধিকার ও সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগে রয়েছে রোহিঙ্গারাও। 
গত এক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো কোনো ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিসেবে বরিস জনসন বাংলাদেশ সফর করলেন। মিয়ানমার সফর শেষে থাইল্যান্ড সফরের কথা রয়েছে তার। সেখানে থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুত চ্যান ও চ্যার সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি।

সূত্র : বিবিসি।

 

গ্রেফতার-আটক বন্ধ করতে বললো হিউম্যান রাইটস ওয়াচ
                                  

বাংলাদেশকে ঢালাওভাবে বিরোধী দল বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার বন্ধ করতে বললো আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। এক বিবৃতিতে সংগঠনটি বলছে, বাংলাদেশের নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীকে আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা কার্যক্রম চালানোর নির্দেশ দেয়া উচিত বাংলাদেশের সরকারের।
বৃহস্পতিবার বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার রায়ের আগে সারাদেশে শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে এতিমদের জন্য পাঠানো ২ কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।
 
হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এশিয়ার পরিচালক ব্র্যাড অ্যাডামস এক বিবৃতিতে বলেন, বিরোধী দলকে আন্দোলনে বাধা দিয়ে মতপ্রকাশ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের অধিকার খর্ব করছে বাংলাদেশ সরকার। তিনি আরো বলেন, সব রাজনৈতিক দলের নেতাদেরই তাদের সমর্থকদের সহিংসতায় না জড়াতে সতর্ক করা উচিৎ। একইসঙ্গে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও ধৈর্যশীল থাকা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে, এর আগে বিরোধী দলের আন্দোলনের সময় অগ্নিকাণ্ড, হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে বাংলাদেশের নিরাপত্তারক্ষাকারী বাহিনী বিরোধী দলের সমর্থকদের গ্রেফতার ও হয়রানি করে। শতাধিক ব্যক্তিকে গুম করারও অভিযোগ আনা হয় নিরাপত্তারক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে। মানবাধিকার সংস্থা আইন ও সালিশ কেন্দ্র জানিয়েছে গত আটদিনে সারাদেশে ১৭৮৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
 
রায়কে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থকরা সহিংসতা ছড়াতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। শক্তি ও আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহারে জাতিসংঘের মৌলিক আইন মেনে চলার জন্য নিরাপত্তারক্ষাকারী বাহিনীকে সুষ্ঠ নির্দেশনা দেয়ার জন্য বাংলাদেশের সরকারকে আহ্বান জানানো হয়েছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের পক্ষ থেকে। বিরোধী দলের বিরুদ্ধে এমন অবস্থান নিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক সরকার হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের দাবীকে বিতর্কিত করছে বলে মনে করেন ব্র্যাড অ্যাডামস।

সূত্র: বিবিসি

গাড়ি দুর্ঘটনায় আহত মোদির স্ত্রী
                                  

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির স্ত্রী যশোদাবেন একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় আহত হওয়ায় তাকে চিত্তগড়ের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার সকালে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

ওই দুর্ঘটনায় বসন্তবাই মোদি নামে নরেন্দ্র মোদির এক আত্মীয় নিহত হয়েছেন। কোটার কাছাকাছি বারান জেলায় এক আত্মীয়র বাড়ি থেকে গুজরাটে ফিরছিলেন যশোদাবেন। কি কারণে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে তা এখনও পরিস্কার নয়।

পারসোলি পুলিশ স্টেশনে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা সিয়াম সিং জানিয়েছেন, যশোদাবেন দুর্ঘটনায় আহত হলেও তার আঘাত গুরুতর নয়।

 

তাইওয়ানে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ২
                                  

তাইওয়ানে শক্তিশালী ৬ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্পে কয়েকটি ভবন ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন দুই শতাধিক। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলোর নিচে অনেকে আটকা পড়েছেন।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত ১১টা ৫০ মিনিটে উপকূলীয় হুয়ালিয়েন শহরে এ ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটে। ইউএসজিএস বলছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠের মাত্র এক কিলোমিটার গভীরে।

ভেঙেপড়া হোটেল ও আবাসিক ভবনে আটকেপড়াদের উদ্ধার চেষ্টা চলছে। এ পর্যন্ত অন্তত ২৮ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

তাইওয়ান সরকার অন্তত দুজন নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছে। উদ্ধার তৎপরতায় সেনাবাহিনীকে ডাকা হয়েছে। রাজধানী তাইপেতেও এ কম্পন অনুভূত হয়।

 

অর্ডার আইফোন, পেলেন সাবান!
                                  

অনলাইনে কেনাকাটা এখন বেশ জনপ্রিয়। রাস্তায় জ্যামে পড়ার ঝনঝট নেই। নেই ভাড়া খরচের ভয়। আর অনেকের কাছে এটি নিরাপদও। তবে সম্প্রতি অনলাইন কেনাকাটা প্রতারণা শিকারও হচ্ছেন কেউ কেউ। তেমনই একজন হচ্ছেন ভারতের মুম্বাইয়ের তাবরেজ মেহাবুব নাগরালি। ২৬ বছর বয়সী তাবরেজ পেশায় একজন সফটওয়্যার প্রকৌশলী। তিনি অনলাইনে আইফোন-৮ এর অর্ডার দিয়েছিলেন। এর জন্য পরিশোধ করেছিলেন ৫৫ হাজার রুপিও। কিন্তু তাবরেজ আইফোনের বদলে পেয়েছেন আস্ত একটি সাবান। খবর এনডিটিভি, মুম্বাই মিররের।

২১ জানুয়ারি ফ্লিপকার্টে আইফোন-৮ এর অর্ডার দেন তাবরেজ। পরদিন বেলা সাড়ে তিনটার দিকে অফিসে প্যাকেজটি হাতে পান তিনি। 

তাবরেজ বলেন, ডেলিভারি বয় আমার ডিজিটাল সিগনেচার নিয়ে চলে যায়। আমি যখন প্যাকটি খুলি সেসময় আমার এক বন্ধু ও অফিসের চৌকিদার পাশেই ছিল। কিন্তু বাক্স খুলে আমি তো অবাক। কারণ সেখানে ফোনের বদলে রয়েছে গোলাপি রঙের একটি সাবান।

তবে এই ঘটনার পর তিনি ফ্লিপকার্টের ওয়েবসাইটে তাৎক্ষণিক কল করেন তিনি। কিন্তু তাদের কাছ থেকে তেমন সাড়া পাননি তাবরেজ। পরে তাবরেজ ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা ঠুকে দিয়েছেন। তাবরেজের ওই অভিযোগ পাওয়ার সত্যতাও নিশ্চিত করেছেন বাইকুল্লা পুলিশ স্টেশনের সিনিয়র ইন্সপেক্টর অভিনাশ সিংয়েট।

এদিকে ফ্লিপকার্টের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, তারা এ ঘটনার তদন্ত করছে। এ ধরনের ঘটনা ভারতে এবারই প্রথম নয়। এর আগে স্ন্যাপডিল ও অ্যামাজনের মতো ওয়েবসাইটে মোবাইল ফোন অর্ডার দিয়ে সাবান পাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

 

মালদ্বীপের পার্লামেন্ট দখল নিয়েছে সেনাবাহিনী
                                  

মালদ্বীপের পার্লামেন্ট ভবন সিলগালা করার পর দখলে নিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। একই সঙ্গে দেশটির বিরোধীদলীয় দুই সংসদ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দুর্নীতি ও সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে কারাবন্দি দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদসহ বেশ কয়েকজন বিরোধীদলীয় নেতাকে মুক্তি দিতে সুপ্রিম কোর্ট গত বৃহস্পতিবার আদেশ দেয়। সুপ্রিম কোর্টের এ আদেশ না মানায় বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লা ইয়ামিনকে অপসারণের চেষ্টা শুরু হয়েছে বলে রোববার মালদ্বীপের অ্যাটর্নি জেনারেল জানান।

সুপ্রিম কোর্টের ওই আদেশ ঘিরে দেশটিতে গভীর রাজনৈতিক সঙ্কট শুরু হয়েছে। সর্বোচ্চ আদালতের আদেশ বাস্তবায়নে দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপের অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যর্থ হয়েছেন বলে অভিযোগ এনে রোববার তার পদত্যাগের দাবিতে সংসদ সচিবালয়ে পিটিশন দিয়েছেন বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা।

এর পরপরই রাজধানী মালেতে অবস্থিত দেশটির পার্লামেন্ট ভবনের চারপাশে অবস্থান নেয় সেনাবাহিনীর দাঙ্গা ইউনিটের সদস্যরা।

৮৫ আসনবিশিষ্ট মালদ্বীপের পার্লামেন্টে বিরোধীদলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। গত বছর দেশটির ক্ষমতাসীন দল থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় পার্লামেন্টের ১২ সদস্যের পদ বাতিল করা হয়। পরে পুনরায় তাদের স্বপদে বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্ট।

প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লা ইয়ামিনকে অভিশংসনের জন্য সুপ্রিম কোর্ট চেষ্টা করছে বলে অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ অনিল অভিযোগ করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পার্লামেন্ট সিলগালা করে দিল দেশটির নিরাপত্তাবাহিনী।

রোববার স্থানীয় সময় সকালের দিকে মালদ্বীপের সেনাবাহিনী ও পুলিশপ্রধানের উপস্থিতিতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে কথা বলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ অনিল। তিনি বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্ট প্রেসিডেন্টকে অভিশংসনের আদেশ জারি করতে পারেন বলে আমরা খবর পেয়েছি। আমি সব আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে জানিয়েছি যে, এ ধরনের একটি অবৈধ আদেশ মানা উচিত হবে না তাদের।’

অ্যাটর্নি জেনারেল অনিল বলেন, রাজধানী মালেতে যে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে তিনি আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীকে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সেনাবাহিনীর প্রধান আহমেদ শিয়াম বলেন, মালদ্বীপ সঙ্কটে পড়বে আর তা দেখে বসে থাকবে না নিরাপত্তাবাহিনী।

তিনি বলেন, আমরা অ্যাটর্নি জেনারেল বৈধ আদেশ অনুস্মরণ করবো এবং বেআইনি কোনো নির্দেশ মানতে বাধ্য হবো না।

এদিকে, রোববার রাজধানী মালের বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর দেশটির বিরোধীদলীয় দুই সংসদ সদস্য আব্দুল্লা সিনান ও ইহাম আহমেদকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশের এক মুখপাত্র আলজাজিরাকে জানিয়েছেন। সুপ্রিম কোর্টের আদেশে পার্লামেন্টে হারানো পদ ফিরে পাওয়া ১২ সংসদ সদস্যের মধ্যে এ দুজনও ছিলেন।

সংসদ সচিবালয়ের প্রধান কর্মকর্তা আহমেদ মোহাম্মদ পদত্যাগ করেছেন। আলজাজিরাকে তিনি বলেন, আমি পদত্যাগ করেছি। তবে পদত্যাগের কারণ জানাননি তিনি।

 

‘কাতার আক্রমণ করতে চেয়েছিল সৌদি আমিরাত’
                                  

কাতারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খালিদ বিন মুহাম্মাদ আল-আতিয়া বলেছেন, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত তার দেশের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালানোর পরিকল্পনা করেছিল। গত বছর কাতারের সঙ্গে সৌদি নেতৃত্বাধীন কয়েকটি আরব দেশের কূটনৈতিক সংকট শুরুর প্রথম দিকে তারা এ পরিকল্পনা করে বলে জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে খালিদ বিন মুহাম্মাদ আল-আতিয়া বলেন, কাতারকে অস্থিতিশীল করার জন্য রিয়াদ ও আবুধাবি সব ধরনের চেষ্টা করেছে; কিন্তু আমরা তা ব্যর্থ করেছি। তারা আমাদের দেশের ভেতরে সামরিক হস্তক্ষেপেরও পরিকল্পনা করেছিল।

কাতারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, তারা বিভিন্ন উপজাতিকে উসকানি দেয়ার চেষ্টা করেছে। এ কাজে তারা আমাদের বিরুদ্ধে মসজিদকে ব্যবহার করেছে। এরপর তারা কিছু পুতুল ব্যক্তিকে আমাদের নেতাদের জায়গায় বসানোর চেষ্টা করে।

তিনি বলেন, কাতারের সাবেক আমিরের এক আত্মীয়কে ক্ষমতায় বাসানোর চেষ্টা করেছিল তারা তবে তাদের সে চেষ্টা সফল হয়নি। দেশের জনগণ তাদের আমিরকে ভালোবাসেন।

ইরানের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে জানতে চাইলে আল-আতিয়া ওয়াশিংটন পোস্টকে জানান, দোহা সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রক্ষা করে চলেছে।

 

ইরানে হিজাব না পরায় ২৯ নারী গ্রেফতার
                                  

ইরানে হিজাব না পরে রাস্তায় বের হওয়ায় ২৯ নারীকে গ্রেফতার করেছে তেহরান পুলিশ। দেশটিতে ১৯৭৯ সালে সংগঠিত ইসলামী বিপ্লবের পর থেকে নারীদের ধর্মীয় অনুশাসন মেনে কাপড়-চোপড় পরার বিধান রয়েছে।

একাধিক ইরানি গণমাধ্যম সূত্র শুক্রবার জানিয়েছে, গ্রেফতারকৃত নারীদের বিরুদ্ধে নাগরিক শৃঙ্খলা ভঙ্গজনিত অপরাধের অভিযোগ এনে রাষ্ট্রীয় কৌঁসুলির দফতরে পাঠানো হয়েছে।

প্রধান কৌঁসুলি মোহাম্মদ জাফর মনতাজেরি একে তুচ্ছ ঘটনা হিসেবে উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, এ ধরনের প্রতিবাদ ‘তুচ্ছ’ এবং ‘শিশুসুলভ’ আচরণ। তিনি বলেন, হিজাব পরিধানের বিধানকে প্রকাশে অবজ্ঞা করার পেছনে অবশ্যই বিদেশিদের প্ররোচনা রয়েছে।

ব্যস্ত সড়কে হিজাব ছাড়া দাঁড়িয়ে এ বিধানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো ১১ জন নারীর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরে ফিরে আসছে। বুধবার টুইটারে শেয়ার হওয়া দুইটি ছবিতে দেখা যায়, ঐতিহ্যবাহী কালো চাদরের গাউন পরা নারীরা পরিধেয় কাপড়ের বিষয়ে বিদ্যমান আইনের প্রতিবাদ জানাচ্ছেন।

এক নারীর হাতে থাকা প্ল্যাকার্ডে লিখা ছিল, আমি হিজাব পরতে ভালোবাসি, কিন্তু আমি এর বাধ্যবাধকতার বিরুদ্ধে।

নারী অধিকার কর্মী ও ইউনিয়ন অব ইসলামিক ইরানিয়ান পিপল পার্টির সদস্য আজহার মানসুরি বলেন, গত কয়েক দশকে নারীদের পরিধেয় কাপড়-চোপড়ের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপের উদ্যোগ ব্যর্থ হয়েছে।

পরিধেয় কাপড়ের বিষয়ে নারীরা অনেক দিন ধরেই ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছেন বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যায়। এ নিয়ে তারা রাস্তায়ও নেমে এসেছেন বিভিন্ন সময়।

একজন আইনজীবির বরাত দিয়ে এএফপি জানিয়েছে, হিজাব পরার বিধান লঙ্ঘনের অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া একজন নারী গত মঙ্গলবার এক লাখ ডলারের বেশি অর্থ মুচলেকা দিয়ে জামিন পেয়েছেন।

 

স্ত্রীকে হত্যার পর পাক মন্ত্রীর আত্মহত্যা
                                  

পাকিস্তানে স্ত্রীকে হত্যার পর এক মন্ত্রী আত্মহত্যা করেছেন। নিজ বাড়িতে প্রাদেশিক মন্ত্রী মির হাজার খান বিজারানি এবং তার স্ত্রী ফারিহা রাজাকের মরদেহ পাওয়া গেছে। পুলিশ জানিয়েছে, একই অস্ত্র দিয়ে নিজের স্ত্রীকে গুলি করে হত্যার পর নিজেও আত্মহত্যা করেছেন মির হাজার খান। খবর জিও নিউজ।

বৃহস্পতিবার করাচিতে নিজ বাড়ি থেকে ওই মন্ত্রী এবং তার স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। জিও নিউজের এক খবরে বলা হয়েছে, পুলিশের ধারণা নিজেদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদকে কেন্দ্র করেই হত্যা এবং আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রাথমিক তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া সবগুলো বুলেট একই অস্ত্রের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটি গুলির আঘাতে মন্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে তার স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে তিনটি গুলির আঘাতে।

মির হাজার খান বিজারানি পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতা এবং তিনি সিন্ধ প্রদেশের পরিকল্পনা এবং উন্নয়ন মন্ত্রী ছিলেন। তার স্ত্রী ছিলেন সাংবাদিক।

 


   Page 1 of 2
     আন্তর্জাতিক
সিরীয় বাহিনীর বিমান হামলায় ২০ শিশুসহ নিহত ৭৭
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শিশু জয়নবের ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ড
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সুইফটের নেটওয়ার্কে হ্যাকারদের হানা, রাশিয়ার ৬০ লাখ ডলার লুট
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
৭ মিনিটে ১৭ জনকে গুলি করে হত্যা!
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দূতাবাসে হামলা : ব্রিটিশ সরকারের দিকে তাকিয়ে আওয়ামী লীগ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ফসল রক্ষায় জমিতে সানি লিওনের পোস্টার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মালদ্বীপে ভারত হস্তক্ষেপ করলে বসে থাকবে না চীন : গ্লোবাল টাইমস
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সু চি-বরিস জনসনের সাক্ষাৎ, রোহিঙ্গা ফেরানোর আহ্বান
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
গ্রেফতার-আটক বন্ধ করতে বললো হিউম্যান রাইটস ওয়াচ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
গাড়ি দুর্ঘটনায় আহত মোদির স্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
তাইওয়ানে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ২
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
অর্ডার আইফোন, পেলেন সাবান!
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মালদ্বীপের পার্লামেন্ট দখল নিয়েছে সেনাবাহিনী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘কাতার আক্রমণ করতে চেয়েছিল সৌদি আমিরাত’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ইরানে হিজাব না পরায় ২৯ নারী গ্রেফতার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
স্ত্রীকে হত্যার পর পাক মন্ত্রীর আত্মহত্যা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
লন্ডনে মসজিদে হামলায় বাংলাদেশি খুন, ব্রিটিশের যাবজ্জীবন দণ্ড
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বিশ্বের প্রথম মহাকাশ হাসপাতাল বানাচ্ছে আরব আমিরাত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......