-
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
খুলনার শীর্ষ সন্ত্রাসী সোহেল বিশ্বাসের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ
খুলনার শীর্ষ সন্ত্রাসীদের গডফাদার আঃ গফফার বিশ্বাস এর খুনী, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ পুত্র সোহেল বিশ্বাস বাহিনী এর অত্যাচার হতে বাাঁচতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশনের আয়োজনে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। জানাগেছে- সন্ত্রাসী সোহেল বিশ্বাস বাহিনী কর্তৃক হয়রানীর স্বীকার আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন খুলনা বিভাগীয় পরিচালক ও প্রাইম পলিটেকনিক ইনিষ্টিটিউট এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোঃ মাসুদুর রহমান প্রতিবেদককে বলেন- সন্ত্রাসী  সোহেল বিশ্বাস বাহিনী ৫০ লক্ষ টাকা চাঁদার দাবীতে বিভিন্ন কৌশলে হুমকী, মানসিক নির্যাতন, তার প্রতিষ্ঠিত কলেজ জবর-দখল, জমি দখল, প্রান-নাশের হুমকী সহ বিভিন্নভাবে হয়রানী করে আসছে এবং তার সহযোগী সন্ত্রাসী স্ব-ঘোষীত অধ্যক্ষ আল মাসুম খান, লাবলু, জাহাঙ্গীর, সবুজ, মিন্টু ওরফে ড্রাইভার মিন্টু সহ সন্ত্রাসীদের দিয়ে গত ইং ২৪/০৪/২০১৬ তারিখে মোঃ মাসুদুর রহমানের খুলনাস্থ ভাড়াকৃত বাসভবনের তালা ভেঙে প্রকাশ্যে আসবাবপত্র সহ সমুদয় মালামাল আনুমানিক প্রায় ২০ লক্ষ টাকার মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায় এবং বর্তমানে তার বাহিনির এই সকল সন্ত্রাসীদের দিয়ে মোঃ মাসুদুর রহমানের খুলনাস্থ ১০২/২, খালিশপুরে অবস্থিত প্রাইম ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি নামক প্রতিষ্ঠানটির দখল করে নিয়েছে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটারসহ মূল্যবান মালামাল সরিয়ে নিয়েছে এবং ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিদিনের জমাকৃত টাকা কলেজের হিসাব বিভাগ থেকে জোর পূর্বক নিয়ে যাচ্ছে ও সেখানে কর্মরত কর্মচারীদের তাড়িয়ে দিয়েছে। ইতিমধ্যে সে বিভিন্ন সময় ২৫-৩০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সর্বশেষ গত ইং ০৭/০১/২০১৬ তারিখে ৩০০ টাকার ষ্ট্যাপএ ভবিষ্যতে চাঁদার টাকা না নেওয়া মর্মে মুচকেলার মাধ্যমে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। এই চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী পারে না এমন কোন কাজ নেই। সে গত বছরে তার ৩য় স্ত্রী সারাহ্ তন্বীকে হত্যা করে। এ নিয়ে জাষ্টিস ফর সারাহ্ তন্বী নামে ফেসবুক এ একটি পেজ রয়েছে। এই সন্ত্রাসী বাহিনীর প্রভাবে বর্তমানে নিরাপত্তার কারনে তিনি তার পরিবার নিয়ে পালিয়ে বেরাচ্ছে। এ বিষয়ে গতকাল আর্ন্তজাতিক মানবাধিকার সংস্থা আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কার্যালয় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছে। মানববন্ধনে উপস্থিত নেতৃবৃন্দ এদের মত সন্ত্রাসী, খুনী, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম ও প্রতিবাদ চালিয়ে যাবেন বলে সাংবাদিকদের কাছে মতবাদ ব্যক্ত করেন। উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন-ভুক্তভোগী মোঃ মাসুদুর রহমান, আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ সহ সকল পেশার লোকজন। মানবন্ধনে উপস্থিত সকলে এই খুনী ও সন্ত্রাসী বাহিনীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সকল আইন শৃংখলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্শন করে এদের শাস্তি দাবী করেন।  


খুলনার শীর্ষ সন্ত্রাসী সোহেল বিশ্বাসের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান
                                  

নিজস্ব সংবাদদাতা ঃ
খুলনার শীর্ষ সন্ত্রাসীদের গডফাদার আঃ গফফার বিশ্বাস এর খুনী, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ পুত্র সোহেল বিশ্বাস বাহিনী এর অত্যাচার হতে বাাঁচতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশনের আয়োজনে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। জানাগেছে- সন্ত্রাসী সোহেল বিশ্বাস বাহিনী কর্তৃক হয়রানীর স্বীকার আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন খুলনা বিভাগীয় পরিচালক ও প্রাইম পলিটেকনিক ইনিষ্টিটিউট এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোঃ মাসুদুর রহমান প্রতিবেদককে বলেন- সন্ত্রাসী  সোহেল বিশ্বাস বাহিনী ৫০ লক্ষ টাকা চাঁদার দাবীতে বিভিন্ন কৌশলে হুমকী, মানসিক নির্যাতন, তার প্রতিষ্ঠিত কলেজ জবর-দখল, জমি দখল, প্রান-নাশের হুমকী সহ বিভিন্নভাবে হয়রানী করে আসছে এবং তার সহযোগী সন্ত্রাসী স্ব-ঘোষীত অধ্যক্ষ আল মাসুম খান, লাবলু, জাহাঙ্গীর, সবুজ, মিন্টু ওরফে ড্রাইভার মিন্টু সহ সন্ত্রাসীদের দিয়ে গত ইং ২৪/০৪/২০১৬ তারিখে মোঃ মাসুদুর রহমানের খুলনাস্থ ভাড়াকৃত বাসভবনের তালা ভেঙে প্রকাশ্যে আসবাবপত্র সহ সমুদয় মালামাল আনুমানিক প্রায় ২০ লক্ষ টাকার মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায় এবং বর্তমানে তার বাহিনির এই সকল সন্ত্রাসীদের দিয়ে মোঃ মাসুদুর রহমানের খুলনাস্থ ১০২/২, খালিশপুরে অবস্থিত প্রাইম ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি নামক প্রতিষ্ঠানটির দখল করে নিয়েছে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটারসহ মূল্যবান মালামাল সরিয়ে নিয়েছে এবং ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিদিনের জমাকৃত টাকা কলেজের হিসাব বিভাগ থেকে জোর পূর্বক নিয়ে যাচ্ছে ও সেখানে কর্মরত কর্মচারীদের তাড়িয়ে দিয়েছে। ইতিমধ্যে সে বিভিন্ন সময় ২৫-৩০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সর্বশেষ গত ইং ০৭/০১/২০১৬ তারিখে ৩০০ টাকার ষ্ট্যাপএ ভবিষ্যতে চাঁদার টাকা না নেওয়া মর্মে মুচকেলার মাধ্যমে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। এই চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী পারে না এমন কোন কাজ নেই। সে গত বছরে তার ৩য় স্ত্রী সারাহ্ তন্বীকে হত্যা করে। এ নিয়ে জাষ্টিস ফর সারাহ্ তন্বী নামে ফেসবুক এ একটি পেজ রয়েছে। এই সন্ত্রাসী বাহিনীর প্রভাবে বর্তমানে নিরাপত্তার কারনে তিনি তার পরিবার নিয়ে পালিয়ে বেরাচ্ছে। এ বিষয়ে গতকাল আর্ন্তজাতিক মানবাধিকার সংস্থা আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কার্যালয় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছে। মানববন্ধনে উপস্থিত নেতৃবৃন্দ এদের মত সন্ত্রাসী, খুনী, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম ও প্রতিবাদ চালিয়ে যাবেন বলে সাংবাদিকদের কাছে মতবাদ ব্যক্ত করেন। উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন-ভুক্তভোগী মোঃ মাসুদুর রহমান, আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ সহ সকল পেশার লোকজন। মানবন্ধনে উপস্থিত সকলে এই খুনী ও সন্ত্রাসী বাহিনীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সকল আইন শৃংখলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্শন করে এদের শাস্তি দাবী করেন।  

   Page 1 of 1