জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্যারিসের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী

জলবায়ু বিষয়ক ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে যোগ দিতে প্যারিসের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার সকাল সোয়া ১০টার পর এমিরেটসের একটি ফ্লাইটে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা।

সফরকালে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রোনের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা রয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিতব্য ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে বক্তব্য রাখবেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট, বিশ্বব্যাংক গ্রুপের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম এবং জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। এ সামিটে বৈশ্বিক প্রতিবেশগত জরুরি অবস্থা মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাবেন বিশ্বনেতারা।

ঐতিহাসিক প্যারিস চুক্তির দুই বছর পর এখন দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি বলেও মনে করেন আয়োজকরা। সরকারি-বেসরকারি অর্থায়নে কীভাবে সৃষ্টিশীল ও সর্বজনগ্রাহ্য পদ্ধতি ব্যবহার করে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলা করা যায়, সেদিকেই গুরুত্ব দেওয়া হবে এবারের সামিটে।

দুবাইয়ে দেড় ঘণ্টা যাত্রাবিরতির পর স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় প্যারিসে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর এ সফরের বিষয়ে রোববার সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ সঙ্গে আনুষ্ঠানিক দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক করবেন। বৈঠকে চলমান রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বৃদ্ধি, দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দ্বি-পাক্ষিক সহযোগিতা, নিয়মিত কূটনৈতিক আলোচনা অনুষ্ঠান, সমুদ্র অর্থনীতিতে পারস্পরিক সহযোগিতা এবং বঙ্গবন্ধু স্যাটালাইট উৎক্ষেপণ সহযোগিতাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।

২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক সম্মেলনের ২১তম অধিবেশনে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি গৃহীত হয়। ওই চুক্তির দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত ওয়ান প্ল্যানেট সম্মেলনে বিশ্ব নেতারা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নির্ধারণ এবং তা অর্জনে উদ্ভাবনী ও বাস্তবায়নযোগ্য উদ্যোগ গ্রহণের বিষয়ে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হবে। সম্মেলনের হাই লেভেল সেগমেন্টে প্রধানমন্ত্রীসহ আমন্ত্রিত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানগণ অংশগ্রহণ করবেন।

প্যারিসের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

জলবায়ু বিষয়ক ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে যোগ দিতে প্যারিসের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার সকাল সোয়া ১০টার পর এমিরেটসের একটি ফ্লাইটে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা।

সফরকালে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রোনের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা রয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিতব্য ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে বক্তব্য রাখবেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট, বিশ্বব্যাংক গ্রুপের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম এবং জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। এ সামিটে বৈশ্বিক প্রতিবেশগত জরুরি অবস্থা মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাবেন বিশ্বনেতারা।

ঐতিহাসিক প্যারিস চুক্তির দুই বছর পর এখন দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি বলেও মনে করেন আয়োজকরা। সরকারি-বেসরকারি অর্থায়নে কীভাবে সৃষ্টিশীল ও সর্বজনগ্রাহ্য পদ্ধতি ব্যবহার করে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলা করা যায়, সেদিকেই গুরুত্ব দেওয়া হবে এবারের সামিটে।

দুবাইয়ে দেড় ঘণ্টা যাত্রাবিরতির পর স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় প্যারিসে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর এ সফরের বিষয়ে রোববার সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ সঙ্গে আনুষ্ঠানিক দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক করবেন। বৈঠকে চলমান রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বৃদ্ধি, দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দ্বি-পাক্ষিক সহযোগিতা, নিয়মিত কূটনৈতিক আলোচনা অনুষ্ঠান, সমুদ্র অর্থনীতিতে পারস্পরিক সহযোগিতা এবং বঙ্গবন্ধু স্যাটালাইট উৎক্ষেপণ সহযোগিতাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।

২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক সম্মেলনের ২১তম অধিবেশনে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি গৃহীত হয়। ওই চুক্তির দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত ওয়ান প্ল্যানেট সম্মেলনে বিশ্ব নেতারা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নির্ধারণ এবং তা অর্জনে উদ্ভাবনী ও বাস্তবায়নযোগ্য উদ্যোগ গ্রহণের বিষয়ে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হবে। সম্মেলনের হাই লেভেল সেগমেন্টে প্রধানমন্ত্রীসহ আমন্ত্রিত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানগণ অংশগ্রহণ করবেন।

সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে চাকরি
                                  

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

আবেদনের যোগ্যতা : প্রার্থীকে কমপক্ষে এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় জিপিএ ৩.০০ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ মহিলা প্রার্থীদের অগ্রগণ্যতা দেওয়া হবে। 

আবেদনের তারিখ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৬ হতে ০৬ জানুয়ারি ২০১৮ইং তারিখ পর্যন্ত। 

 

বৃষ্টি কমবে সোমবার, রাতে বাড়বে শীতের প্রকোপ
                                  

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) থেকে সমুদ্রবন্দরের তিন সতর্কতা সংকেতও নামিয়ে ফেলা হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অফিস। নিম্নচাপের প্রভাব কেটে যাওয়ায় সোমবার থেকে বৃষ্টির দাপটও কমবে। এরপর মেঘমুক্ত আকাশ থাকলে ধীরে ধীরে রাতের তাপমাত্রাও কমতে থাকবে। মাসের শেষার্ধে গিয়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচেও নামবে অনেক এলাকায়। এসময় বয়ে যেতে পারে শৈত্যপ্রবাহ।

নিম্নচাপের প্রভাবে গত দুই দিন ধরে (শনি ও রোববার) রাজধানীসহ দেশের অধিকাংশ এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হয়েছে। নিম্নচাপটি দুর্বল হয়ে এখন সুস্পষ্ট লঘুচাপ হিসাবে অবস্থান করছে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তরপূর্ব বঙ্গোপসাগর এলাকায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় ১৫ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড হয়েছে। এসময় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে চাঁদপুরে ৬২ মিলিমিটার। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, সুস্পষ্ট লঘুচাপটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে যেতে পারে। সুস্পষ্ট লঘুচাপটির প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়ার শঙ্কায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এ সময় উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সোমবার এ সতর্কতা সংকেতও নামিয়ে ফেলা হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

জানতে চাইলে আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, নিম্নচাপ কেটে গেছে, মেঘাচ্ছন্ন আকাশও পরিষ্কার হবে সোমবার থেকে। চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, চাঁদপুর ছাড়া সর্বত্র মেঘমুক্ত আবহাওয়া থাকতে পারে; বৃষ্টির প্রবণতাও কমবে। জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় শীতের অনুভূত ছিল দুইদিন। তবে কয়েকদিন পর থেকে রাতে শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে। তিনি জানান, তাপমাত্রা কমতে থাকায় মাসের দ্বিতীয়ার্ধে কিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহও বিরাজ করবে।

সোমবারের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, রাজশাহী বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর বিভাগের দুয়েক জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। সেইসাথে খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, সিলেট ও ঢাকা বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে ।

দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসের বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, এ মাসের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু (৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বা মাঝারি (৬-৮ ডিগ্রি সেলসিয়সাস) শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে। জানুয়ারি মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে একটি মাঝারি (৬-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) অথবা তীব্র (৪-৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস) শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এ সময় অন্যান্য জায়গায় এক থেকে দুটি মৃদু অথবা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। তবে সার্বিকভাবে জানুয়ারি মাসের গড় তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ ডিগ্রি সেলসিয়সি বেশি থাকতে পারে।

শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক উদ্বোধন
                                  

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যশোরে নির্মিত শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্কের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার দুপুরে গণভবন থেকে তিনি এ উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য করেছেন, বিএনপি সাবমেরিন ক্যাবল, ব্রডব্যান্ড সংযোগ ও প্রযুক্তির বিকাশে ঘোরবিরোধী ছিল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা সৃষ্টি করে তারা ধ্বংস করতে পারে না। তাই আওয়ামী লীগ সবসময় উন্নয়ন করে ও অগ্রগতির কথাভাবে। আর বিএনপি-জামায়াত ধ্বংসের রাজনীতি করে।

শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি ক্ষমতা দখল ও ভোগ বিলাসে ব্যস্ত ছিল। ১৯৯৬ সালে আমরা ক্ষমতায় এসে জনগণকে প্রযুক্তির সেবায় এগিয়ে নেয়ার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। নতুন প্রজন্মকে প্রযুক্তি জ্ঞান নির্ভর করে তোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল। এবার ২০০৯ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ শুরু করেছি। এখন আর কেউ ডিজিটাল নিয়ে ব্যঙ্গ করতে পারে না। ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন সম্ভব হবে। সেই লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছে 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের তরুণদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে। শুধু যশোর নয়, ওই অঞ্চলের ১৩ জেলার তরুণ-তরুণীদের কর্মসংস্থানের নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হলো। এতে মেধা ও জ্ঞান নির্ভর অর্থনৈতির চাকা সচল হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন দেশকে অর্থনৈতিকভাবে সাবলম্বী করার চেষ্টা করছিলেন, তখন তাকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়। আমি পিতা, মাতা ভাই হারিয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ হারিয়েছে তার সম্ভাবনা ও ভবিষ্যত। যে আশা আকাঙ্ক্ষা স্বাধীনতার ৪৬ বছরের মধ্যে ২৯ বছর হেলায় হারিয়েছি। হত্যা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে যারা ক্ষমতা দখল করেছিল। তারা স্বাধীনতা বিরোধীদের ক্ষমতা বসিয়েছিল। তাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অনেক সুযোগ সুবিধা দেয়া হয়েছিল। বহুদলীয় গণতন্ত্রের নামে তারা দেশে যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতির সুযোগ দিয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে তাদের কোনো অবদান ছিল না। তারা অবদান রাখতে পারে নাই। রাখতে চায় নাই। তারা চেয়েছিল বাংলাদেশ একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে। কিন্তু জনগণ সেই সুযোগ দেয়নি।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ১৯৯৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গাজীপুরের কালিয়াকৈরে হাইটেক পার্ক স্থাপনের উদ্যোগ নেয়। বিশাল জায়গাও নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে ২০০১ সালে সরকার পরিবর্তন হয়। বিএনপি ক্ষমতায় আসে। তারা আর উদ্যোগ নেয়নি। তারা যে নির্ধারিত জায়গায় দখল করে হাউজিং করেনি, এজন্য শুকরিয়া।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর পাশে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

অপরদিকে যশোর থেকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন শেখ হাসিনা সফটওয়ার টেকনোলজি পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, যশোর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শিরিনা খাতুন, সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী নাজিফা তাসনিম শেফা, যশোর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ছাত্র ধীমান আল হামিদ, আইটি প্রফেশনাল অনএয়ার ইন্টারন্যাশনাল সিইও শাহীন আজাদ, আমরা নেটওয়ার্কের এমডি সৈয়দ ফরহাদ আহমেদ।

jagonews24

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন যশোর-২ আসনের এমপি মনিরুল ইসলাম, যশোর-৩ আসনের এমপি কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর-৪ আসনের এমপি রণজিৎ কুমার রায়, যশোর-৫ আসনের এমপি স্বপন ভট্টাচার্য্য, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের প্রকল্প পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

২০১০ সালের ২৭ ডিসেম্বর যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোরে একটি বিশ্বমানের আইটি পার্ক স্থাপনের ঘোষণা দেন। সেই অনুযায়ী ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে যশোরের বেজপাড়া শংকরপুর এলাকায় এ আইটি পার্কের নির্মাণ কাজ শুরু হয়। মোট জায়গার পরিমাণ দুই লাখ ৩২ হাজার বর্গফুট। ৩০৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই হাইটেক পার্কে আধুনিক সকল সুযোগ-সুবিধাসহ রয়েছে ১৫তলা বিশিষ্ট এমটিবি ভবন, ১২তলা বিশিষ্ট ফাইভ স্টার মানের ডরমেটরি ভবন, অত্যাধুনিক কনভেনশন সেন্টারের সঙ্গে আন্ডারগ্রাউন্ড পার্কিং।

জাপানি উদ্যোক্তাদের চাহিদা অনুযায়ী ডরমেটরি ভবনের ১১ তলার পুরোটাতে আন্তর্জাতিকমানের জিম স্থাপন করা হয়েছে। আর সব বিল্ডিং নির্মাণ করা হয়েছে ভূমিকম্প প্রতিরোধক কম্পোজিট (স্টিল ও কংক্রিট) কাঠামোতে।

এছাড়া প্রতিটি ফ্লোরে ১৪ হাজার বর্গফুটের জায়গা রয়েছে। এতে থাকছে ৩৩ কেভিএ পাওয়ার সাব-স্টেশন, ফাইবার অপটিক ইন্টারনেট লাইন এবং অন্যান্য ইউটিলিটি সার্ভিসের সুবিধা।

‘বেগম রোকেয়ার জন্যই আমরা এগিয়ে যেতে পেরেছি’
                                  

বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন ছিলেন উপমহাদেশের নারী জাগরণের অগ্রদূত বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বেগম রোকেয়া পদক ২০১৭ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি রোকেয়া পদকপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানান।  
শেখ হাসিনা আরো বলেন, তিনি আমাদের জন্য নতুন দিগন্তের উন্মোচন করে দিয়েছিলেন। তার জন্যই আজ আমরা এগিয়ে যেতে পেরেছি।

আজও বেগম রোকেয়ার পরিবারের সাড়ে ৩শ’ বিঘা জমি বেদখল
                                  

বাঙালি নারী জাগরণের অগ্রদূত মহিয়সী নারী বেগম রোকেয়ার জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ১৮৮০ সালের আজকের এ দিনে রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দের খোর্দ্দ মুরাদপুর গ্রামের এক সভ্রান্ত জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহন করেন এবং ১৯৩২ সালের আজকের এ দিনেই মারা যান তিনি।
বছরের পর বছর ধরে বেশ ঘটা করেই এই দিনটিতে বেগম রোকেয়াকে স্বরণ করা হলেও তাঁর আদর্শ, কর্ম ও জীবন সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে জানানোর পাশাপাশি স্মৃতি ও অবদান স্মরণীয় করে রাখতে জন্মভূমিতে গড়ে ওঠা স্মৃতি কেন্দ্রের কার্যক্রম আজও চালু হয়নি। সেই সাথে বেগম রোকেয়ার পরিবারের বেহাত হয়ে যাওয়া প্রায় সাড়ে ৩শ’ বিঘা জমি উদ্ধারসহ রোকেয়ার মরদেহ বাস্তুভিটায় সমাহিত করার দাবিও পূরণ হয়নি আজ অবদি।

 

বিশিষ্ট রোকেয়া গবেষক ও বেগম রোকেয়া স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম দুলাল  জানান, বেগম রোকেয়া তাঁর নিজের লেখা প্রবন্ধ নার্সনেলিতে লিখেছেন, “আমাদের এই অরণ্য বেষ্টিত বাড়ির তুলনা কোথায়, সাড়ে ৩শ’ বিঘা লাখেরাজ সম্পত্তির উপর আমাদের সুবৃহৎ বসতবাড়ি।” অথচ তাঁর পরিবারের বিশাল সম্পত্তির মধ্যে বর্তমানে ৩৩ শতক (৫০ শতকে এক বিঘা) জমির উপর ডাকবাংলা, ৩০ শতক জমির উপর স্মৃতি ফলক, ৩ দশমিক ১৫ একর জমি নিয়ে স্মৃতি কেন্দ্র, ১ একর জমিতে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র, ৪৮ শতক জমির উপর বেগম রোকেয়া মেমোরিয়াল প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৫৮ শতক জমিতে বেগম রোকেয়া মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ৬৬ শতক জমির উপর বেগম রোকেয়া মেমোরিয়াল ডিগ্রী মহাবিদ্যালয় এবং ৫৮ শতক জমিতে কুঠির শিল্প প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ছাড়া অন্য সব জমি বেদখল হয়ে আছে।
রফিকুল ইসলাম দুলাল বলেন, বেগম রোকেয়ার পরিবারের বেহাত হওয়া সম্পত্তিগুলো দেশের সম্পদ। সম্পদগুলো উদ্ধারে ২০১২ সালে হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান মনজিল মোরসেদ এবং তিনি নিজেই বাদি হয়ে আদালতে মামলা করেছেন। যা উচ্চ আদালতে বিচারাধীন।
বেগম রোকেয়ার ভাই মসিহুজ্জামান সাবেরের মেয়ে পায়রাবন্দ বেগম রোকেয়া মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষিকা রণজিনা সাবের  বলেন, রোকেয়ার পরিবারের ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রায় সাড়ে ৩শ বিঘা জমি বেহাত হয়ে গেছে। জমি উদ্ধারসহ বেগম রোকেয়ার মরদেহ তার জন্মস্থানে সমাহিত করতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান তিনি।
এদিকে, ২০০১ সালে তৎকালীন ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে বেগম রোকেয়া স্মৃতি কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেও নানা জটিলতায় আটকে আছে এর কার্যক্রম। ফলে রোকেয়ার প্রকৃত ইতিহাস জানতে পারছে না নতুন প্রজন্ম। বেগম রোকেয়ার প্রকৃত ইতিহাস ও কর্মময় জীবনী নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে স্মৃতি কেন্দ্রের কার্যক্রম চালু করার দাবি উঠেছে সর্বত্র।
বেগম রোকেয়া স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম দুলাল জানান, রোকেয়ার জন্মভূমি রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দে গড়ে ওঠা স্মৃতি কেন্দ্রের কার্যক্রম আজও চালু না হওয়ায় ক্ষোভ আর হতাশা বিরাজ করছে স্থানীয়দের মাঝে। নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে তিনজন গত জুন থেকে বেতন পেলেও অন্যরা মানবেতর জীবন পাড়ি দিচ্ছেন। রোকেয়ার প্রকৃত ইতিহাস ও জীবনী নতুন প্রজন্মকে জানাতে স্মৃতি কেন্দ্রের কার্যক্রম দ্রæত চালু করার দাবি জানান তিনি।
বেগম রোকেয়া স্মৃতি কেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, নারী জাগরণের পথিকৃত বেগম রোকেয়ার চিন্তা ও চেতনাকে জাগ্রত করতে ১৯৯৭ সালের ২৮ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেগম রোকেয়া স্মৃতি কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেন। ৩ দশমিক ১৫ একর জমিতে প্রায় পৌণে চার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় স্মৃতি কেন্দ্রের। যা ২০০১ সালের ১ জুলাই উদ্বোধন করার পর রোকেয়া স্মৃতিকেন্দ্র শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় উপ-পরিচালকসহ ১৩ জন কর্মকর্তা কর্মচারীকে নিয়োগ প্রদান করা হয়। এটি সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অধীন একটি প্রকল্প ছিল, যা বাংলা একাডেমি দ্বারা পরিচালিত হতো। প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ২০০৪ সালের ৫ অক্টোবর স্মৃতিকেন্দ্রটি বন্ধ হয়ে গেলে একই বছর এটি মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে চলে যায়।
দুই বছর চলতে না চলতেই তৎকালীন তত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ফের বন্ধ হয়ে যায় স্মৃতি কেন্দ্রটি । ফলে ভেস্তে যায় রোকেয়ার জীবন কর্ম সম্পর্কে গবেষণা, তার গ্রন্থাবলীর অনুবাদ, সংস্কৃতি চর্চা। বেতন ভাতা না পেয়ে শুরু হয় নিয়োগকৃত কর্মকর্তা কর্মচারীদের মানবেতর জীবন যাপন।
এরই মধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়া স্মৃতি কেন্দ্রে শুরু হয় বিকেএমই’র পোশাক শ্রমিক তৈরীর প্রশিক্ষণ কার্যক্রম। ২০০৮ সালে পোশাক শ্রমিক তৈরীর প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তৎকালীন সেনা প্রধান মঈন-উ-আহমেদ। পরে বেগম রোকেয়ার স্মৃতি রক্ষার্থে গড়ে তোলা স্মৃতি কেন্দ্রের মূল লক্ষ্য উদ্দেশ্য ব্যাহত করে সেখানে বিকেএমইএ এর প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বন্ধ এবং উচ্ছেদ করার জন্য হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ ২০১২ সালের ২২ ফেব্রæয়ারী হাইকোর্টে একটি রীট করেন। এরই প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট স্মৃতি কেন্দ্রের মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং বিকেএমই’র কারখানা বন্ধের আদেশ দিলে মিঠাপুকুর উপজেলা প্রশাসন ওই বছরের ১ মে বিকেএমইএ’র কারখানা উচ্ছেদ করেন।
পরবর্তীতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মধ্যে স্মৃতি কেন্দ্রটি নিয়ে টানাটানি শুরু হলে একদিকে স্মৃতি কেন্দ্রের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায় অন্যদিকে মানবেতর সময় পার করতে থাকেন নিয়োগকৃত উপ-পরিচালকসহ অন্যরা । এক পর্যায়ে উপ-পরিচালক আব্দুল্যাহ-আল ফারুক উচ্চ আদালতে একটি রীট করেন।

এরই ফলশ্রæতিতে আদালত ২০১৫ সালের ১৭ মে উপ-পরিচালকসহ ৬ জনের চাকুরী রাজস্বখাতে নেয়ার পাশাপাশি স্মৃতি কেন্দ্রটি চালুর নির্দেশ দেন সংস্কৃতিক বিষষক মন্ত্রণালয়কে। এদিকে রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করলে মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ আপিল খারিজ করে হাইকোর্টের রায় বহাল রাখেন। রায় ঘোষণার দীর্ঘ এক বছরেরও বেশি সময় পেরিয়ে চলতি বছরের জুন থেকে উপ-পরিচালক আব্দুল্ল্যাহ-আল-ফারুকসহ সহকারী গ্রন্থাগারিক আবেদা সুলতানা ও উপ-সহকারী প্রকৌশলী আরিফ হোসেনের চাকরি রাজস্বখাতে নেয়া হলেও বাকী কর্মচারীদের ভাগ্য ঝুলে আছে এখনো। সেই সাথে চালু হয়নি স্মৃতি কেন্দ্রের কার্যক্রম।
বেগম রোকেয়া স্মৃতি কেন্দ্রের উপ-পরিচালক আব্দুল্যাহ-আল-ফারুক জানান, তিনিসহ অন্য দুইজনের চাকরি রাজস্বখাতে নেয়া হলেও বাকীদের ব্যাপারে এখানো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে নৈশ্যপ্রহরী ও এমএলএসএস পদে কর্মরত আব্দুল বাতেন এবং খোরশেদ আলমের চাকরি রাজস্বখাতে নিয়মিতকরণসহ বকেয়া বেতনের দাবিতে আবেদন করা হয়েছে। এটিও দ্রæত বাস্তবায়ন হবে বলে আশা করেন তিনি।
৯ ডিসেম্বর বেগম রোকেয়ার জন্ম ও প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে ১৯৭৪ সাল থেকে পায়রাবন্দবাসী রোকেয়াকে স্বরণ করে রোকেয়া দিবস পালন করে আসছেন। সরকারীভাবে ১৯৯৪ সাল থেকে জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় বেশ ঘটা করেই দিবসটি পালন করা হয়।
বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি আজ থেকে শুরু হচ্ছে ৩ দিনব্যাপি রোকেয়া মেলা। বেগম রোকেয়া স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পন, পায়রাবন্দ জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল, স্বেচ্ছায় রক্তদান ও রক্তের গ্রæপ পরীক্ষা, আলোচনা সভা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতাসহ নানা কর্মসূচি পালিত হবে এ তিনদিন। এছাড়াও রংপুর বেগম রোকেয়া মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে আজ বিকেল ৩টায় সিদ্দিক মেমোরিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণে রোকেয়ার কৃতকর্ম নিয়ে বিশেষ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।
নারী জাগরণের অগ্রদূত, সমাজ সংস্কারক বেগম রোকেয়ার জন্ম ১৮৮০ সালের ৯ ডিসেম্বর। তার পিতা জহির উদ্দিন মোহাম্মদ আবু আলী হায়দার, মাতা রাহাতুন্নেছা সাবের চৌধুরানী। খান বাহাদুর সাখাওয়াত হোসেনের সাথে অল্প বয়সে বিয়ে হয় রোকেয়ার। মাত্র ২৮ বছর বয়সে তিনি স্বামীকে হারান।

জীবনদশায় অবরোধ বাসীনি, অর্ধাঙ্গী, সুলতানার স্বপ্ন, মতিতূর ছাড়াও অসংখ্য বই লিখেছেন বেগম রোকেয়া। ১৯৩২ সালের ৯ ডিসেম্বর তিনি কলকাতায় মারা যান। কলকাতার শোদপুরে সমাহিত করা হয় রোকেয়াকে।

নির্বাচনে বাগানের সেরা ফুলটাই বেছে নেব : শেখ হাসিনা
                                  

আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে বাগানের সেরা ফুলটাই বেছে নেবেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, আমাদের কোনো প্রার্থী ডেঞ্জার অবস্থানে নেই। প্রার্থী হতে চাওয়া দোষের কিছু নয় বরং রাজনৈতিক অধিকার। শত ফুল ফুটুক। তবে ভালো ফুলটাই আমরা নির্বাচনের জন্য বেছে নেব।

কম্বোডিয়া সফর শেষে দেশে ফিরে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি।

আগাম নির্বাচন আয়োজনের ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন সিইসি। এমতাবস্থায় আগাম নির্বাচনের ব্যাপারে সরকারের অবস্থান জানতে চেয়ে সিনিয়র সাংবাদিক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুলের করা প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পার্লামেন্টারি সিস্টেমে যে কোনো সময় নির্বাচন দেয়া যায়। তবে এমন কোনো দৈন্যদশায় পড়িনি, বা সমস্যায় পড়িনি যে, এখনই নির্বাচন দিতে হবে। তবে আমাদের উন্নয়নের ধারা আমরা অব্যাহত রেখেছি। উন্নয়নের কাজগুলো আমরা দ্রুত এগিয়ে নিতে চাই।

আমরা না থাকলে উন্নয়নের যে কি দশা হয় তা আপনারা দেখেছেন। ৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত যেগুলো আমরা করেছিলাম, যেগুলো বাকি ছিল সেগুলো আর সচল থাকেনি। উন্নয়নের সে ধারা অব্যাহত রাখেনি। ২০০৯ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে আমরা যে উন্নয়ন করেছি তা চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি অন্য কোনো সরকার করতে পারে নাই। বিশ্বব্যাংকের যে দুর্নীতির যে অভিযোগ তা চ্যালেঞ্জ করার মতো সৎসাহস আমরাই দেখিয়েছি- বলেন প্রধানমন্ত্রী।

ভোটের মৃদুমন্দা হাওয়া বইছে উল্লেখ দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার প্রশ্ন রাখেন, পত্রিকায় অসংখ্য প্রার্থীর নাম আসছে। নাম ছাপলে আপনার নজরে আসবে। আওয়ামী লীগ যেহেতু বড় দল। আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন ও প্রার্থী দেয়া না দেয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘উত্তর একটাই সব ফুল ফুটতে দিন। অনেকে প্রার্থী হতে চান, ভালো কথা। এটা তাদের রাজনৈতিক অধিকার। কেন সবাই প্রার্থী হতে পারবেন না? শত ফুল ফুটবে। হোক না। শত ফুলের মধ্যে যেটা ভালো সব থেকে সুন্দর ফুল সেটা আমরা বেছে নেবো। সময় এলে আপনারা দেখতে পারবেন। আর কীভাবে নেবো সেটা সময়ই বলে দেবে।

দেশের ৮০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন: জয়
                                  

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, প্রাথমিকে তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে বলে।

বৃহস্পতিবার ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে দ্বিতীয় দিনে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রীপর্যায়ের এই সম্মেলনে ভুটান, মালদ্বীপ, কম্বোডিয়াসহ পাঁচ দেশের মন্ত্রী ও সাত দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

জয় বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষাকে প্রাথমিকসহ প্রতিটি স্তরেই বাধ্যতামূলক করা হবে। এর পাশাপাশি আধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় দেশের উন্নয়নে নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে। সারা বিশ্ব প্রযুক্তিতে অভাবনীয় উন্নতি সাধন করছে। ২০২৫ সালের মধ্যে ৮০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন। প্রযুক্তির এই সুফল বাংলাদেশও পেতে চায়।

তিনি বলেন, বেসরকারি খাতকে সঙ্গে নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। জনগণ তথ্যপ্রযুক্তির সুফলও ভোগ করছে। বাংলাদেশে প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েছে বহুগুণ। এই ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডেই বিশ্বের উন্নত রোবট সোফিয়াকে।

জয় বলেন, ভবিষ্যতে মোবাইল সুপারকম্পিউটিং, চালকহীন গাড়ি, কৃত্রিম বুদ্ধিমান রোবট, নিউরো প্রযুক্তির ব্রেন, জেনেটিক এডিটিং দেখতে পাবে। প্রযুক্তির এসব সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশে উন্নয়নের নতুন দিগন্ত উন্মোচন করতে হবে

দেশ তো শান্ত আছে: নাসিম
                                  

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, আদালতে হাজিরা শেষে বেগম জিয়ার ফেরার পথে বিএনপি কর্মীরা গাড়িতে আগুন দিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের মতো আবারো জ্বালাও পোড়াও করে নির্বাচন বানচাল করা যাবে না। বুধবার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে এক আলোচনায় এ কথা বলেন মোহাম্মদ নাসিম।

এসময় তিনি বলেন, দেশ তো শান্ত আছে, আমরা সবাই অত্যন্ত শান্তিপ্রিয়ভাবে নির্বাচনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। বেগম জিয়াকে আমি অনুরোধ করব যেকোন কিছু হলে গাড়ি পোড়ানো বন্ধ করতে। ভয় দেখাবেন কেন? ১৪ সালে ভেবেছিলেন নির্বাচন বন্ধ করবেন, তা তো করতে পারেননি। জনগণ রায় দিবে ভোট হবে ভোট কেউ ঠেকাতে পারবে না ইনশাল্লাহ।

 

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যা কথা হলো রোবট সোফিয়ার
                                  

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার নারী রোবট সোফিয়ার সঙ্গে প্রায় ২ মিনিট কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তারা পরস্পরের খোঁজখবর নেন। প্রধানমন্ত্রী সোফিয়াকে কয়েকটি প্রশ্ন করলে তার উত্তর দেয় সে।

প্রথমে প্রধানমন্ত্রী তাকে জিজ্ঞেস করেন কেমন আছো? উত্তরে সোফিয়া ইংরেজিতে উত্তর দেয়, ‘ভালো, আপনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আমি আনন্দিত’।

প্রধানমন্ত্রী তাকে জিজ্ঞেস করেন তুমি আমাকে কীভাবে চেনো?

ইংরেজিতে সোফিয়া উত্তর দেয়, আমি জানি আপনি বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা, আপনি মাদার অব হিউম্যানিটি। এ ছাড়াও আপনার নাতনির নাম আমার নামে ‘সোফিয়া’।
তখন প্রধানমন্ত্রী আমন্ত্রিত অতিথিদের উদ্দেশে বলেন, ‘জয়ের মেয়ের নামও সোফিয়া।’

এরপর প্রধানমন্ত্রী তাকে জিজ্ঞাসা করেন ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে তুমি কি জানো?

উত্তরে সোফিয়া ২০০৯ সাল থেকে বাংলাদেশের তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন তুলে ধরে। ই-গভর্নেন্সসহ সরকারের নেয়া বিভিন্ন উদ্যোগের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে বলে। বঙ্গবন্ধু হাই টেক সিটি সম্পর্কে অবগত থাকার বিষয়টিও সোফিয়া প্রধানমন্ত্রীকে জানায়।

এরপর প্রধানমন্ত্রী তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

আজ ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে সোফিয়াকে নিয়ে দুটি সেশন করা হবে। প্রথম সেশনে দেশের পলিসি মেকার এবং সাংবাদিকদের সঙ্গে তার বৈঠক হবে। দ্বিতীয় সেশনে থাকবে তরুণ গেম ডেভলপার, সফটওয়্যার ডেভলপার, অ্যাপ ডেভলপার ও উদ্ভাবকদের সঙ্গে আলোচনা।

এ ছাড়া আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে ড. ডেভিড হ্যানসন মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন। সোফিয়া কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার নারী রোবট। সে নানা বিষয়ে অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে। ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিশাল তথ্যভাণ্ডারে যুক্ত থাকে সে। এ ছাড়া মানুষের সঙ্গী ও সহযোগী হিসেবেও কাজ করতে পারে সোফিয়া।

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে দেশের তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন ও সক্ষমতা তুলে ধরতেই এ আয়োজন করেছে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। এ ছাড়া সহযোগী হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়ার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্প।

এ ছাড়াও পার্টনার হিসেবে রয়েছে- বাক্য, বিসিএস, ই-ক্যাব, বিআইজেএফ, বিবিআইটি, বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম এবং সিটিও ফোরাম।

আজ থেকে শুরু হওয়া এ প্রদর্শনী চলবে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে এ প্রদর্শনী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার তথ্যপ্রযুক্তির প্রসারে অনেক কাজ করেছে। তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তরুণেরা বাংলাদেশকে একদিন অনেক দূর এগিয়ে নেবে।

ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেল শীতলপাটি
                                  

জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থার (ইউনেস্কো) স্বীকৃতি পেল বাংলাদেশের শীতলপাটি।

বুধবার দক্ষিণ কোরিয়ার জেজু দ্বীপে ইউনেস্কোর ইন্টারগভর্নমেন্টাল কমিটি ফর দ্য সেফগার্ডিং অব দ্য ইনটেনজিবল কালচারাল হেরিটেজের ১২তম অধিবেশনে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শীতলপাটিকে বিশ্বের নির্বস্তুক সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য (ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ অব হিউম্যানিটি) হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

বুধবার সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়।

আনিসুল হকের মত একজনকে মনোনয়ন দেওয়া হবে: ওবায়দুল কাদের
                                  

‘আনিসুল হকের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে পারবেন এমন একজনকে মনোনয়ন দিবে আওয়ামী লীগ’ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

আগাম নির্বাচনের গুঞ্জনের জবাব দিতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডাকেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণের দায়িত্ব হচ্ছে নির্বাচন কমিশনের। আগাম নির্বাচন নিয়ে যে জল্পনা-কল্পনা চলছে, এটা গুঞ্জন, নেহাতই গুঞ্জন। এর কোনো ভিত্তি নেই।’

এসময় তিনি আরো বলেন, ‘তবে আওয়ামী লীগ চায়, বিজয়ের মাসে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক।’

উল্লেখ্য সম্প্রতি ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তার দল আগাম নির্বাচন হলেও প্রস্তুত বলে উল্লেখ করেন। এরপর বিএনপির নেতারাও নির্বাচনের ব্যাপারে তাদের প্রস্তুতির কথা জানান গণমাধ্যমে। এ পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনারও (সিইসি) সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জানান, সরকার যদি আগাম নির্বাচন চায়, তাহলে তাদের প্রস্তুতি রয়েছে। এই পরিপ্রেক্ষিতেই গণমাধ্যমগুলো আগাম নির্বাচন নিয়ে নানা প্রতিবেদন প্রকাশ করে। আগাম নির্বাচন নিয়ে জনগণের মধ্যেও নানা আলোচনা শুরু হয়।

এ সময় বিএনপির চেয়ারপারসনের বিচারের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা আদালতের এখতিয়ার। তাকে সাজা দেবে কি দেবে না, এটা তাদের বিচার্য বিষয়। এই মামলা আওয়ামী লীগ করে নাই। এই মামলা করেছে ফখরুদ্দীন-মঈনুদ্দীনের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকার। এর সঙ্গে আওয়ামী লীগের কোনো সম্পর্ক নেই।’

মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের পর ২০ জনকে আটক করেছে পুলিশ এ ব্যাপারে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সহিংসতা হচ্ছে বিএনপির আসল চরিত্র। তারা আবার সহিংসতার পথে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য মঙ্গলবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য দিতে আদালতে যান। বিকেলে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। অন্যদিকে বিআরটিসির একটি বাসসহ একাধিক যানবাহনে ভাঙচুর ও একটি মোটরসাইকেলে আগুন লাগানো হয়। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান, ওই ঘটনায় ১৫ থেকে ২০ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

 

আলুর কেজি ১ টাকা!
                                  

বগুড়ায় আলুর বাজারে ব্যাপক ধস নেমেছে। ৮৪ কেজির এক বস্তা আলুর দাম ৯০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এতেও মিলছে না গ্রাহক।

এ অবস্থায় মজুদ করা আলু হিমাগার থেকে তুলছেন ব্যবসায়ীরা। আলু নিয়ে বিপাকে তারা। বগুড়ার ৩৩ হিমাগারে থাকা আলুতে ১০০ কোটি টাকার লোকসানের আশঙ্কা করছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১৬-১৭ মৌসুমে বগুড়া অঞ্চলে আলুর বাম্পার ফলন হয়েছিল। ভালো দামের আশায় ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষ আলু কিনে মজুদ করে রাখে।

গত ৩ মৌসুমে উত্তরাঞ্চলে আলুর ভালো ফলনের পাশাপাশি বছরজুড়ে দামও ছিল ভালো। মৌসুমের শুরুতে তুলনামূলক কম দামে আলু কিনে পরে বেশি দামে বিক্রি করেছেন মজুদদাররা। এবার সেই সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন তারা।

গেল মৌসুমে উৎপাদিত আলুর বেশির ভাগ জমা পড়ে হিমাগারে। এতে আগের মৌসুম শেষ হয়ে নতুন মৌসুম শুরুর আগেই সবাই একযোগে আলু বাজারজাত করতে গিয়ে বিপাকে পড়ে। হঠাৎ করেই আলুর দাম তলানিতে নেমে যায়। ১ টাকা থেকে দেড় টাকা কেজিতে নেমে আসে আলুর দাম।

বগুড়া কৃষি আঞ্চলিক অফিসের দেয়া তথ্যে জানা গেছে, ২০১৬-১৭ কৃষি মৌসুমে উত্তরের চার জেলা বগুড়া, জয়পুরহাট, পাবনা, সিরাজগঞ্জে আলুর চাষ হয়েছিল ১ লাখ ১৪ হাজার ১৬ হেক্টর জমিতে। উৎপাদন হয়েছিল ২৩ লাখ ৫০ হাজার ২ মেট্রিক টন।

চলতি মৌসুমে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা আছে ১ লাখ ১০ হাজার ৪১০ হেক্টর জমি। ইতোমধ্যে চাষ হয়েছে ৪৭ হাজার ৩২৩ হেক্টর জমিতে। আগাম জাতের আলু উত্তোলন হয়েছে ১০০ হেক্টর। উৎপাদন প্রতি হেক্টরে ১৪ মেট্রিক টন।

 

গত মৌসুমে পর্যাপ্ত মজুদ এবং চলতি মৌসুমে নতুন আলু উত্তোলনের ফলে পুরনো আলু হিমাগার থেকে নিচ্ছে না কৃষকরা। দাম না থাকায় কৃষকদের বস্তাপ্রতি লোকসান গুনতে হচ্ছে ১ হাজার ৩০০ টাকা। এক বস্তা লালশীল আলু মৌসুমে ক্রয় ও ভাড়াসহ খরচ হয়েছে ১৫৫০ টাকা, আর এ বছর তা বিক্রি হয়েছে কখনো ৫০০-৪০০-২০০ টাকায়। সম্প্রতি ১ বস্তা আলু ১০০ টাকায়ও নিচ্ছেন না কৃষকরা।

উত্তরাঞ্চলের শস্যভান্ডার নামে খ্যাত শিবগঞ্জ উপজেলায়র ১৪টি কোল্ডস্টো রেজের প্রতিটির ধারণক্ষমতা ১ লাখ থেকে দেড় লাখ বস্তা। গড়ে শিবগঞ্জে আলু মজুতের পরিমাণ ১৫ লাখ বস্তা যা ব্যবসায়ী ও কৃষক মিলে সংরক্ষণ করেছেন। এসব স্টোরে প্রায় তিন ভাগের এক ভাগ আলু এখনও পড়ে আছে।

বগুড়া জেলায় মোট কোল্ডস্টোরেজ আছে ৩৩টি। যার প্রতিটিতে ১ থেকে ২ লাখ বস্তা ধারণক্ষমতা। প্রতি বস্তায় ৮৪ কেজি আলু থাকে। যার মূল্য বর্তমানে ৯০ থেকে ১০০ টাকা।

শিবগঞ্জ সদরে অবস্থিত নিউ কাফেলা কোল্ড স্টোরেজের ক্যাশিয়ার আখতারুজ্জামান জানান, চলতি মৌসুমে ১ লাখ বস্তা আলু সংরক্ষণ করা আছে। এর মধ্যে ৭৪ হাজার বস্তা আলু কৃষক ও ব্যবসায়ীদের সরবরাহ করা হয়েছে। বাকি ২৬ হাজার বস্তা আলু ব্যবসায়ী ও কৃষক কেউ নিতে আসছে না। মজুদকৃত মোট আলুর ৫০ ভাগের বিপরীতে ব্যবসায়ী ও কৃষকদের সহজ শর্তে ঋণও দেয়া আছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো কৃষক ও ব্যবসায়ী ঋণের টাকা পরিশোধ করেননি।

আখতারুজ্জামান জানান, প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ বস্তা আলু পচে নষ্ট হচ্ছে। এগুলো বাছাই করছেন নারী শ্রমিকরা। দাম কম থাকায় স্টোরগুলোতে বিদ্যুৎ সরবরাহ সীমিত করা হয়েছে। নিউ কাফেলা কোল্ডস্টোরে বিগত ৯ মাসে বিদ্যুৎ বিল এসেছে ৮৬ লাখ টাকা। এছাড়া প্রশাসনিক খরচ, কর্মচারীদের বেতন বিল মিলে ৬০ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে। এই কোল্ডস্টোরে চলতি মৌসুমে প্রায় ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা লোকসান গুনতে হবে।

একই অবস্থা কোল্ডস্টোরেজ হিমাদ্রীর। এর ধারণক্ষমতা ৯৫ হাজার বস্তা এবং অধিকাংশই বীজ আলু। দীর্ঘদিন ধরে এই স্টোরের সুনাম আছে। কিন্তু এখানেও ১২ হাজারের বেশি বস্তা আলু অবিক্রিত রয়েছে।

 

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোল্ডস্টোরেজের জিএম আব্দুল করিম বলেন, কেউ আলু নিতে আসছে না। মজুদকৃত আলুর বিপরীতে ৪০ শতাংশ হারে লোন দেয়া আছে। কিন্তু লোন পরিশোধ তো দূরের কথা, স্টোরের কাছে আসছেন না গ্রাহক ও ব্যবসায়ীরা।

এদিকে, শিবগঞ্জের দোপাড়া গ্রামের কৃষক আব্দুল আজিজ এই মৌসুমে ১ হাজার ৫০০ বস্তা আলু ব্যবসার উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ করেন। এর আনুমানিক মূল্য ২২ লাখ ৬৬ হাজার ৫০০ টাকা। কিন্তু আলু বিক্রি করেছেন মাত্র ২ লাখ ৫৬ হাজার টাকার। এই কৃষকের তহবিল থেকে ২০ লাখ টাকা লাপাত্তা হয়ে গেছে। এ রকম আরও বহু কৃষকের একই দশা।

বগুড়ার প্রতিটি উপজেলায় চারদিকে সবুজ ছাতার বেষ্টনীর মতো গড়ে উঠেছে এসব শিল্প। এর মধ্যে শিবগঞ্জে বেশি। এর মধ্যে রয়েছে মোকামতলা এএইচজেড কোল্ডস্টোর, আগমনী কোল্ডস্টোর মহাস্থান, শাহা হিমাদ্রী উথলি বাজার, হিমাদ্রী লি. সাদুরিয়া, আফাকু কিচক, হিমাদ্রী শিবগঞ্জ, নিউ কাফেলা শিবগঞ্জ, কাজী কোল্ডস্টোর শোলাগাড়ী, মাহমুদিয়া জামুর হাট, মালটি পারপাস ধনতলা, শাহ সুলতান খয়রা পুকুর, নিউ জনতা বুড়িগঞ্জ। চলতি মৌসুমে লোকসানের ছোবল থেকে রেহায় পায়নি এসব শিল্পের কোনোটি।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিবগঞ্জে কৃষি বিভাগের কর্মী কামাল হোসেন জানান, গত বছরে শিবগঞ্জে ১৮ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে আলু চাষ হয়েছিল। কিন্তু এই অবস্থা চলতে থাকলে চলতি মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।

বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক প্রতুল চন্দ্র সরকার বলেন, গত মৌসুমে বগুড়ায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ১ লাখ টন আলু বেশি উৎপাদন হয়েছিল। ফলে বর্তমানে পুরনো আলুর দাম কমেছে। বর্তমানে নতুন মৌসুমে কৃষকরা আলু লাগাতে শুরু করেছে। হিমাগার থেকে কিছু আলু বীজ হিসেবে বের হয়ে আসবে। তখন পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হবে।

 

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেনের আমন্ত্রণে তিন দিনের সরকারি সফর শেষে দেশে ফিরেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার বিকেল ৪টা ৩২ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানটি ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন জানান, বিকেল ৪টা ৩২ মিনিটে শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানটি ঢাকায় অবতরণ করে।

এরআগে বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে নমপেন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে ২টায় সফর সঙ্গীদের নিয়ে তিনি দেশের উদ্দেশে রওনা দেন বলে জানিয়েছে বাসস।

প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে বিদায় জানান কম্বোডিয়ার নারী বিষয়ক মন্ত্রী ইং কন্তা পভি, পররাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহকারী মন্ত্রী ইতা সফিয়া এবং থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত ও কম্বোডিয়ায় এ্যাক্রিডিটেড সাইদা মুনা তাসনিম।

প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে বাংলাদেশ ও কম্বোডিয়ার মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের পাশাপাশি পর্যটন, কৃষি, বেসামরিক বিমান চলাচল, আইসিটি ও কারিগরি শিক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত একটি চুক্তি ও নয়টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

সরকারি সূত্র জানায়, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কম্বোডিয়া সফর বাংলাদেশ ও কম্বোডিয়ার মধ্যে দুই দেশের জনগণের স্বার্থ এবং এই অঞ্চলের পারস্পরিক যোগাযোগ ও সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করেছে।

লেকহেড স্কুলের কয়েকজন সিরিয়ায় আইএসে যোগ দিতে গেছেন
                                  

রাজধানীর বেসরকারি লেকহেড স্কুলের সঙ্গে যুক্ত কয়েকজন মধ্যপ্রাচ্যে সক্রিয় জঙ্গি সংগঠন আইএসে যোগ দিতে গেছেন বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

স্কুলটি নিয়ে সরকারের গোয়েন্দা প্রতিবেদনে ভয়াবহ তথ্য রয়েছে উল্লেখ করে তিনি এ কথা বলেন।

লেকহেড স্কুলের শাখাগুলো খুলে দিতে হাইকোর্টের রায় সাত দিনের জন্য স্থগিত করে মঙ্গলবার আদেশ দেন আপিল বিভাগ।

এর পর সাংবাদিকদের সঙ্গে স্কুলটির বিষয়ে কথা বলেন অ্যাটর্নি জেনারেল।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চের আদেশ অনুযায়ী নতুন ম্যানেজিং কমিটির পর চালু হবে লেকহেড স্কুল।

সাত দিনের মধ্যে স্কুলটির নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠন করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন আদালত।

ম্যানেজিং কমিটিতে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারকে সভাপতি ও স্কুলের অধ্যক্ষ হিসেবে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাকে রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সাত দিনের সময়সীমা পার হলে নতুন কমিটি স্কুলের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন স্কুলটির পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম।

গত ৬ নভেম্বর গুলশান ও ধানমণ্ডির দুটি শাখাসহ লেকহেড স্কুলের সব শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব সালমা জাহান স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে ঢাকা জেলা প্রশাসককে এ নির্দেশনা দেয়া হয়।

এতে বলা হয়েছে, সরকারের অনুমোদন না নেয়া প্রতিষ্ঠানটি ধর্মীয় উগ্রবাদ, উগ্রবাদী সংগঠন সৃষ্টি, জঙ্গি কার্যক্রমের পৃষ্ঠপোষকতাসহ স্বাধীনতার চেতনাবিরোধী কর্মকাণ্ডে যুক্ত।

পরে স্কুল বন্ধের নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হলে আদালত ৯ নভেম্বর রুল জারি করেন। এতে স্কুলটি বন্ধে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়।

 

জেতার যোগ্য মেয়র প্রার্থী দেবে আওয়ামী লীগ: ওবায়দুল কাদের
                                  

‘এত দ্রুত ডিএনসিসি নির্বাচন নিয়ে আলোচনা অশোভন’ বিএনপি নেতা রুহুল কবীর রিজভীর এমন মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ‘ডিএনসিসি নির্বাচন নিয়ে সরকারের কোনো তোড়জোড় নেই। নিয়ম অনুযায়ী, ওই পদটি শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। এখানে আওয়ামী লীগ কোনো ইন্টারফেয়ার করেনি। এটা আওয়ামী লীগের বিষয়ও না। নির্বাচনী প্রক্রিয়া অনুযায়ী নির্বাচন হবে। বিএনপির হয়ত নির্বাচনের প্রস্তুতি নেই, তাই তারা এ ধরনের কথা বলছে। তবে এই নির্বাচনে জেতার জন্য আওয়ামী লীগ ‘উইনেবল’ ক্যান্ডিডেট দেবে।’

মঙ্গলবার রাজধানীর জাতীয় অর্থোপেডিক ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে একজন রোগীর শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নেওয়া শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ সব কথা বলেন। আখি মণি নামের জন্মগত প্রতিবন্ধী রোগীর চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।

‘এবার সরকারকে আর সুযোগ দেয়া হবে না’ জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বিএনপির এ মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) কখন যে কী বলে তার ঠিক নেই। একবার বলে যে কোনো পরিস্থিতিতে নির্বাচনে যাবে। আবার বলে খালেদা জিয়ার সাজা হলে যাবে না। কোনটা সঠিক? খালেদা জিয়ার সাজা তো সরকার বা আওয়ামী লীগ দেবে না। এটা আদালতের ব্যাপার। আর নিম্ন আদালতে সাজা হলে তো উচ্চ আদালত আছে। আপিল করার সুযোগ আছে, রিভিউও করতে পারবে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন গণতান্ত্রিক পক্রিয়া। তারাও (বিএনপি) চায়, আমরাও চাই। আমি অনেক বার বলেছি, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন আমরা চাই। প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচন চাই না। যেটা ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি হয়েছে। তাহলে আজকাল ‘বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত’ এটি শুনতে হত না। তখন আমরা চেয়েছি তারাও আসুক। আমাদের নেত্রী তাদের গণভবনেও ডেকেছে। তারা হাতের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলে দিছে। এতে গণতন্ত্রের কি দোষ?’

‘আওয়ামী লীগ একদিকে ভাসান চরে রোহিঙ্গাদের পূনর্বাসনে অস্থায়ী ক্যাম্প করছে, অপরদিকে তাদের প্রত্যাবাসনের চুক্তি করেছে’ আসলে তারা চায় কী? এমন প্রশ্নের জবাবে দলটির সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আওয়ামী লীগও প্রত্যাবাসন চাইছে। তবে এর একটি প্রক্রিয়া আছে, যেটা সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। উখিয়া টেকনাফের জনসংখ্যা ৪ লাখ। এখন সেখানে মিয়ানমার থেকে এসে আরও ৭ লাখ মানুষ যুক্ত হয়েছে। সেখানে তাদের তাবুর নিচে রাখা হয়েছে। এতে পরিবেশ ও প্রকৃতি হুমকির মুখে। তার উপর তারাও ধৈর্য হারা হচ্ছেন। দীর্ঘদিন কীভাবে সেখানে রাখবো?’


   Page 1 of 276
     জাতীয়
প্যারিসের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে চাকরি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বৃষ্টি কমবে সোমবার, রাতে বাড়বে শীতের প্রকোপ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘বেগম রোকেয়ার জন্যই আমরা এগিয়ে যেতে পেরেছি’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আজও বেগম রোকেয়ার পরিবারের সাড়ে ৩শ’ বিঘা জমি বেদখল
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নির্বাচনে বাগানের সেরা ফুলটাই বেছে নেব : শেখ হাসিনা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দেশের ৮০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন: জয়
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দেশ তো শান্ত আছে: নাসিম
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যা কথা হলো রোবট সোফিয়ার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেল শীতলপাটি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আনিসুল হকের মত একজনকে মনোনয়ন দেওয়া হবে: ওবায়দুল কাদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আলুর কেজি ১ টাকা!
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
লেকহেড স্কুলের কয়েকজন সিরিয়ায় আইএসে যোগ দিতে গেছেন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জেতার যোগ্য মেয়র প্রার্থী দেবে আওয়ামী লীগ: ওবায়দুল কাদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আনিসুল হকের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবে ডিএনসিসি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সাবেক বিচারপতি মানিকের বিরুদ্ধে করা মামলা খারিজ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ডিএনসিসির মেয়র পদ শূন্য ঘোষণা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ডিজিটাল পদ্ধতি হয়রানি ও ঘুষ কমাবে : টিআইবি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
তারেক মাসুদের মৃত্যু: ৪.৬১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের রায়
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
কম্বোডিয়ায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পোপ এখন ঢাকায়
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
স্মৃতিসৌধে পোপ ফ্রান্সিসের শ্রদ্ধা নিবেদন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণকাজ উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
চালের দাম ৪০ টাকার মধ্যে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘আমরা একে অপরের সঙ্গে অন্ন ভাগ করে খেতে জানি’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
গণতন্ত্র মানে শুধু নির্বাচন নয়: বার্নিকাট
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
হাইকোর্টে আসিফ নজরুলের আগাম জামিন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
একজন সততায় তৃতীয়, আরেকজন দুর্নীতিতে : কাদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘আসামিদের দণ্ডের বিষয়ে তিন বিচারপতিই একমত’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রসিক নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে : সিইসি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
৭ মার্চের ভাষণ মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র হিসেবে কাজ করেছে
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘এত দূরদর্শিতা আর দিক-নির্দেশনা পৃথিবীর কোনো ভাষণে নেই’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বিএনপি না এলেও নির্বাচন হবে : আইনমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
৮৩ রোহিঙ্গা এইডস রোগী : সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আমি এখানে ফুলের মালা ও পাপড়ি নিতে আসিনি: কাদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
টেকনাফের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে শতাধিক রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মৃত্যুকে হাতের মুঠোয় নিয়ে কাজ করছি: প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সংসদ নির্বাচনে প্রয়োজনে সেনাবাহিনী নামানো হবে: ইসি শাহাদাত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মোবাইল ব্যাংকিংয়ের নামে লুটপাট হচ্ছে: ড. ফরাসউদ্দিন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘নির্বাচন সুষ্ঠু করার জন্য যা যা দরকার তাই হবে’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
তনুর পরিবারকে তদন্তের স্বার্থেই ডাকা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘প্রধানমন্ত্রীকে নামানোর ক্ষমতা কি মওদুদের আছে?’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘সশস্ত্র বাহিনীকে অসম্মান করেছে বিএনপি’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্যারাডাইস পেপারস কেলেঙ্কারি: খতিয়ে দেখবে এনবিআর
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শেখ হাসিনা বিশ্বের ৩য় সৎ সরকার প্রধান
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
একাত্তরের পর বাহিনীতে ফেরা মুক্তিযোদ্ধারাও পাবেন ভাতা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শৃঙ্খলাবিধির খসড়া সুপ্রিমকোর্টে, এসকে সিনহা চলে যাওয়ায় দ্রুত সমাধান হয়েছে: আইনমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......