জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
উড্ডয়নের ১৮ মিনিট পরই ঢাকায় বিমানের জরুরি অবতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সৈয়দপুরের উদ্দেশে উড্ডয়নের ১৮ মিনিটের মধ্যে আবারও ঢাকায় জরুরি অবতরণ করতে হয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজকে।

মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। ড্যাশ-৮ মডেলের বিজি-৪৯৩ উড়োজাহাজটির দুপুর ১২টায় উড্ডয়নের কথা ছিল। তবে উড়োজাহাজটি দুপুর ১২টা ২৮ মিনিটে উড্ডয়ন করে।

যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে উড্ডয়নের ১৮ মিনিটের মধ্যে অর্থাৎ দুপুর ১২টা ৪৬ মিনিটে যাত্রীদের প্রাণ রক্ষা করে ঢাকায় জরুরি অবতরণ করে উড়োজাহাজটি।

তবে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তথ্য কেন্দ্র থেকে একজন অপারেটর জাগো নিউজকে বলেন, ‘উড্ডয়নের ১৮ মিনিট পর ফ্লাইটটি ১২টা ৪৬ মিনিটে ফিরে আসে। এটি জরুরি অবতরণ কি-না এ বিষয়ে আমরা বলতে পারছি না।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এক কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, ইঞ্জিনে ‘প্রেসারজনিত সমস্যার’ কারণে ফ্লাইটটি ঢাকায় ফেরত আনেন পাইলট।

গত সপ্তাহেই ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলার একটি উড়োজাহাজ নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করতে গিয়ে বিধ্বস্ত হয়। এতে প্রাণ গেছে ৫১ যাত্রীর। পুড়ে অঙ্গার হয়ে যাওয়ার কারণে নিহতদের কয়েকজনের মরদেহ এখনও শনাক্ত করা যায়নি। যাদের মরদেহ শনাক্ত করা গেছে সোমবার বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ উড়োজাহাজে তাদের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

 

উড্ডয়নের ১৮ মিনিট পরই ঢাকায় বিমানের জরুরি অবতরণ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সৈয়দপুরের উদ্দেশে উড্ডয়নের ১৮ মিনিটের মধ্যে আবারও ঢাকায় জরুরি অবতরণ করতে হয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজকে।

মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। ড্যাশ-৮ মডেলের বিজি-৪৯৩ উড়োজাহাজটির দুপুর ১২টায় উড্ডয়নের কথা ছিল। তবে উড়োজাহাজটি দুপুর ১২টা ২৮ মিনিটে উড্ডয়ন করে।

যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে উড্ডয়নের ১৮ মিনিটের মধ্যে অর্থাৎ দুপুর ১২টা ৪৬ মিনিটে যাত্রীদের প্রাণ রক্ষা করে ঢাকায় জরুরি অবতরণ করে উড়োজাহাজটি।

তবে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তথ্য কেন্দ্র থেকে একজন অপারেটর জাগো নিউজকে বলেন, ‘উড্ডয়নের ১৮ মিনিট পর ফ্লাইটটি ১২টা ৪৬ মিনিটে ফিরে আসে। এটি জরুরি অবতরণ কি-না এ বিষয়ে আমরা বলতে পারছি না।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এক কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, ইঞ্জিনে ‘প্রেসারজনিত সমস্যার’ কারণে ফ্লাইটটি ঢাকায় ফেরত আনেন পাইলট।

গত সপ্তাহেই ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলার একটি উড়োজাহাজ নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করতে গিয়ে বিধ্বস্ত হয়। এতে প্রাণ গেছে ৫১ যাত্রীর। পুড়ে অঙ্গার হয়ে যাওয়ার কারণে নিহতদের কয়েকজনের মরদেহ এখনও শনাক্ত করা যায়নি। যাদের মরদেহ শনাক্ত করা গেছে সোমবার বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ উড়োজাহাজে তাদের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

 

বাড়িতে এডিস মশার প্রজননক্ষেত্র থাকলে কারাদণ্ড!
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক :  ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) আওতাধীন যেসব বাড়িতে এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্র কিংবা লার্ভা পাওয়া যাবে, ওইসব বাসার মালিককে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অর্থদণ্ড বা কারাদণ্ড দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র সাঈদ খোকন। আগামী ৮ এপ্রিল থেকে শুরু হবে ডিএসসিসির এই অভিযান।

সোমবার নগর ভবনের আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এ কথা জনান তিনি। ‘স্বচ্ছ ঢাকা’ কর্মসূচির আওতায় চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধ এবং এডিস মশক নিধনে করণীয় নির্ধারণে এ সভার আয়োজন করা হয়।

মেয়র বলেন, আমরা আগামীকাল গণবিজ্ঞপ্তি জারি করবো। সব নাগরিক যেন তার বাসা পরিচ্ছন্ন রাখেন। আগামী ৮ এপ্রিল থেকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করবো আমরা।

তিনি বলেন, যেসব ভবনে এডিসের প্রজনন ক্ষেত্র কিংবা লার্ভা পাওয়া যাবে, ওইসব বাসার মালিককে অর্থদণ্ড বা কারাদণ্ড অথবা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে। ডিএসসিসির আইন ২৬৯-৭০ অনুযায়ী এই জরিমানা করা হবে। আমরা সবাইকে নোটিশ দেব। আপনারা নাগরিকরা অনুগ্রহ করে বাড়ি-ঘর পরিষ্কার রাখবেন।

মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কবিরুল বাশার বলেন, মশা নিধনে দুই সিটি কর্পোরেশন বিভিন্ন কাজ করছে। কিন্তু এই কাজগুলো সঠিকভাবে চলছে কি না সেজন্য মনিটরিং সেল করতে হবে। 
পাশাপাশি জনসচেতনতামূলক কর্মসূচিও নিতে হবে। চলতি বছর ডেঙ্গুর বেশি আশঙ্কা রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, আমি মশা মারবো, প্রতিবেশী মারবে না, তাহলে লাভ হবে না। তাই সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে। সরকারি অফিসসহ সবার জন্য কঠোর নির্দেশ দিতে হবে- যদি কারো ছাদে অপরিষ্কার পানি পাওয়া যায়, তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিশ্চত করতে হবে।

বিএসআরআইয়ের পিএসও ড. দেবাশীষ সরকার বলেন, ঢাকার অনেক ফাস্ট ফুডে অ্যারোসল ব্যবহৃত হয়। এই বিষয়টি দেখার জন্য সিটি কর্পোরেশনের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, মশা যেখানে ডিম পাড়ে সেখানেই মরণফাঁদ তৈরি করতে হবে।

সভায় ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী খান মোহাম্মদ বিল্লাল, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জোনারেল সালাহউদ্দিন ও আইডিসিআরের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা নুজহাত নাসরীনসহ অন্য কর্মকর্তা ও কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী ‘স্বচ্ছ ঢাকা’ অভিযান চালাচ্ছে ডিএসসিসি। গত ১৭ মার্চ থেকে যা শুরু হয়েছে।

 

বঙ্গবন্ধুর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা আজ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিন উপলক্ষে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে মহান এই নেতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে তাঁর প্রতি এই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
শেখ হাসিনা পুষ্পস্তবক অর্পণের পর জাতির পিতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে কিছু সময় সেখানে নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।
এ সময় সেখানে মন্ত্রিপরিষদ সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাগণ, সংসদ সদস্যগণ এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
পরে, শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে আরো একটি পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা আমির হোসেন আমু, বেগম মতিয়া চৌধুরী, ওবায়দুল কাদের, এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, সতীশ চন্দ্র রায়, এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, মাহবুব-উল-আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও জাতীয় সংসদের চিফ হুইফ আ স ম ফিরোজ।
পরে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন এবং আওয়ামী লীগের নানা সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনসহ অন্যান্য সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনটি আজ দেশব্যাপী জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে।

স্থানীয় সরকারে জাফর, মালেক তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জাফর আহমেদ খানকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে বদলি করা হয়েছে। অন্যদিকে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেককে তথ্য মন্ত্রণালয়ে সচিব হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ রদবদল করে আদেশ জারি করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) কবির বিন আনোয়ারকে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া তথ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ বদলি করে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে নেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. নুরুল আমিন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব হয়েছেন।

 

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন বিমানমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর নেপাল ঘুরে আসা বিমানমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে তাকে সর্বশেষ পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত করবেন মন্ত্রী।

মন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম পাটওয়ারীর বরাত দিয়ে একটি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

মন্ত্রী বুধবার রাতেই দেশে ফিরেছেন বলে জানা গেছে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ফিরে সচিবালয়ে বিমান দুর্ঘটনার বিষয়ে সাংবাদিকদের তিনি ব্রিফ করবেন বলেও জানা গেছে।

গত সোমবার নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে চার ক্রু ও ৬৭ আরোহী নিয়ে বাংলাদেশি ইউএস-বাংলার বিএস-২২১ ফ্লাইটটি বিধ্বস্ত হয়। এতে অর্ধশত যাত্রীর প্রাণহানি ঘটে। ঘটনাস্থলে মারা যান ৩২ জন। এ ছাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২১ যাত্রী। উড়োজাহাজের যাত্রীদের মধ্যে ৩২ জন বাংলাদেশি, ৩৩ জন নেপালি, একজন মালদ্বীপ ও একজন চীনের নাগরিক ছিলেন। এ ছাড়া দুই শিশু ছিল।

 

জুলাইয়ের মধ্যে ৫ সিটিতে নির্বাচন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী জুলাই মাসের মধ্যেই রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে.এম নুরুল হুদা।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজশাহীর পবা উপজেলার দামকুড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্মার্টকার্ড বিতরণের উদ্বোধনীতে এ কথা বলেন তিনি। স্থানীয় নির্বাচন দফতর আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সিইসি।

সিইসি বলেন, এরইমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি। এই পাঁচ সিটির ভোট নিয়ে সরকারের মতামত চেয়ে চিঠিও দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

সেই সঙ্গে সীমানা, ওয়ার্ড বিভক্তি, আদালতের আদেশ প্রতিপালনসহ নির্বাচনের বিষয়ে সকল অগ্রগতিও স্থানীয় সরকার বিভাগের কাছে জানতে চেয়েছে ইসি।

২০১৩ সালের ১৫ জুন একযোগে ভোটগ্রহণ হয়েছিল চার সিটিতে। তার ২০ দিন পরেই ছিল গাজীপুর সিটির নির্বাচন। এই ৫ সিটিরই মেয়র এবং কাউন্সিলরদের মেয়াদ একেবারে শেষের দিকে। পাঁচ সিটির মধ্যে গাজীপুরের মেয়াদ পূর্ণ হবে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর। এরপর খুলনার ২৫ সেপ্টেম্বর, রাজশাহীর ৫ অক্টোবর, সিলেট ৮ অক্টোবর এবং বরিশালের ২৩ অক্টোবর। আগে এসব সিটির নির্বাচন নির্দলীয়ভাবে হলেও এবার হবে দলীয় প্রতীকে।

 

মামলা না থাকলে নির্ধারিত সময়েই পাঁচ সিটির নির্বাচন: খন্দকার মোশাররফ হোসেন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : আদালতে কোনো মামলা-মোকদ্দমা না থাকলে খুলনা, রাজশাহী, বরিশাল, সিলেট ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। বুধবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এ কথা জানান।

সর্বশেষ খুলনা, রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন হয় ২০১৩ সালের ১৫ জুন। গাজীপুরের নির্বাচন হয় একই বছরের ৬ জুলাই। নির্বাচিত মেয়রদের মেয়াদ ৫ বছর।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। আইনের বাধ্যবাধকতা আছে। আমরা যদি নির্বাচন না করি তবে আইন পরিবর্তন করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা চিন্তা করছি বাধাটা কোথা থেকে আসতে পারে। আমরা ডিভিশনাল কমিশনারদের কাছে জানতে চেয়েছি- এসব সিটি কর্পোরেশনে কোনো মামলা-মোকদ্দমা আছে কি-না। নির্বাচনী তফসিল নিয়েই হোক, ভোটার লিস্ট নিয়েই হোক, কেউ যদি মামলা-মোকদ্দমা করে থাকে তবে তো আমরা নির্বাচন করতে পারব না।’

‘আমরা এই রিপোর্টটি পেলে নির্বাচন কমিশনকে বলব তাদের সুবিধা মতো সময়ে নির্বাচন করতে। তারা যদি পারে একসঙ্গে পাঁচটাতেই করুক, তারা যদি পর্যায়ক্রমে করতে চায় আমাদের তো কোনো আপত্তি থাকবে না।’

বিভাগীয় কমিশনারদের কাছ থেকে ৭/৮ দিনের মধ্যেই প্রতিবেদন পেয়ে যাবেন বলেও জানান মন্ত্রী।

কতদিনের মধ্যে নির্বাচন করতে চান- জানতে চাইলে মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের যদি কোনো ভেজাল থাকত তবে না হয় করতাম না। ভেজাল তো দেখছি না। আমরা এখন তুঙ্গে, আমাদের জনপ্রিয়তা তো দেখছি ভালো। এটাতে (নির্বাচন) বাধা দিয়ে প্যাঁচে পড়তে যাব না। বাধা দিলেই তো নানা প্রশ্ন আসবে। না-কি ঝামেলা করলে ভালো হবে, তবে আমরা সেভাবে বুদ্ধি করব।’

‘সময়ের মধ্যেই আমরা করব। যদি হাইকোর্টের নির্দেশ থাকে তবে তা ক্লিয়ার না করে আমরা (নির্বাচন) করতে পারব না।’

পৌরসভার কর্মীরা চাকরি রাজস্ব খাতে স্থানান্তরের দাবিতে আন্দোলন করছে- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘তারা চাকরি নিলো পৌরসভায়। স্থায়ী সরকারের সেলফ গভর্নিং বডি তারা। নিজস্ব আয়ে চলে, নিজস্ব বাজেট আছে। সরকার তাদের নিয়ন্ত্রক। এখন তারা কোন উদ্দেশ্যে কী জন্য এটা করছে, আমার বুঝতে একটু অসুবিধা হয়। সরকারের শেষ সময়, রাস্তায় দাঁড়ালাম চাপ দিলাম। সরকার রাজি হয়ে গেল। এই রাজি হওয়া কি সম্ভব! আইন-কানুন পরিবর্তন না করে এটা কি করা যাবে!’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘তারা (পৌরসভার কর্মী) একটা অসুবিধার মধ্যে অবশ্যই আছে। জাতীয় সব গ্রেডের বেতন প্রায় ডাবল হয়ে গেছে। কিন্তু পৌরসভাগুলোতে এখনও অর্থনৈতিক স্বাচ্ছন্দ্য আসেনি, ইনকামও বাড়েনি। আমরা একটা কাজ করতে পারতেছি যে একটা সিড মানি তাদের দেয়া যায় কি-না। এটা তারা পেলে সেখান থেকে বর্ধিতহারে বেতন দিলো সেখান থেকে তারা বাজেটটা বাড়িয়ে তাদের সক্ষমতা বাড়লো, তারপর বেতন-ভাতা দিলো। একটা হুকুমে কি বেসরকারি চাকরি সরকারি করা যাবে? সরকারি করা মনে হয় সম্ভব হবে না।’

 

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে বিক্ষোভ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক  : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত করায় প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের পদত্যাগ চেয়ে বিক্ষোভ করেছে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা বিক্ষোভ মিছিল করে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগসহ নানা স্লোগান দিতে থাকেন। আপিল বিভাগে থেকে বের হয়ে মিছিলসহ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবন প্রদক্ষিণ করেন তারা।

স্লোগান তারা বলেন, আইনজীবীদের দাবি এক, প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ’ ‘এক দফা এক দাবি প্রধান বিচারপতি কবে যাবি’ ‘খালেদা জিয়া জেলে কেন, শেখ হাসিনা জবাব চাই’।

এর আগে বুধবার সকাল সোয়া ৯টায় প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার বিচারপতির সমন্বয়ে আপিল বিভাগের বেঞ্চ খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত করে রোববার শুনানির জন্য দিন নির্ধারণ করেন। শুধুমাত্র দুদকের আইনজীবীর বক্তব্য শুনে আদেশ দেয়ার পর আদালতের ভিতরেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা। এসময় তারা প্রধান বিচারপতির সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে আদালত কক্ষ থেকে লজ্জা লজ্জা বলে বের হয়ে আসেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া বিচারিক আদালত। ওই দিন থেকেই তাকে পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দীন রোডে কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার সারা দেশে রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : নেপালের কাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় বৃহস্পতিবার সারা দেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া শুক্রবার মসজিদ মন্দিরসহ সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও উপাসনালয়ে দোয়া ও প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠানের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

গত সোমবার (১২ মার্চ) ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বিএস ২১১ নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর দুর্ঘটনায় পড়ে। বিমানবন্দরের এটিসি টাওয়ারের দেওয়া ভুল অবতরণ বার্তার জেরে আকাশে অপেক্ষা করতে থাকে বিমানটি। পরে ৬৭ যাত্রী ও চার ক্রুসহ দুপুর ২টা ২০ মিনিটে বিমানটি বিমানবন্দরের পাশের একটি ফুটবল মাঠে বিধ্বস্ত হয়। এতে অর্ধশতাধিক যাত্রীর প্রাণহানি ঘটে। তাদের মধ্যে ২৬ জন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ।

 

আমরা ব্যথিত, দেশবাসী মর্মাহত : জয়নুল আবেদীন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন আগামী রোববার (১৮ মার্চ) পর্যন্ত স্থগিত করেছেন। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ বুধবার সকালে এ আদেশ দেন। সর্বোচ্চ আদালতের এমন সিদ্ধান্তের পর খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি জয়নুল আবেদীন সাংবাদিকদের বলেন, `আদালতের এ আদেশে আমরা ব্যথিত এবং দেশবাসী মর্মাহত`।

এর আগে গত সোমবার এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চার মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রাপ্ত সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দীন রোডের সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।

 

আমি বোকা তাই আমার ভেতরে ভয়ভীতি কাজ করে না: জাফর ইকবাল
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনার পর এই প্রথম সাংবাদিকদের সামনে আসলেন তিনি।


তিনি সুস্থ কিনা এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমি এখন সুস্থ। আশা করছি খুব তাড়াতাড়িই আবার কাজকর্মে ফিরতে সক্ষম হবো।

তিনি আরো বলেন, আমি একটা সাধারণ মাস্টার, আমাকে দেখতে প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে অনেকেই এসেছেন, আমি এই বিষয়ে তাদের সকলের কাছে কৃতজ্ঞ।

তিনি বলেন, `আমার ছাত্ররা এত অস্থির হয়ে গেছে, আমি তাদেরকে বলার জন্য যাচ্ছি- এই দেখো আমি ভালো আছি।`
 
এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথা স্মরণ করেন তিনি। তিনি বলেন, আমার শরীরে যেন ইনফেকশন না ছড়ায় সে ব্যবস্থা প্রধানমন্ত্রী নিজেই করে গিয়েছেন। যেন বাইরের কোন দর্শনার্থী আমাকে দেখতে আসতে না পারেন সে ব্যবস্থাও তিনিই করেছেন।

তিনি ভীত কিনা এই প্রশ্নে ড. জাফর ইকবাল তাঁর স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে বলেন, আমি একটু বোকা টাইপের মানুষ, আমি ভয় পাই না। আমি নিরাপদ বোধ করছি। আমার নিরাপত্তা আমার ছাত্ররা, আমার শুভানুধ্যায়ীরা।

হামলাকারীদের প্রতি কোন রাগ বা বিদ্বেষ কাজ করে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এত সুন্দর পৃথিবী এত সুন্দর সুন্দর কাজ করা সম্ভব এখানে কিন্তু তারা তা না করে, এসব খারাপ কাজ করছে, আমার তাদের উপর কোন রাগ নেই। আমার মনে হয় আমাদের বাংলাদেশকে এমনভাবে গড়ে তুলতে হবে যেন এই পথে মানুষ না যায়।

এসময় মাথার টুপি দেখিয়ে তিনি হাসিমুখে বলেন, মাথায় আঘাতের কারণে আমি একটা ছেলেমানুষী টুপি পড়ে এসেছি।

হাসপাতালে শুয়েও লিখেছেন তিনি। এবিষয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আমার বাম হাতটা অচল হলেও সৌভাগ্যক্রমে আমার ডান হাতটা কিন্তু ঠিকই আছে!

এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সহধর্মিণী ড.ইয়াসমিন হক এবং কন্যা ইয়েশীম ইকবাল। আগামী ১৮ তারিখে ড. জাফর ইকবালের চেকআপের কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুরের দু’টি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর
                                  

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর মধ্যে পিপিপি এবং বিমান চলাচল সংক্রান্ত দু’টি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেছে। সোমবার সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুংয়ের উপস্থিতিতে স্মারকগুলো স্বাক্ষরিত হয়।

এর আগে সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় ইস্তানায় দু’দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে আনুষ্ঠানিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। স্মারক দুটি হচ্ছে-পাবলিক-প্রাইভেট অংশীদারিত্ব (পিপিপি) বিষয়ক সমঝোতা স্মারক এবং এয়ার সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত কনফিডেন্সিয়াল সমঝোতা স্মারক।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন সচিব এসএম গোলাম ফারুক এবং সিঙ্গাপুরের পরিবহন মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব তান গাই সেন উভয় দেশের এয়ার সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত কনফিডেন্সিয়াল সমঝোতা স্মারকটি স্বাক্ষর করেন।

এছাড়া প্রাইভেট পাবলিক পার্টনারশীপ অথরিটি (পিপিপিএ)-র সিইও সৈয়দ আফসর এইচ উদ্দিন এবং সিঙ্গাপুরের আন্তর্জাতিক এন্টারপ্রাইজের সহকারী সিইও তান সুন কিম উভয় দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত পাবলিক-প্রাইভেট অংশীদারিত্ব (পিপিপি) বিষয়ক অপর সমঝোতা সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে গতকাল (রোববার) দুপুরে সিঙ্গাপুরে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেশটির পরিবেশ, পানিসম্পদ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে সিনিয়র মন্ত্রী ড. অ্যামি খর এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোস্তাফিজুর রহমান উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীকে একটি মোটর শোভাযাত্রায় সাংগ্রি-লা হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সফরকালে তিনি সেখানে অবস্থান করবেন।

তার এ সফরে আরও বেশ কয়েকটি চুক্তি স্বাক্ষরের কথা রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ও ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন। আগামী ১৪ মার্চ (বুধবার) তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

 

কৌশলগত কারণেই কখনও পশ্চাদপসরণ : দুদক চেয়ারম্যান
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘দুর্নীতি দমন কমিশনের কার্যক্রমে কিছুটা স্থবিরতা এসেছে’- এমন বক্তব্যের সঙ্গে দ্বি-মত পোষণ না করে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, ‘যুদ্ধে পশ্চাদপসরণ করা যেমন যুদ্ধক্ষেত্রের কৌশল, কখনও কখনও দুর্নীতপরায়ণদের গতিবিধি সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য কমিশনকেও কখনও কখনও কৌশলগত কারণেই পশ্চাদপসরণ করতে হয়। এটি কৌশল মাত্র। আর কিছুই নয়।’

জাতিসংঘের মাদকদ্রব্য ও অপরাধবিষয়ক কার্যালয়ের (ইউএনওডিসি) দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক অফিসের প্রতিনিধি সার্জে ক্যাপিনোজের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল রোববার সকালে দুদক প্রধান কার্যালয়ে আসেন। তারা দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

সাক্ষাৎকালে তারা দেশের দুর্নীতি দমন, প্রতিরোধ ও উত্তম চর্চার বিকাশসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ প্রতিনিধি দলের উদ্দেশ্যে এ সময় বলেন, প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণের জন্য ওভারসাইট মেকানিজম থাকা উচিত। দুর্নীতি দমন কমিশনের কার্যক্রমও পর্যবেক্ষণ বা মনিটরিংয়ের জন্য একটি কার্যকর ফ্রেমওয়ার্ক থাকতে পারে।

তিনি বলেন, যদিও দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রতিটি কার্যক্রমই আইনানুগ প্রক্রিয়ায় চ্যালেঞ্জ করার সুযোগ রয়েছে এবং পাশাপাশি কমিশনের সব কার্যক্রম বার্ষিক প্রতিবেদনের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে পেশ করা হয়। ওই বার্ষিক প্রতিবেদন নিয়ে জাতীয় সংসদে আলোচনায় আইনি সুযোগও রয়েছে।

 

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের সোনালি ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। দুর্নীতি করে যারা অর্থ-বিত্তের মালিক হচ্ছেন বা হয়েছেন প্রত্যেককেই আজ অথবা কাল আইনের আওতায় আসতে হবে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া যা ক্রমাগত চলতে থাকবে।’

উত্তম চর্চার বিকাশে প্রায় ২৫ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সততা সংঘ, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সততা স্টোরসহ বিভিন্ন কার্যক্রমের ব্যাখ্যা করে ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘দেশের সিভিল সার্ভিস, শিক্ষা, চিকিৎসা ক্ষেত্রে মূল্যবোধসম্পন্ন প্রতিনিধি সৃষ্টির জন্যই কমিশন এসব কার্যক্রম পরিচালনা করছে।’

‘টেকসই উন্নয়নে লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে সুশাসন, জবাবদিহিমূলক আমলাতন্ত্র, মানসম্পন্ন শিক্ষা এবং দুর্নীতিপরায়ণদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করার কোনো বিকল্প নেই’- যোগ করেন দুদক প্রধান।

সার্জে ক্যাপিনোজ তার বক্তব্যে বলেন, দুর্নীতি পৃথিবীর সর্বত্রই রয়েছে তবে পার্থক্য রয়েছে এর তীব্রতা এবং এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে। তিনি দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রতিরোধমূলক কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন, সততা সংঘ বা সততা স্টোরের কার্যক্রম সত্যিই উত্তম। তবে প্রশিক্ষণ, শিক্ষা, পরিবার ও পদ্ধতিই বাস্তব জীবনে প্রতিফলন ঘটে।

বাংলাদেশে জাতিসংঘের মাদকদ্রব্য ও অপরাধবিষয়ক কার্যালয়ের (ইউএনওডিসি) অফিস স্থাপনের লক্ষ্যে সরকার, দুর্নীতি দমন কমিশন এবং সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতার প্রশংসা করে তিনি আরও বলেন, দুর্নীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থার বিষয়টি বেগবানের জন্য এদেশে কান্ট্রি অফিস স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত রাখতে সরকার, সুশীল সমাজ এবং দুদকসহ সবাইকে সম্মিলিত ও অংশগ্রহণমূলকভাবে এগিয়ে আসতে হবে।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দুদকের মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) মো. জাফর ইকবাল।

 

সিঙ্গাপুরের পথে প্রধানমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন। সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুংয়ের আমন্ত্রণে রোববার চারদিনের সফরে ঢাকা ছাড়লেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট রোববার সকাল ৮টা ২৫মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।

ফ্লাইটটি সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে ৩টায় সিঙ্গাপুরের চাঙ্গি বিমানবন্দরে পৌঁছাবে বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে। বিমান বন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীকে একটি মোটর শোভাযাত্রায় সাংগ্রি-লা হোটেলে নিয়ে যাওয়া হবে। সফরকালে তিনি সেখানেই অবস্থান করবেন।

সোমবার, সিঙ্গাপুর সরকার শেখ হাসিনাকে স্বাগতিক অভ্যর্থনা জানাবে। অভ্যর্থনার পরে তিনি সিঙ্গাপুরের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হালিমা ইয়াকুবের সঙ্গে ইস্তানায় সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এ দিন সকালে তিনি সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুংয়ের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করবেন। এ বৈঠকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে সহযোগিতা আরো জোরদারের লক্ষ্যে দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট যাবতীয় বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা করা হবে। পরে তিনি সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রীর দেয়া এক মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন।

মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী সিঙ্গাপুরের বিশ্ব ঐতিহ্য স্থান বোটানিক্যাল গার্ডেনে যাবেন। সেখানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মানে একটি অর্কিডের নামকরণ করা হবে।

পররাষ্ট্র মনন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সফরকালে বিভিন্ন ক্ষেত্রে দু’দেশের সম্পর্ক আরও জোরদারের লক্ষ্যে ছয়টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হতে পারে।

এর মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (বিডা) ও সিঙ্গাপুরের বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল এন্টারপ্রাইজের (আইই) মধ্যে বিনিয়োগ সহযোগিতা সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক, পাবলিক-প্রাইভেট অংশীদারিত্ব বিষয়ক সমঝোতা স্মারক, এয়ার সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত কনফিডেন্সিয়াল সমঝোতা স্মারক, ডিজিটাল লিডারশিপ, ডিজিটাল ইনোভেশন ও ডিজিটাল প্রশাসন রূপান্তর সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) ও মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এমসিসিআই) সঙ্গে সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়িক সংগঠন সিঙ্গাপুর ম্যানুফ্যাকচারিং ফেডারেশনের মধ্যে পৃথক দু’টি চুক্তি সমঝোতা স্মারক।

সফরকালে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুর বিজনেস ফোরাম-২০১৮ ও বালাদেশ সিঙ্গাপুর বিজনেস রাউন্ডটেবিল শীর্ষক দুটি পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করবেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে থাকবেন। আগামী ১৪ মার্চ বুধবার প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

 

উপরে আল্লাহ, তারপর শেখ হাসিনা : মায়া
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : `উপরে আল্লাহ, তারপর শেখ হাসিনা থাকায় বাংলাদেশ দুর্যোগ মোকাবেলায় সফলতা পেয়েছে।` এমন মন্তব্য করেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

তিনি বলেন, `এটুকু দেশে ১৭ কোটি মানুষ। একটার পর একটা দুর্যোগ- এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা কি চারটেখানি কথা! এটা সম্ভব হয়েছে উপরে আল্লাহ, তারপর জননেত্রী শেখ হাসিনার কারণে। আল্লাহর রহমত না থাকলে এ দুর্যোগ বন্ধ করা সম্ভব নয়। আর সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ও মানুষের ভালোবাসা না থাকলে সফল হওয়াও সম্ভব নয়। সেটি-ই করেছেন শেখ হাসিনা।`

শনিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতিমিলনায়তনে `জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস ২০১৮` এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এবার দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ হয়েছে `জানবে বিশ্ব জানবে দেশ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় প্রস্তুত বাংলাদেশ`।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের মতো দুর্যোগপ্রবণ দেশ পৃথিবীতে আর নেই। এ দেশে উজান থেকে পানি আসে, সমুদ্রের ঢেউ আসে, পাহাড়ি ঢল নামে, আকাশ থেকে ঠাডা পড়ে। উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব, পশ্চিম, ঊর্ধ্ব-অধ, সব জায়গা থেকে আঘাত আসে। ১২ মাসের মধ্যে ১০ মাসই আমাদের দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হয়।

তিনি বলেন, `প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসির কথা হলো একটা লোকও যেন কষ্ট না পায়। একটা লোকও যেন না খেয়ে মরে। একটা মানুষেরও অভিযোগ যেন আমার কাছে না আসে। তার ব্যবস্থা করতে হবে। তার (প্রধানমন্ত্রী) নির্দেশে আমরা কাজ করি এবং সফলতা পেয়েছি।`

`খরা, দুর্ভিক্ষ দেখা দিলেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছুটে আসেন` উল্লেখ করে মায়া বলেন, `যেখানে বন্য, যেখানে খরা, দুর্ভিক্ষ সেখানে সবার আগে ছুটে আসেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী। উনি পরামর্শ দেন, সহযোগিতা করেন। চাইছি ১০, দিছেন ২০। অভাব নাই শেখ হাসিনার ভাণ্ডারে। খাদ্যের অভাব নাই, চিকিৎসার অভাব নাই।`

তিনি বলেন, বিদেশে গেলে এখন আর ফকির কই না আমাদের। ডলার পকেটে নিয়ে বিদেশে যায় বাঙালিরা। এ সফলতা এসেছে দুটি কারণে, দল ও সরকার। একদিকে সরকার অন্যদিকে দল, দুই হাত মিলে আমরা একসঙ্গে কাজ করছি, সফলতা এনে দিয়েছি। এভাবে কাজ করলেই সফলতা আসে।

`রোহিঙ্গা সংকটকে মহাদুর্যোগ` উল্লেখ করে তিনি বলেন, `গত বছর আমরা ছয়টি দুর্যোগ মোকাবেলা করেছি। এর পাঁচটি হলো দুর্যোগ আর একটি মহাদুর্যোগ। এ মহাদুর্যোগ হলো রোহিঙ্গা। মরার ওপর খাড়ার ঘা।`

`দুর্যোগ মোকাবেলায় অনেকটা সফলতা এসেছে` উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, `আগে দুই তলার ওপরে যাওয়া যেত না। এখন ফায়ার সার্ভিস ২৪ তলার ওপর থেকে মানুষ উদ্ধার করে।`

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সিটিপি ও স্কাউট`র প্রশংসা করে মন্ত্রী বলেন, `বিনা পয়সায় এখন কেউ কাজ করে না। আমি মন্ত্রী, আমার বেতন আছে। কিন্তু দুটি সংগঠন বিনা পয়সায় দুর্যোগের সময় হাসতে হাসতে জীবন দিতে যায়। এর একটা হলো সিটিপি, আর একটা হলো স্কাউট।`

মাদক, বাল্যবিবাহ এবং জঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, মাদক, বাল্যবিবাহ এবং জঙ্গি থেকে মুক্ত থাকতে হবে। এ তিনটির বিরুদ্ধে সরকার জিহাদ ঘোষণা করেছে। এ তিনটি আমরা বাংলাদেশ থেকে নির্মূল করতে পারলে, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে পারবো।`

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ্ কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সদস্য সৈয়দ আবুল হোসেন বাবলা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের মহাপরিচালক রিয়াজ আহমদ, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহাম্মদ খান প্রমুখ।

 

দাবি আদায়ে গ্রামীণ ব্যাংক ঘেরাওয়ের হুমকি
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাকরি স্থায়ীকরণসহ পাঁচ দফা দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন গ্রামীণ ব্যাংকের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীরা। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শনিবার সকাল থেকে তাদের এক কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

২৪ ঘণ্টার মধ্যে দাবি পূরণ না হলে গ্রামীণ ব্যাংক ঘেরাও করার হুমকি দিয়েছে কর্মচারী পরিষদ।

‘বাতির নিচে অন্ধকার’, ‘গ্রামীণ ব্যাংকের অত্যাচার’, ‘ড. ইউনূসের কালো আইন মানি না, মানবো না’, ‘নিজের ঘরে শান্তি নাই কিভাবে শান্তিতে নোবেল পায়?’ ‘কারাগার থেকে মুক্তি চাই’, ‘গ্রামীন ব্যাংকের অত্যাচার মানি না, মানবো না’ এমন বিভিন্ন স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন ও ব্যানার নিয়ে আন্দোলন করছেন গ্রামীণ ব্যাংক চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পরিষদের সদস্যরা।

আন্দোলনকারীরা বলেন, আমরা গ্রামীণ ব্যাংকে কর্মরত দৈনিক ভিত্তিক পিয়ন কাম গার্ড পদে নিয়োগপ্রাপ্ত। দীর্ঘ ২০ বছর যাবৎ আমরা দৈনিক ভিত্তিতে কাজ করছি। ব্যাংকের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মতো কোন সুযোগ-সুবিধা আমাদের দেয়া হচ্ছে না। আমাদের দিয়ে ২৪ ঘণ্টা কাজ করানো হলেও, বেতনের বাইরে কোনো অর্থ দেয়া হয় না।

তারা বলেন, চাকরি করার পরও আমাদের মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে।

সংগঠনের সভাপতি আজিজুল হক বাবু বলেন, গ্রামীণ ব্যাংকে চাকরি করেও ২০ বছর ধরে মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমাদের দুর্শশা ও দাবির বিষয়ে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন মহলে ও গ্রামীণ ব্যাংকের মহাপরিদর্শকের কাছে লিখিতভাবে জানিয়েছি। কিন্তু তাতেও আমাদের দিকে কেউ মুখ তুলে দেখেনি।

তিনি বলেন, আমাদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় এখন রাস্তায় নেমে আন্দোলন শুরু করেছি। আজ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কর্মচারীদের স্থায়ীকরণ করা না হলে কাল রোববার মিরপুরে গ্রামীণ ব্যাংকের প্রধান অফিস ঘোরও করা হবে।

দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা সেখানে অবস্থান নেবেন বলেও জানান আজিজুল।

 


   Page 1 of 9
     জাতীয়
উড্ডয়নের ১৮ মিনিট পরই ঢাকায় বিমানের জরুরি অবতরণ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বাড়িতে এডিস মশার প্রজননক্ষেত্র থাকলে কারাদণ্ড!
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বঙ্গবন্ধুর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
স্থানীয় সরকারে জাফর, মালেক তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন বিমানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জুলাইয়ের মধ্যে ৫ সিটিতে নির্বাচন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মামলা না থাকলে নির্ধারিত সময়েই পাঁচ সিটির নির্বাচন: খন্দকার মোশাররফ হোসেন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে বিক্ষোভ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বৃহস্পতিবার সারা দেশে রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আমরা ব্যথিত, দেশবাসী মর্মাহত : জয়নুল আবেদীন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
আমি বোকা তাই আমার ভেতরে ভয়ভীতি কাজ করে না: জাফর ইকবাল
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুরের দু’টি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
কৌশলগত কারণেই কখনও পশ্চাদপসরণ : দুদক চেয়ারম্যান
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সিঙ্গাপুরের পথে প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
উপরে আল্লাহ, তারপর শেখ হাসিনা : মায়া
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দাবি আদায়ে গ্রামীণ ব্যাংক ঘেরাওয়ের হুমকি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ বেআইনি : ওবায়দুল কাদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
লাঞ্ছনাকারীরা যেন পার না পায় : চুমকি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শেখ হাসিনাকে ফোন, সহযোগিতা চান বিপ্লব দেব
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জিল্লুর রহমানের ৯০তম জন্মদিন আজ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
যৌন হয়রানির ঘটনায় কেউ ছাড় পাবে না : কাদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সবদলের অংশগ্রহণে নতুন কিছু করব না : সিইসি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রিয়ভাষিণীকে গার্ড অব অনার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মোরশেদ খানের অর্থপাচার মামলার পুনঃতদন্তের আদেশ বহাল
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নারী-পুরুষ মিলে কাজ করলে দেশ এগিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বিএসএমএমইউতে প্রথম নারী উপ-উপাচার্য নিয়োগ
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
স্বাধীনতাবিরোধীরা ক্ষমতায় আসলে কি দেশের উন্নয়ন হয় : প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সোহরাওয়ার্দীর মঞ্চে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জনসভা মঞ্চে শেখ হাসিনা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নেতাকর্মীদের স্লোগানে মুখরিত সোহরাওয়ার্দী উদ্যান
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
প্রশ্নফাঁসে জড়িতদের ‘ফায়ারিং স্কোয়াডে’ দেয়া উচিত : রাষ্ট্রপতি
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মশক নিধনে ডিএনসিসির বিশেষ ক্র্যাশ প্রোগ্রাম উদ্বোধন
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
শিক্ষকদের সম্মান পেতে শেখ হাসিনা সরকারের বিকল্প নেই
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
এসআই পদে নিয়োগ না দেয়া কেন অবৈধ নয় : হাইকোর্ট
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী আর নেই
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
নিজেদের মধ্যেই শত্রু আছে : নাছিম
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পাটের বহুমুখী ব্যবহার ও নতুন বাজার সৃষ্টি করতে হবে:
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থানে যাওয়ার আহ্বান বিশিষ্টজনদের
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
তদবিরের কারণে অফিসে বসা যায় না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
পাটের বিকাশে বাধা অর্থমন্ত্রী : পাট প্রতিমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সিএমএইচে জাফর ইকবালের পাশে প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মেট্রোরেল নির্মাণে ‘যানজটের ভোগান্তি’
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
বাংলাদেশ-ভিয়েতনাম তিন সমঝোতা
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জাফর ইকবালকে দেখতে সিএমএইচে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
মুঠোফোন নিয়ে ব্যস্ত থাকা সেই দুই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
‘কারাবাসে অভ্যস্ত’ হয়ে উঠেছেন খালেদা জিয়া
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জাফর ইকবালের ওপর হামলা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আঘাত
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
সভাপতি ছাড়া ঢাকা বারে আওয়ামীপন্থীদের বড় বিজয়
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......
জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীরা ধর্মান্ধ : প্রধানমন্ত্রী
............ ...... ....... ....... ............................. .......................... ... .... ......