শেয়ার করুন
Share Button
  
  সিডনিতে ভাষা শহীদ স্মৃতিসৌধর এক দশক
  20, February, 2016, 9:53:20:AM
সিডনিতে পৃথিবীর প্রথম ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ স্মৃতিসৌধ স্থাপনের ১০ বছর পূর্তি উদযাপন করেছে একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়া। ১৪ ফেব্রুয়ারি রবিবার সিডনির এশফিল্ড হাইস্কুল অডিটোরিয়ামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
 
এ সময় বক্তব্য রাখেন একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়ার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নেহাল নেয়ামুল বারী, বর্তমান সভাপতি ড. আবদুল ওহাব, অস্ট্রেলিয়ান লেবার পার্টির নেতা কার্ল সালেহ, স্ট্রাথফিল্ড সিটি কাউন্সিলের মেয়র রাজদত্ত, টুংগাবী সিটি কাউন্সিলের সাবেক মেয়র প্রবীর মৈত্র, এসবিএস বাংলা রেডিও সাংবাদিক আবু রেজা আরেফিন, মুক্তমঞ্চ-এর সম্পাদক, একুশে একাডেমির সংগঠক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ নেতা আল-নোমান শামীম প্রমুখ।
 
এতে বাংলাদেশ কনস্যুলর জেনারেল, অস্ট্রেলিয়ান সংসদ সদস্য, সিটি কাউন্সিলের, মেয়র এবং কাউন্সিলরসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিরা অংশ নেন। আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক লরেন্স ব্যারেলের সঞ্চালনায় বাংলাদেশ এবং অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এছাড়া সব প্রগতিশীল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও প্রবাসী বাঙ্গালীরা উপস্থিত ‍ছিলেন।
 
ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ২১ ফেব্রুয়ারিকে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ ঘোষণা করার পরে এটি পৃথিবীর প্রথম নির্মিত মনুমেন্ট। একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়া ১৯৯৯ সাল থেকেই শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে প্রতি বছর বইমেলার আয়োজন করে আসছে।
 
সিডনির এশফিল্ড হেরিটেজ পার্কে ২০০৬ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি পৃথিবীর প্রথম আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস মনুমেন্ট (শহীদ মিনার) নির্মাণ করে একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়া। অর্থায়ন করে তৎকালীন বাংলাদেশ সরকার ১২হাজার ডলার, প্রবাসী বাংলাদেশীরা এবং স্টেট গভরমেন্ট।
 
একুশে একাডেমি গত ১৬ বছর ধরে অস্ট্রেলিয়ায় বাঙ্গালী চেতনা ও ঐতিহ্যের সাথে অস্ট্রেলিয়ার মুলধারার সম্মেলনে অন্যতম অনশীদার হয়ে রক্তদান ও সরকারের অন্যতম সমাজসেবা মুলক কাজের সাথে সম্পৃক্ত।


:        
   আপনার মতামত দিন